উত্তর আমেরিকা

আফগানিস্তান থেকে সেনা প্রত্যাহার নিয়ে আফসোস নেই বাইডেনের

ওয়াশিংটন, ১১ আগস্ট – মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন বলেছেন, আফগানিস্তান থেকে সেনা প্রত্যাহারের সিদ্ধান্ত নিয়ে তার কোনো আফসোস নেই। আফগান নেতাদের প্রতি ঐক্যের ডাক দিয়ে তিনি আফগানিস্তানের সুরক্ষার জন্য লড়াই চালিয়ে যাওয়ারও আহ্বান জানান। বুধবার সংবাদমাধ্যম এ খবর জানিয়েছে।

মার্কিন সেনা প্রত্যাহারকে কেন্দ্র করে সম্প্রতি আফগানিস্তানে ব্যাপক সক্রিয়তা দেখাচ্ছে তালেবান। ইতোমধ্যে তারা দেশটির সিংহভাগ এলাকা দখল করে নিয়েছে। সরকারি বাহিনীর হাত থেকে দেশটির ৩৪ প্রাদেশিক রাজধানীর মধ্যে অন্তত আটটি তালেবানের হাতে চলে গেছে।

চলতি মাসের মধ্যেই আফগানিস্তান থেকে সব সেনা সরিয়ে নিচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র। এ নিয়ে ইতোমধ্যে মার্কিন প্রশাসনের উর্ধতন কর্মকর্তারা তাদের মত জানিয়েছেন। এসব বক্তব্যের সারকথা যা দাঁড়ায়, তা হলো – তারা আফগানিস্তানের লড়াইকে তাদের অভ্যন্তরীণ বিষয় হিসেবে দেখতে চাইছেন।

স্থানীয় সময় মঙ্গলবার হোয়াইট হাউসে এক সংবাদ সম্মেলনে বাইডেন বলেন, আফগানিস্তানকে দেয়া অঙ্গীকার রাখছে যুক্তরাষ্ট্র। এরমধ্যে রয়েছে – বিমান বাহিনীর সহযোগিতা, সামরিক বাহিনীর বেতন দেয়া ও আফগান বাহিনীকে খাবার ও প্রয়োজনীয় রসদ সরবরাহ।

বাইডেন বলেন, ‘তারা এগুলো পাচ্ছে নিজেদের জন্য লড়াই করার তাগিদে।’ মার্কিন সামরিক বাহিনীর একটি মূল্যায়নের প্রসঙ্গ উল্লেখ করে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক কর্মকর্তার বরাত দিয়ে ওয়াশিংটন পোস্ট জানিয়েছে, আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুল ৯০ দিনের মধ্যে তালেবানের হাতে চলে যেতে পারে।

জাতিসংঘ বলছে, সরকারি বাহিনী ও তালেবানের মধ্যে লড়াইয়ে গত এক মাসে ১ হাজারের বেশি বেসামরিক মানুষ নিহত হয়েছেন। আর তাদের শিশু বিষয়ক তহবিল ইউনিসেফ বলছে, দুই পক্ষের লড়াইয়ে হতাহত হচ্ছে শিশুরা।

সর্বশেষ আফগানিস্তানের প্রাদেশিক রাজধানী ফারাহ নগরী এবং পুল-ই-কুমরি দখলে নিয়েছে তালেবান। কর্মকর্তারা জানান, তালেবানরা বাগলান প্রদেশের রাজধানী পুল-ই-কুমরি কেন্দ্রীয় স্কয়ার ও সরকারি অফিসগুলোতে তাদের পতাকা তুলে দিয়েছে।

সূত্র : বাংলাদেশ জার্নাল
এন এইচ, ১১ আগস্ট

Back to top button