চট্টগ্রাম

চট্টগ্রামে ২৪ ঘণ্টায় আরও ১৭ জনের মৃত্যু

চট্টগ্রাম, ০৬ আগস্ট – চট্টগ্রামে করোনায় আক্রান্ত হয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ১৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। যা চট্টগ্রামের জন্য দ্বিতীয় সর্বোচ্চ মৃত্যুর সংখ্যা। যাদের ৮ জন নগরের বাকি ৯ জন উপজেলার বাসিন্দা। এ নিয়ে মৃত্যুর সংখ্যা এসে দাঁড়িয়েছে ১ হাজার ৩৬ জনে।

এছাড়া গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছে আরো ১ হাজার ১১৪ জন। তারমধ্যে ৭১২ জন নগরের ও ৪০২ জন বিভিন্ন উপজেলার বাসিন্দা। এ নিয়ে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ৮৮ হাজার ৬৬০ জনে এসে দাঁড়িয়েছে। এর মধ্যে ৬৫ হাজার ৮১২ জন নগরের বাসিন্দা ও ২২ হাজার ৮৪৮ জন বিভিন্ন উপজেলার।

বৃহস্পতিবার রাতে জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয়ের সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে। কক্সবাজারসহ চট্টগ্রামের সরকারি-বেসরকারি ১১টি ল্যাব ও বিভিন্ন এন্টিজেন বুথে সর্বমোট ৩ হাজার ৭৭৭ জনের নমুনা পরীক্ষা হয়।

ল্যাবভিত্তিক রিপোর্টে দেখা যায়, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ল্যাবে ৪৮৬ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হলে নগরের ৫৯ ও উপজেলার ১৬০ জনের শরীরে জীবাণুর উপস্থিতি চিহ্নিত হয়। ফৌজদারহাটের বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ট্রপিক্যাল এন্ড ইনফেকশাস ডিজিজেস ল্যাবে (বিআইটিআইডি) ৭৪৭ জনের নমুনা পরীক্ষায় চট্টগ্রাম নগরের ২১৮ ও উপজেলার ৬২ জন জীবাণুবাহক পাওয়া গেছে। চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ ল্যাবে ৫৮০ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হলে নগরের ১০৬ ও উপজেলার ৪২ জনের শরীরে জীবাণুর উপস্থিতি চিহ্নিত হয়। চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি এন্ড এনিম্যাল সায়েন্সেস বিশ্ববিদ্যালয় ল্যাবে ২৮৪ জনের নমুনা পরীক্ষায় চট্টগ্রাম নগরের ১ জনের জীবাণুবাহক পাওয়া গেছে।

নমুনা সংগ্রহের পরপরই ফলাফল প্রদানকারী এন্টিজেন টেস্টে ৭৩৯ জনের মধ্যে ১৯৫ জন জীবাণুবাহক বলে জানানো হয়। এর মধ্যে চট্টগ্রাম নগরের ৯৭ জন ও উপজেলার ৯৮ জন। চট্টগ্রাম নগরীতে করোনা পরীক্ষার নমুনা সংগ্রহকারী কয়েকটি কেন্দ্রে এন্টিজেন টেস্ট করা হয়ে থাকে।

এদিকে বেসরকারি ক্লিনিক্যাল ল্যাবরেটরির মধ্যে ইমপেরিয়াল হাসপাতালের ল্যাবে ১৯৯ নমুনা পরীক্ষা নগরের ৪৭ জন ও উপজেলার ৩ জনের করোনা শনাক্ত হয়। শেভরন ল্যাবে ২৬৬ টি নমুনায় চট্টগ্রাম নগরের ৬৩ ও উপজেলার ৪ জনের শরীরে করোনা শনাক্ত হয়। আগ্রাবাদের মা ও শিশু হাসপাতালে ৮৯ জনের নমুনা পরীক্ষায় নগরে ২৮ জন ও উপজেলার ১ জন করোনা পজিটিভ শনাক্ত হন। আরটিআরএল ল্যাবে ১৬ নমুনা পরীক্ষা নগরের ৮ জন আর উপজেলার ২ জনের শরীরে করোনা ভাইরাসের উপস্থিতি মিলেছে। মেডিকেল সেন্টার হাসপাতালে ৬১ নমুনা পরীক্ষায় নগরে ৩২ জন আর উপজেলার ২ জনের শরীরে করোনা ভাইরাসের উপস্থিতি মিলেছে। ইপিক হেলথ কেয়ার ল্যাবে ১১৫ জনের নমুনা পরীক্ষায় নগরে ৫৩ জন ও উপজেলার ৬ জন করোনা পজিটিভ শনাক্ত হন। এছাড়া কক্সবাজার মেডিকেল কলেজ ল্যাবে নমুনা পরীক্ষা হয়েছে কেবল ১৯৫ টি এর মধ্যে উপজেলার ২২ জন করোনা পজিটিভ শনাক্ত হন।

সর্বশেষ ২৪ ঘন্টায় চট্টগ্রামে করোনা শনাক্তদের মধ্যে লোহাগাড়ার ১৬ জন, সাতকানিয়ার ১১ জন, বাঁশখালীর ৩৩ জন, আনোয়ারার ৩৮ জন, চন্দনাইশের ২৪ জন, পটিয়ার ৩ জন, বোয়ালখালীর ১৮ জন, রাঙ্গুনিয়ার ২২ জন, রাউজানের ৫৩ জন, ফটিকছড়ির ৪১ জন, হাটহাজারীর ৮৯ জন, সীতাকুণ্ডের ১৯ জন, মিরসরাইয়ের ১০ জন ও সন্দ্বীপের রয়েছেন ১৫ জন।

এদিকে, চট্টগ্রাম জেলা সিভিল কার্যালয়ের হিসাব অনুযায়ী, চট্টগ্রামে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীদের ৬৬ ভাগই সুস্থ হয়ে ফিরেছেন। এর মধ্যে ৫৬ ভাগ রোগী সুস্থ হয়েছেন বাড়িতে থেকে। বুধবার পর্যন্ত চট্টগ্রাম মহানগর ও উপজেলাগুলো মিলিয়ে করোনা থেকে মুক্ত হয়ে সুস্থ হয়েছেন ৫৬ হাজার ৮৮০ জন। এর মধ্যে হাসপাতালে থেকে সুস্থ হয়েছেন ৮ হাজার ১০১ জন। আর বাড়িতে থেকে সুস্থ হয়েছেন ৪৮ হাজার ৭৭৯ জন। সবমিলিয়ে চট্টগ্রামে আক্রান্তের সংখ্যা যেমন রোজ বাড়ছে, তেমনই প্রচুর মানুষ সুস্থও হয়ে উঠছেন।

প্রসঙ্গত, ২০২০ সালের ৮ মার্চ দেশে প্রথম করোনা শনাক্তের খবর জানায় স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। ৩ এপ্রিল চট্টগ্রামে প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হয়। এরপর ৯ এপ্রিল করোনায় আক্রান্ত হয়ে প্রথম এক ব্যক্তি মারা যান।

সূত্র : বাংলাদেশ জার্নাল
এন এইচ, ০৬ আগস্ট

Back to top button