Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

কাজী নজরুল ইসলামের জীবনের ৩০টি মজার ঘটনা  

কাজী নজরুল ইসলামের জীবনের ৩০টি মজার ঘটনা… কবি কাজী নজরুল ইসলামের রসবোধ সম্পর্কে তার লেখনীর মাধ্যমে আমরা সবাই কম বেশি পরিচিত। কবিকে যারা ব্যক্তিগতভাবে চিনতেন, তারা সকলেই মুগ্ধ হতেন তার ভীষণ আয়েশী আড্ডাবাজ স্বভাব এবং যেকোনো পরিস্থিতিতে খোশমেজাজে থাকতে পারার দুর্দান্ত ক্ষমতায়। চলুন জেনে নেয়া যাক কবির জীবনের অনেক হাস্যরসপূর্ণ ঘটনার মধ্যে কয়েকটি। ১. কবি নজরুল তখন খুব ব্যস্ত। নিয়মিত গ্রামোফোন কোম্পানির রিহার্সাল রুমে আসেন, গান লিখেন, সুর করেন, গান শিখিয়ে দেন। বেশীর ভাগ গান গাইছেন কে মল্লিক। একদিন এই কে মল্লিকের কাছে এক লোক এল। লোকটির নাম প্রফেসর জি দাস। এসে ধরল মল্লিককে, সে গান গাইতে চায়। গান গাইতে হলে তো পরীক্ষা দিতে হবে কোম্পানিতে, পরীক্ষা নেয়া হলো। ফলাফল, একেবারে অচল! গান নেওয়া হবে না শুনে ওখানেই হাউমাউ করে কেঁদে ওঠলেন বেচারা প্রফেসর। কে মল্লিক যতই সান্তনা দেন, বেচারা ততই কাঁদেন। আওয়াজ শুনে এলেন কোম্পানির বড়বাবু। তিনি সব শুনে প্রফেসরকে বললেন, 'আপনার গলা এখনও ঠিক হয়নি। সুর-তাল-লয় ঠিক থাকছেনা, কদিন পর আসুন, দেখা যাক কী হয়।' প্রফেসর লোকটি তখন বড়বাবুর কাছে কয়েকজনের নামে বিচার দিলেন যারা তাকে ফুঁসলিয়ে মিষ্টি খেয়ে নিয়েছে তার কাছ থেকে। ওরা নাকি তাকে এও বলেছে যে তোমার গলা ভাল হলেও কে মল্লিক হিংসা করে তোমাকে গান গাইতে দিবে না। বড়বাবু বুঝলেন যে বেচারা খুব সরল মানুষ,…

হুমায়ূনের পদধ্বনি

হুমায়ূনের পদধ্বনি
হুমায়ূন কি শেষ হয়ে গেল? তার বইয়ের কাটতি কি আগের মতো রয়েছে? জনপ্রিয়তাই কি হুমায়ূনের মূল শক্তি? তার স্বাতন্ত্র্য বা প্রাতিস্বিকতা কোথায়? মৃত্যুর পরও কি তিনি আগের মতো জনপ্রিয় বা পাঠকপ্রিয় আছেন? বিজ্ঞান আর বৃষ্টির মায়া তাকে আঁকড়ে ধরেছিল সেই শৈশবে। সেই টানে তিনি ভেসে বেড়িয়েছেন সারা জীবন। আমার এক ছাত্র- হুমায়ূনের ভক্ত আবিরের কথা দিয়ে আজকের নিবন্ধটি শুরু করতে চাই। বছর সাতেক আগের কথা।…

‘সেই যে হাট থেকে তোলা ১৫০ টাকা; সেই ঋণ আজও শোধ হয়নি’

‘সেই যে হাট থেকে তোলা ১৫০ টাকা; সেই ঋণ… ঢাকা, ২১ জুলাই- আমার জন্ম জামালপুর জেলার এক অজপাড়াগাঁয়ে। ১৪ কিলোমিটার দূরের শহরে যেতে হতো পায়ে হেঁটে বা সাইকেলে চড়ে। পুরো গ্রামের মধ্যে একমাত্র মেট্রিক পাস ছিলেন আমার চাচা মফিজউদ্দিন। আমার বাবা একজন অতি দরিদ্র ভূমিহীন কৃষক। আমরা পাঁচ ভাই, তিন বোন। কোনরকমে খেয়ে না খেয়ে দিন কাটতো আমাদের। আমার দাদার আর্থিক অবস্থা ছিলো মোটামুটি। কিন্তু তিনি আমার বাবাকে তাঁর বাড়িতে ঠাঁই দেননি।…

হুমায়ূন আহমেদ: বাংলার মার্কেটিং গুরু

হুমায়ূন আহমেদ: বাংলার মার্কেটিং গুরু
আমরা হাইস্কুলে পড়াকালে একটা কার্টুন খুব আলোচিত হয়। সেটার বিষয়বস্তু ছিল— এক ব্যক্তি চার হাত-পা দিয়ে উপন্যাস লিখছেন; পাশে ছড়িয়ে ছিটিয়ে আছে বেশকিছু ব্ল্যাংক চেক! ইন্টারনেট ও স্যাটেলাইট চ্যানেলপূর্ব সে যুগে সংবাদপত্রগুলোর ঈদসংখ্যা খুব সমৃদ্ধ কলেবরে বের হতো। সেগুলোর প্রত্যেকটিতে আবার কয়েকটা করে পূর্ণাঙ্গ…

স্বচ্ছ মননের হাওয়া

স্বচ্ছ মননের হাওয়া
প্রদ্যুম্ন ভট্টাচার্যের (১৯৩২-২০১৬) কথা ভাবতে গেলেই কপিল ভট্টাচার্যের (১৯০৪-৮৯) কথা মনে না-পড়ে যায় না। এমন তো নয় যে, পিতার সূত্রেই পুত্রের পরিচয়টা বড় হয়ে আমাদের সামনে দাঁড়ায়, কিংবা, পুত্রের সূত্রে পিতার পরিচয়টা বড় হয়ে ওঠে। না, তা নয়। বরং, বলা যায় যে, পিতা-পুত্র দুজনেই নিজের নিজের মতো করে যার-যার কাজের ওপরে দাঁড়িয়ে…

গ্রামের টান

গ্রামের টান
আমার ছোটবেলাটা কেটেছে একটা আদ্যিকেলে খামারবাড়ির পাশে। জার্মানির এক অমত্ম্যজ শহরের একটা কলেজের অধ্যক্ষ ছিলেন আমার বাবা। জায়গাটা পাহাড়-জঙ্গলে ঘেরা, হাড়-কাঁপানো ঠান্ডা বাতাসের জন্যে বিখ্যাত। সেই শহর থেকে পাঁচ কিলোমিটার দূরে একটা গ্রামের ধারে বাসা নিলাম আমরা। আমাদের ঠিক পাশের বাড়িটা ছিল ট্রাপ পরিবারের।…

সমীকরণঃ প্রেক্ষিত ‘দেশে-বিদেশে’র সেই কথক মীজান 

সমীকরণঃ প্রেক্ষিত ‘দেশে-বিদেশে’র সেই কথক মীজান 
আমি নবীন যৌবনে যখন পাড়ি জমাই সোভিয়েত রাশিয়ায় উচ্চশিক্ষার উদ্দেশ্যে,সেই সময়টা তখন বিরান মরুভূমির মত মনে হয়নি।মনে হয়নি শিকড় বিচ্ছিন্ন এই আমি ছিটকে পড়েছি আমার বসুমাতার ক্রোড় থেকে দুরে,যোজন দুরে।সেখানে বিশ্ববিদ্যালয়ের চত্বরে নিজেকে মনে হত রাজাধিরাজ।রাশিয়ার পতনের প্রাক্কালে চলে আসি কানাডার মন্ট্রিয়লে…

আমার লেখালেখি

আমার লেখালেখি
বাড়ির সবাই আমাকে চাঁদ বলে ডাকত। মা রেখেছিলেন নামটা। আমার জন্মের আগে মা নাকি স্বপ্ন দেখেছিলেন, জানালা দিয়ে তাঁর পেটে ঢুকে যাচ্ছে চাঁদ। তো, ওই চাঁদ নামটাই আমার পারিবারিক ডাকনাম। সবাই তা-ই ডাকত। আর ভালো নাম শওকত আলী। এই যে চাঁদ থেকে আমি শওকত আলী হয়ে উঠলাম, লেখক হয়ে উঠলাম—মাঝেমধ্যে ভাবি, লেখক হলাম কেন? লেখক…

নভেরাকে আমরা জীবন্ত কবর দিয়েছি

নভেরাকে আমরা জীবন্ত কবর দিয়েছি
নভেরাকে আমরা আক্ষরিক অর্থে আবর্জনার স্তূপে নিক্ষেপ করেছি। এই প্রথম বাক্যের কাজটার কারণ উদ্ধার করতে হলে প্রায় ৩৮ বছর পেছনে ফিরে যেতে হয়। আমরা তখন নবীন যুবা। আমরা তখন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কলা ভবনে। আর কী চাই! আমরা প্রাচ্যের অক্সফোর্ডখ্যাত এ দেশের সবচেয়ে নামি বিশ্ববিদ্যালয়ের সম্মান শ্রেণির ছাত্র। তরুণ…

মহারাজা তোমারে সেলাম, পেলাম কি?

মহারাজা তোমারে সেলাম, পেলাম কি?
সোশ্যাল মিডিয়ায় লাখো জন্মদিনের উইশ কি দেখতেন সত্যজিৎ রায়? যদি এই ৯৪ বছর বয়সে সশরীরে তিনি থাকতেন! অনুমান করা যায়, দেখতেন৷ হয়তো মন দিয়েই দেখতেন৷ সময়ের নাড়ি হয়তো ছেড়ে দিতেন না৷ কিন্তু এ তো পুরোপুরি কাল্পনিক প্রসঙ্গ৷ বরং ভাবনাটা উল্টোদিক থেকে ভাবলে কেমন হয়? অর্থাৎ, যে বিপুল সংখ্যক মানুষ…

মীজান চাচা

মীজান চাচা
২০০৭ সালের নভেম্বরে ডঃ মীজান রহমানের সাথে আমার প্রথম দেখা। জেলহত্যা দিবস উদযাপন উপলক্ষে তাজউদ্দীন আহমদ ফাউন্ডেশনের আমন্ত্রনে  মন্ট্রিয়লে আগমন এবং সেখানেই পরিচয় ছোটখাট অবয়বের এই বিশাল মাপের মানুষটির সাথে। তাঁর বিশালত্ব এখানেই  যে তিনি তাঁর বুদ্ধিবৃত্তির চর্চায় সদা নিমগ্ন থেকেছেন সত্য ও সুন্দরকে…

লেখক মীজান রহমানের খোঁজে

লেখক মীজান রহমানের খোঁজে
আজ থেকে প্রায় ৩০/৩৫ বছর আগে কানাডার টরন্টো থেকে প্রকাশিত সাপ্তাহিক ‘দেশেবিদেশে’ (সম্পাদক নজরুল মিন্টো) পত্রিকাটি আমার কাছে আসতো। মধ্যবর্তী পাতায় একটি রচনা আমাকে খুবই মুগ্ধ করতো, এর লেখার ভঙ্গিটি বিষয়বস্তু স্পষ্টতা, দৃষ্টিভঙ্গী ও নির্ভীকতায় আমি একটি নতুন অনুভূতি পেতাম প্রতি সপ্তাহে। লেখক মীজান রহমান।…

 1 2 > 
Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে