ক্রিকেট

অস্ট্রেলিয়ায় খেলা দেখাতে চেয়েছিল বিসিবি

ঢাকা, ০৭ আগস্ট – টি২০ সিরিজ দেখার জন্য সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে চোটাক্রান্ত অ্যারন ফিঞ্চ ও গ্লেন ম্যাক্সওয়েলের আকুতির পরই সামনে আসে বিষয়টি। জানা যায়, অস্ট্রেলিয়ায় সিরিজটি সম্প্রচার হচ্ছে না। ৩০ বছর পর অস্ট্রেলিয়া জাতীয় দলের খেলা অস্ট্রেলিয়ায় দেখা যাচ্ছে না। অথচ সিরিজটা নিয়ে অস্ট্রেলিয়ানদের ব্যাপক আগ্রহ। সেটা দেখেই ‘সিডনি মর্নিং হেরাল্ড’ এই সম্প্রচার না হওয়ার পেছনের কারণটা খুঁজে বের করেছে। এ সিরিজটি সম্প্রচারের দায়িত্ব পাওয়া প্রতিষ্ঠান বিসিবি মারফত দু’বার প্রস্তাব দিলেও আগ্রহ দেখায়নি বিদেশ থেকে অস্ট্রেলিয়ায় সব খেলা সম্প্রচারকারী ‘ফক্সটেল’। অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে প্রতিটি বল সম্প্রচারের স্বত্ব থাকা ফক্সটেল নাকি এক পর্যায়ে সিরিজটি সম্প্রচারের জন্য উল্টো টাকা দাবি করেছিল বাংলাদেশি প্রতিষ্ঠানের কাছে।

সিরিজ সম্প্রচার না করার পেছনে কারণ দেখানো হয়েছিল, অলিম্পিকের সঙ্গে সূচি সাংঘর্ষিক হয়ে যাওয়া। দ্বিতীয়ত ওয়ার্নার, স্মিথ, ম্যাক্সওয়েলসহ আটজন সেরা খেলোয়াড় না থাকায় চ্যানেলগুলোর ধারণা ছিল, এ সিরিজের প্রতি হয়তো অস্ট্রেলিয়ানদের আগ্রহ থাকবে না। হাইপ্রোফাইল ক্রিকেটাররা না থাকায় আগ্রহ কমে যাওয়াটা স্বাভাবিক। তবে সদ্য সমাপ্ত উইন্ডিজের সিরিজেও তো আট তারকা ছিলেন না। সে সিরিজ তো ঠিকই সম্প্রচার করা হয়েছে।

বিসিবির একটি সূত্রের বরাত দিয়ে সিডনি মর্নিং হেরাল্ড জানিয়েছে সিরিজটি সম্প্রচার না করার আসল কারণ। এ সিরিজ সম্প্রচারের স্বত্ব পাওয়া বাংলাদেশি প্রতিষ্ঠান গত মে মাসে বিসিবি মারফত ফক্সটেলকে প্রস্তাব পাঠায়। কিন্তু তাদের জবাব ছিল চমকে যাওয়ার মতো। ২০১৭ সালের বাংলাদেশে অনুষ্ঠিত সিরিজটি সম্প্রচার করে আর্থিক ক্ষতি হয়েছিল- এই ধুয়া তুলে তারা সিরিজটি সম্প্রচারের জন্য কোনো টাকা দিতে পারবে না বলে জানায়। উল্টো ‘ফক্স স্পোর্টস’-এ ফিড পাঠানো বাবদ খরচ দাবি করে তারা। স্বভাবতই তাতে রাজি হয়নি স্বত্ব পাওয়া প্রতিষ্ঠান। সিরিজ শুরুর দু’দিন আগে, ১ আগস্ট আবার ফক্সটেলকে এজেন্ট মারফত প্রস্তাব পাঠানো হয়। এবার তারা খরচ চাওয়া থেকে সরে এলেও এই সিরিজ সম্প্রচার বাবদ কোনো অর্থ দিতে পারবে না বলে জানিয়ে দেয়। ফ্রিতে দিলে তারা সম্প্রচার করবে। মুফতে এই সুযোগ দিতে রাজি হয়নি সম্প্রচারের স্বত্ব পাওয়া প্রতিষ্ঠান। ফলে অস্ট্রেলিয়ায় সিরিজটি সম্প্রচারের সম্ভাবনা শেষ হয়ে যায়।

সূত্র : সমকাল
এন এইচ, ০৭ আগস্ট

Back to top button