মাদারীপুর

তীব্র স্রোতে বাংলাবাজার-শিমুলিয়া রুটে ফেরি চলাচল ব্যহত

মাদারীপুর, ০৭ আগস্ট – পদ্মায় অস্বাভাবিক পানি বৃদ্ধি অব্যাহত থাকায় স্রোতের তীব্রতা বেড়েছে। প্রবল স্রোতের সাথে পাল্লা দিয়ে চলাচল করতে না পারায় বাংলাবাজার-শিমুলিয়া নৌরুটে ফেরি চলাচল ব্যহত হচ্ছে। বন্ধ রয়েছে বেশ কয়েকটি ফেরি। যে কয়েকটি ফেরি চলাচল করছে সেই ফেরিগুলো পারাপারে প্রায় দ্বিগুণ সময় লাগছে। এদিকে কঠোর লকডাউনের মধ্যেও সকাল থেকেই বাংলাবাজার-শিমুলিয়া নৌরুটে ঢাকামুখী যাত্রীদের ভিড় ছিল। যাত্রী চাপে ফেরিতে পণ্যবাহী ট্রাক, অ্যাম্বুলেন্সসহ জরুরি গাড়ি উঠাতে হিমশিম খায় কর্তৃপক্ষ। ফলে উভয় ঘাটে ৫ শতাধিক পণ্যবাহী ট্রাক পারাপারের অপেক্ষায় রয়েছে। এদিনও দক্ষিণাঞ্চলের বিভিন্ন জেলা থেকে যাত্রীরা হালকা যানবাহনে তিনগুণ ভাড়া দিয়ে বাংলাবাজার ঘাটে এসে ফেরিতে গাদাগাদি করে পদ্মা পাড়ি দেন। সর্বত্রই স্বাস্থ্যবিধি ছিল উপেক্ষিত।

বিআইডব্লিউটিসিসহ একাধিক সূত্রে জানা যায়, চলতি বর্ষা মৌসুম শুরু হওয়ার পর থেকেই পদ্মায় অস্বাভাবিক পানি বৃদ্ধি অব্যাহত রয়েছে। পানি বৃদ্ধির সাথে সাথে স্রোতের গতিবেগও বেড়েছে। নৌ চ্যানেলের বেশ কয়েকটি স্থানে স্রোত সৃষ্টি হয়েছে। ফলে ফেরি চলাচল চরমভাবে ব্যহত হচ্ছে। স্রোতের সাথে পাল্লা দিয়ে চলতে না পারায় এরুটের ৬ টি ডাম্ব ফেরি, রো রো ফেরি হযরত শাহজালাল, কেটাইপ ফেরি কর্নফূলিসহ ৮টি ফেরি বন্ধ রাখতে বাধ্য হয়েছে কর্তৃপক্ষ। বর্তমানে রো রো ও কেটাইপসহ মোট ১০টি ফেরি দিয়ে যাত্রী ও যানবাহন পারাপার করা হচ্ছে।

খুলনা থেকে আসা রবিউল হাসান বলেন, আমার অফিস খুলবে ১১ তারিখ তাই ঢাকা যাচ্ছি। কিন্তু ফেরিতে এতো ভিড় যে দাঁড়ানোর জায়গাও পাওয়া কষ্ট। আর স্বাস্থ্যবিধি এখানে নাই বললেই চলে।

পটুয়াখালী থেকে আসা কামরুল মিয়া বলেন, অফিস খুলে দিচ্ছে ঠিক আছে, কিন্তু আমাদের ঢাকায় যাওয়ার কোনো সুব্যবস্থাতো করল না সরকার। বাস বন্ধ তাই ইজিবাইকে ভেঙে ভেঙে ৬০০ টাকার ভাড়া ১৫০০ টাকা দিয়ে বাংলাবাজার ঘাটে আসলাম। এখানেও ভিড়, লঞ্চ চালু থাকলে এতো চাপ ফেরিতে হতো না। এটা সরকারের দেখা উচিত।

বাংলাবাজার ঘাট ম্যানেজার মো. সালাউদ্দিন বলেন, নদীতে প্রবল স্রোতের কারণে ফেরি চলাচল ব্যহত হচ্ছে। আমাদের ৮টি ফেরি বন্ধ রয়েছে। ১০টি ফেরি দিয়ে যাত্রী ও যানবাহন পারাপার করা হচ্ছে। আজও সকাল থেকেই যাত্রীদের চাপ রয়েছে। ফলে ঘাটে কিছু পণ্যবাহী ট্রাক পারাপারের অপেক্ষায় রয়েছে। আমরা পণ্যবাহী ট্রাক, অ্যাম্বুলেন্স জরুরি গাড়ি অগ্রাধিকার ভিত্তিতে পারাপার করছি।

সূত্র: কালের কণ্ঠ
এম ইউ/০৭ আগস্ট ২০২১

Back to top button