Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

কানাই লাল শীল

লোকসঙ্গীতের জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী কানাই লাল শীল। তিনি গ্রাম বাংলার কিংবদন্তী দোতরা বাদক, পল্লীগীতির রচয়িতা, সুরকার এবং বিশিষ্ট দোতরা বাদক।

জন্ম এবং সঙ্গীত জীবন
ফরিদপুর জেলার নগরকান্দা থানার কৈরাইল গ্রামে বাংলা ১৩০২ সনে অগ্রহায়ন মাসে কানাইলাল শীলের জন্ম। মাত্র আড়াই বছর বয়সে কানাইলাল শীল তাঁর পিতা আনন্দ চন্দ্র শীলের মৃত্যু হলে মাতা সৌদামিনী শীলের স্নেহে লালিত-পালিত হন। খুব ছোটবেলায় ৮ বৎসর বয়সে ওস্তাদ বসন্ত কুমার শীলের হাতেই প্রথম বেহালায় শিক্ষা গ্রহণ করেন। পরে ১১ বৎসর বয়সেই ওস্তাদ মতিলালের কাছে বেহালায় পূর্ণপাঠ সমাপ্ত করেন। সুর সাধনায় কানাইলাল শীলের একনিষ্ঠতায় ছোট বেলায় যাত্রাদল ও কবি গানের দলের সম্পৃক্ত হয়ে ফরিদপুর জেলা ও তৎসংলগ্ন এলাকায় বেরিয়ে পড়েন। এভাবে যাত্রাদল ও কবিগানের দলে ঘুরতে ঘুরতে ফরিদপুরের বইমহাট ফকিরবাড়িতে দরবেশ দাগুশাহের মাজারে এসে উপস্থিত হলে সেখানে মাজারে আয়োজিত অনুষ্ঠানে এক শিল্পীর দোতরা বাদনের সুরে কানাইলাল শীল অভিভূত হয়ে পড়েন এবং ভাবেন এ সুর তো পার্থিব হতে পারে না, এ যেন অপার্থিব কোন সুর। দোতরার বাদনের সুর তাকে এতোটাই মোহাচ্ছন্ন করে তোলে যে কানাইলাল সিদ্ধান্ত নেন যেভাবেই হোক তাকে বেহালা ছেড়ে দোতরা বাদনের শিক্ষা নিতে হবে। সেই সিদ্ধান্তের ফলে ঐ অঞ্চলের বিশিষ্ট দোতরা বাদক তরচন সরকারের শিষ্যত্ব গ্রহণ করেন এবং দোতরার বাদন একেবারে খুব অল্প সময়ে রপ্ত করেন। সেই সাথে দোতরা হাতে নিয়ে কানাইলাল শীল কৃষ্ণলীলার দলে যোগ দেন এবং ফরিদপুরের বিভিন্ন জায়গায় কৃষ্ণলীলার ভক্তিমূলক গানে দোতরা বাজিয়ে সবার প্রশংসা অর্জন করেন।

কানাইলাল শীল অল ইন্ডিয়া রেডিও আকাশবাণী কোলকাতা কেন্দ্রে কাজ করার সুযোগ পান। আব্বাস উদ্দিন আহমেদ তখন সারা কোলকাতায় একজন বিশিষ্ট সঙ্গীত শিল্পী হিসেবেই ইতিমধ্যেই নাম-ধাম অর্জন করেছেন। আব্বাস উদ্দিনের গাওয়া অধিকাংশ গানেই কানাইলাল শীলের দোতরা ছিল বিশেষভাবে উল্লেখযোগ্য। মাঝি বাইয়া যাওরে/ থাকতে পার ঘাটাতে তুমি পারের নাইয়া/ ও ঢেউ খেলেরে, ঝিলমিল সাগের ঢেউ খেলেরে/ দিনের দিন ফুরাইলো শুখনাতে তরণী/ ফান্দে পড়িয়া বগা কান্দেরে এমন অসংখ্য গানেই কানাইলাল শীলের দোতরা বাদন গ্রাম বাংলার মানুষের কাছে বিশেষ ভাবেই সমাদৃত ছিল। পরবর্তী সময়ে ভারত ভাগের পরে ১৯৪৯ সালে ঢাকায় চলে আসেন এবং তৎকালীন রেডিও পাকিস্তান ঢাকা কেন্দ্রে নিজস্ব শিল্পী ও সুরকারের দায়িত্বে নিয়োজিত হন। ঢাকা কেন্দ্রে যোগদানের পর কানাইলাল শীল একনিষ্ঠভাবে পল্লীগীতি ও ভাওয়াইয়া গানে অংশ নিয়ে দোতরার সুরে মোহনীয় বাদনতুলে সবার দৃষ্টি আকর্ষণে সক্ষম হন।

অনেক ছায়াছবির গানেও তার অসাধারণ প্রতিভার স্বাক্ষর রেখেছেন। ‘আসিয়া’ ছায়াছবিতে ‘আমার গলার হার খুলে নে ওগো ললিতে’ কিংবা ‘আমায় ঘর ছাড়া করিলি রে/সুখ বসন্ত সুখের কালে’ এমনি অসংখ্য গানও তিনি নিজে লিখে সুর করেছেন। সে গানগুলো বাংলা সঙ্গীত জগতের এক একটি সম্পদ। তার পুত্র অবিনাশ শীল ও নাতি দুলাল শীলও দোতরা বাদনে বাংলাদেশ বেতারে এখনো নিয়োজিত।

মৃত্যু
১৯৮১ সালের ৫ সেপ্টেম্বর ৮৬ বৎসর বয়সে তিনি এ পৃথিবী থেকে বিদায় নেন


Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে