পশ্চিমবঙ্গ

অভিষেক রাজীবের ৩০ মিনিটের বৈঠক! তুঙ্গে ঘর ওয়াপসির জল্পনা

ঢাকা, ০৬ আগস্ট – মুকুল রায় তৃণমূলে ফেরার পর অদ্যাবধি কোনও দলবদলু নেতার এখনও সেভাবে ঘর ওয়াপসি হয়নি। তবে পদ্মবন থেকে ঘাসফুলের কোর্টে ফেরার সম্ভবনা যাঁদের রয়েছে, সেই তালিকায় সবার উপরেই নাম রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়ের। দলবদলের তীব্র জল্পনা উস্কে দিয়ে শুক্রবার তিনি সাক্ষাৎ করলেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে। রাজীবের পক্ষ থেকে কোনও বৈঠকের সত্যতা স্বীকার করা হয়নি। কিন্তু বিশ্বস্ত সূত্রে জানা যাচ্ছে, শুক্রবার সন্ধ্যায় তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদকের ক্যামাক স্ট্রিটের অফিসে প্রায় ৩০ মিনিট বৈঠক করেন তিনি।

বৈঠকে কী কথা হয়েছে, রাজীব তৃণমূলে ফিরতে চেয়েছেন কি না, সেই সম্পর্কে কোনও তথ্যই অবশ্য জানা যায়নি। তবে অভিষেক-রাজীবের এই সাক্ষাৎকার রাজনৈতিক মহলে নতুন জল্পনার জন্ম দিয়েছে। নির্বাচনের পর থেকেই রাজীব যেভাবে একধাক্কায় গেরুয়া শিবিরের থেকে নিজেকে দূরে সরিয়ে নিয়েছেন, এবং দফায় দফায় একাধিক তৃণমূল নেতাদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছেন, তাতে এই জল্পনা বৃদ্ধি পাওয়া আরও স্বাভাবিক। তবে রাজীবকে ফিরিয়ে নেওয়ার বিষয়ে শাসকদল আদৌ কোনও ইতিবাচক সিদ্ধান্ত নেবে কি না, সেই বিষয়ে ঘোর সংশয়ে ওয়াকিবহাল মহলের একাংশ।

এর প্রধান কারণ হাওড়া জেলা সংগঠনে রাজীবকে নিয়ে ব্যাপক অসন্তোষ। ডোমজুড়ের প্রাক্তন বিধায়ক যে সময় এবং দল ছেড়ে গিয়েছিলেন, তা মেনে নিতে পারেননি ঘাসফুল শিবিরের নেতা কর্মীরা। তাতে অবশ্য তৃণমূলের ক্ষতির চেয়ে লাভ হয়েছে বেশি। হাওড়া জেলার সবকটি বিধানসভা আসনেই জয়লাভ করেছে শাসকদল। এই ফলের পর নতুন করে রাজীবকে দলে ফিরিয়ে জেলা নেতৃত্বকে চটাতে চাইছেন না শীর্ষ নেতৃত্ব।

রাজীব যদিও নির্বাচন মেটার পর থেকেই তৃণমূলে ফেরার চেষ্টা চালাচ্ছেন বলেই ধারণা রাজনীতির কারবারিদের। কারণ যেভাবে তিনি একাধিক সময় নানা অছিলায় কখনও কুণাল ঘোষ, কখনও পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে দেখা করেছেন, তা আসলে নৈকট্য বৃদ্ধির প্রচেষ্টা বলেই মত রাজনৈতিক মহলের একাংশের। রাজীব নিজে অবশ্য মুখ খুলছেন না। কিন্তু বিজেপির সঙ্গে সম্পর্ক শুধুমাত্র খাতায় কলমেই বজায় রেখেছেন। এই অবস্থায় অভিষেকের সঙ্গে তাঁর সাক্ষাৎ নতুন করে জল্পনা বৃদ্ধি করেছে বৈকি।

সূত্র : টিভি৯ বাংলা
এন এ/ ০৬ আগস্ট

Back to top button