Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

সুবর্ণা মুস্তাফার আবৃত্তিতে জীবনানন্দের কবিতা

সুবর্ণা মুস্তাফার আবৃত্তিতে জীবনানন্দের… ঢাকা, ২২ অক্টোবর- বাংলার প্রকৃতির কবি বলে খ্যাত জীবনানন্দ দাশের ৬২তম মৃত্যুবার্ষিকী আজ। ১৯৫৪ সালের ২২ অক্টোবর তিনি পরলোক গমন করেন। কবির প্রয়াণ দিবস উপলক্ষে বাংলাদেশ টেলিভিশনে (বিটিভি) আয়োজন করা হয়েছে ‘আবার আসিব ফিরে’।  এই অনুষ্ঠানে রূপসী বাংলার কবি জীবনানন্দ দাশের লেখা ‘কুড়ি বছর পরে’ কবিতাটি আবৃত্তি করবেন নন্দিত অভিনেত্রী সুবর্ণা মুস্তাফা। তার সঙ্গে আরো আবৃত্তি করবেন জয়ন্ত চট্টোপাধ্যায়, লায়লা আফরোজ, তাহসিন রেজাসহ কয়েকজন আবৃত্তিকার।  জানা গেছে, অনুষ্ঠানটি প্রচারিত হবে আজ শনিবার (২২ অক্টোবর) রাত ১০টার ইংরেজি সংবাদের পর। অনুষ্ঠানটি প্রযোজনা করেছেন ঈমাম হোসাইন। আবৃত্তির পাশাপাশি অনুষ্ঠানে কবিকে নিয়ে থাকবে আলোচনা পর্ব। সেখানে অংশ নেবেন কবি রুবী রহমান, কামাল চৌধুরী, ফয়জুল লতিফ চৌধুরী, সাজ্জাদ শরিফ, শাহাদুজ্জামান, শামীম রেজা প্রমুখ।  পাশাপাশি কবির দুটি কবিতা থেকে গান গেয়ে শোনাবেন সাদি মহম্মদ ও তিমির নন্দী। অনুষ্ঠানে ‘বনলতা সেন’ কবিতার চিত্রায়ণ ও ‘আমি যদি হতাম’ কবিতার নৃত্যরূপ পরিবেশিত হবে। সেই সঙ্গে থাকছে দুটি দুর্লভ তথ্যচিত্র। আর/১৭:১৪/২২ অক্টোবর

ফকির ইলিয়াস এর পাঁচটি কবিতা

ফকির ইলিয়াস এর পাঁচটি কবিতা
নিঝুম স্নানাভ্যাস   ভিজতে ভিজতেই বদলে ফেলি নিঝুম স্নানাভ্যাস। ঝুমকোলতা দিয়ে ঘেরা কুঠিরের আড়ালে দাঁড়িয়ে আবার দেখে নিই তোমার মুখের লালিমা। সূর্য হারিয়েছে তার ছায়া প্রাণের প্রত্যুষে।জানি তারও আগে একটা দোয়েল উড়ে গিয়েছিল তোমার ঘ্রাণ ছুঁয়ে।   আমি স্পর্শতন্ত্রে বিশ্বাস করি। ধরি হাত,নদীর -নিসর্গের - নারীর আবীর রাঙা রাতের মোহনায় ভেসে যেতে যেতে বদলে ফেলি চোখ ও চাহনীর দক্ষতা। আবার দেখবো…

পাঠোন্মোচন

পাঠোন্মোচন
আমার একটা সাদামাটা স্বপ্ন আছে খুব সাধারন স্বপ্ন আছে একদিন আমি  তোমার কাছে নগ্ন হবো। না না, কোন বাৎসায়নের নগ্নতা নয় আদিমতম মগ্নতা নয় তুমি কেবল আমার দেহের প্রতি ইঞ্চি ভূমি দেখো চুল থেকে নখ অবধি উপন্যাসের প্রতি পাতা যত্ন করে পড়া শেখো আমার নগ্ন শরীর খুঁড়ে দুঃখ কষ্ট অভিমানের বুনন দেখো কোথাও তার নোঙড় তুলে পৌঁছে যেও মনের তলে মনের তলে লুকিয়ে রাখা গল্পগুলো বলে যাবো অবলীলায় যেদিন তুমি দৃষ্টি…

পেয়ালা নিংড়ানো হেমলক

পেয়ালা নিংড়ানো হেমলক
একদিন আমিও ছিলাম  বর্ষবরণ মিছিলের অগ্রভাগে, থাকতাম বসে রমনার বটমূলে,  চোরাপথে কাঁটাবন যেতাম, খাঁচায় বন্দি পাখিগুলোকে  মুক্ত করার স্বপ্ন দেখতাম। চারুকলায় উঁকি মেরে চলে -যেতাম শাহবাগে ফুলের গন্ধে তোমায় পেতাম। একগোছা বেলীফুলের মালায় ভালোবাসা মেখে তোমার  খোঁপায় পড়িয়ে দিতাম। কারনে অকারনে টিএসসিতে -দাঁড়িয়ে…

আরশি

আরশি
তোমার যে ছায়া তুমি দিলে আরশিরে হাসিমুখ মেজে, সেইক্ষণে অবিকল সেই ছায়াটিরে ফিরে দিল সে যে। রাখিল না কিছু আর, স্ফটিক সে নির্বিকার আকাশের মতো-- সেথা আসে শশী রবি, যায় চলে, তার ছবি কোথা হয় গত। একদিন শুধু মোরে ছায়া দিয়ে, শেষে সমাপিলে খেলা আত্মভোলা বসন্তের উন্মত্ত নিমেষে শুক্ল সন্ধ্যাবেলা। সে ছায়া খেলারই ছলে…

বন্ধু কি ভাবছ

বন্ধু কি ভাবছ
কি ভাবছ বন্ধু ! ভাবনার আকাশে ক্রমশ প্রলয় মেঘে ঢাকছে অদেখা ভবিষ্যত তাড়িয়ে নিয়ে যাচ্ছে অন্ধকার খাদের কিনারে স্বপ্নের পাতারা হলুদ হতে হতে বোঁটা আলগা হবার অপেক্ষায় প্রথম ওড়ানো ঘুঁড়িটা অনেকটা সুতো নিয়ে ভোকাট্টা, দৃষ্টির ওপারে।। চারপাশের সব্বাই ঘুমাতে গেছে অনেকক্ষণ, তোমার রাত নির্ঘুম তোমার সকালে সু-প্রভাত…

ঝরে পড়া মহুয়া ফুল

ঝরে পড়া মহুয়া ফুল
একলা ভীষণ কল্পনাতে ধুসর সময় দুমরে কাঁদে রাত পোহালে মরা নদীর খেয়া পাড়ে ছায়া-ভীরু সূর্যটিকে কেন যে আজ আবছা লাগে , ধুসর সময় অন্ধকারে দুমড়ে কাঁদে আগের মতই । শুধু আমার চোখেই রাত্রি নামায় তোমার অবুঝ উর্বশী চোখ, শুধু আমার মনেই বিষণ্ণতা-নির্জনতা হায় তোমার ওই খুনি হৃদয় এক পলকেই নিঃস্ব করে এক পলকেই হারায় ভিড়ে । সাক্ষী…

ঘুমিয়ে আছে প্রিয়া অনুলতা

ঘুমিয়ে আছে প্রিয়া অনুলতা
রত্নদীপ জ্বালি অনুলতা,তোমার শিয়রে,উড়ছে গুচ্ছ কেশরাশি, পূজার ফুল দুটি নিবিড় ঘুমে,পালঙ্কেতে,স্বপ্নেরা বান,মশি। লালাটে তোমার রূপ থৈ থৈ করে,ঘুমঘোরে তুমি অচেতন, মনাকাশ কোণে জাগরণ নিশিভোর,শুকতারা সচেতন । অধরে বইছে, শিরিশিরি ঝিরিঝিরি,দখিনা পবন, শিশির শুকিয়ে মাঠ,কোমলতার অভাব নিশ্চল প্রাণ মন । লাবণ্যে ভরা তোমার…

হৃদয়ে প্রেমের দিন

হৃদয়ে প্রেমের দিন
হৃদয়ে প্রেমের দিন কখন যে শেষ হয় — চিতা শুধু পড়ে থাকে তার, আমরা জানি না তাহা; — মনে হয় জীবনে যা আছে আজো তাই শালিধান রূপশালি ধান তাহা… রূপ, প্রেম… এই ভাবি… খোসার মতন নষ্ট ম্লান একদিন তাহাদের অসারতা ধরা পড়ে, — যখন সবুজ অন্ধকার, নরম রাত্রির দেশ নদীর জলের গন্ধ কোন এক নবীনাগতার মুখখানা নিয়ে আসে — মনে…

ফিরে আসি আমি

ফিরে আসি আমি
নিজেকে ছড়িয়ে ফেলেছিলাম আমি অজান্তে এত ডালপালা ছড়িয়ে গেছে চারপাশে যে শেকড় পারছে না আর রসদ যোগাতে ঠিক মতো তাই বিবর্ণ পত্র-রাজি বুঝিয়ে দিচ্ছে তাদের অসম্পূর্ণতা । চিন্তার জালও কি মহা-বিস্তারে শীর্ণ পলকা সুতো ? দৃঢ় রজ্জুর মতো সুস্থ-চিন্তার বাঁধন আছে তো মনকে ঘিরে? মনে হচ্ছে চেনা গণ্ডিটা পেড়িয়ে অনেকটা অচেনা ভুল…

নীল

নীল
নীল রং দেখলেই কেঁপে উঠি হৃদপিণ্ড থেকে ছেড়ে যাওয়া রক্ত কণিকাগুলো ধমনিতে ধমনিতে ধাক্কা খায়। সাগর জলে নীল আকাশের প্রতিচ্ছবি আমাকে হাহাকার রাজ্যে নিয়ে যায। আমাকে দ্রুত ফিরে আসতে হয় সাগরের কাছ থেকে, নীলের কাছ থেকে। আবারো হন্যে হয়ে নীল খুঁজি... রেস্তোরা থেকে রাজপথ, সুন্দরবন থেকে সংসদ কূয়াকাটা থেকে কাঁটাবন, পতিতালয়…

অগ্ন্যুৎসব

অগ্ন্যুৎসব
ছিল তা এক অগ্ন্যুৎসব, সেদিন আমি সবটুকু বুক রেখেছিলাম স্বয়ংক্রিয় আগ্নেয়াস্ত্রে জীবন বাজি ধরেছিলাম প্রেমের নামে রক্ত ঋণে স্বদেশ হলো, তোমার দিকে চোখ ছিলো না জন্মভূমি সেদিন তোমার সতীন ছিলো। আজকে আবার জীবন আমার ভিন্ন স্বপ্নে অংকুরিত অগ্ন্যুৎসবে তোমাকে চায় শুধুই তোমায়। রঙিন শাড়ির হলুদ পাড়ে ঋতুর প্লাবন নষ্ট…

 1 2 3 >  শেষ ›
Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে