Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 2.3/5 (3 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print
আপডেট : ০৪-০৩-২০১৭

স্বাধীনতা দিবসে বইমেলা, পিঠা উৎসব ও মুক্তির গান

বাকিউল্লাহ খান


স্বাধীনতা দিবসে বইমেলা, পিঠা উৎসব ও মুক্তির গান

জুরিখ, ০৩ এপ্রিল- বাংলাদেশের মহান স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে সুইজারল্যান্ডের জুরিখের বাংলা স্কুলের এবারের কর্মসূচিতে ছিল বইমেলা, পিঠা উৎসব, বিদেশিদের নিয়ে ছবি প্রজেকশন ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। জুরিখের লিমাটপ্লাজের স্কুল মিলনায়তনের নিচতলায় ১১৪ নম্বর লিমাটস্ট্রিটের ফয়ার হল জুড়ে ছিল হরেক রকমের পিঠা ও বইয়ের মেলা। গির্জার হলে বাংলাদেশ ও মুক্তিযুদ্ধের ওপর ঘণ্টাব্যাপী ছবি প্রদর্শনী এবং হানস বেডার হলে মুক্তির গান শিরোনামের সংগীতানুষ্ঠান।

ডিজিটাল যুগের ইলেকট্রনিকস ইকুইপমেন্টের অতিরিক্ত নেতিবাচক ব্যবহার বিশেষ করে গেমস আমাদের নতুন প্রজন্মকে বই থেকে দুরে সরিয়ে রাখছে। এ সমস্যা সমাধানে প্রত্যেকের হাতে বই দিয়ে বই পড়ার অভ্যাস গঠনের লক্ষ্যে সবাইকে এগিয়ে আসার তাগিদ দেওয়ার প্রয়োজনীয়তার ওপর গুরুত্বারোপ করে প্রথমবারের মতো এই মেলার আয়োজন করে বাংলা স্কুল। এই বইমেলায় জার্মান ভাষায় আমাদের বাংলা সাহিত্যের কয়েকটি উল্লেখ্যযোগ্য বই অনুবাদ করার আগ্রহ প্রকাশ করেছে স্থানীয় একটি প্রকাশনী সংস্থা।

একদিনের জন্য হলেও পিঠা খাও আর বই পড় এমন শিরোনামের এই উৎসবে উপস্থিত ছোট বড় দেশি বিদেশি সবার উৎসাহ ছিল বেশ আশাব্যঞ্জক।

পাশেই হানস বেডার হলে মুক্তির গান শিরোনামের সংগীতানুষ্ঠান সঞ্চালনায় ছিলেন মনিরুল ইসলাম। সংগীত পরিবেশন করেন জার্মানপ্রবাসী সংগীত শিল্পী প্রকৌশলী মিনহাজ দীপন ও রোকনসহ এবং স্থানীয় শিল্পীরা। তবলায় ছিলেন আরেক জার্মানপ্রবাসী বাংলাদেশি প্রকৌশলী চিরঞ্জিত চাকি টিটু।

যথারীতি স্কুলের সহযোগী সংগঠন শ্রী ‍চিন্ময় সেন্টারের ভিনদেশি বন্ধুরা পরিবেশন করেন জাতীয় সংগীত ও দেশের গান। স্কুলের শিশুরাও এই পরিবেশনায় অংশ নেয়।

পিঠা উৎসব শুরু হওয়ার আগে গির্জার হলে মেইন স্টিমের শতাধিক অংশগ্রহণকারীদের নিয়ে বাংলাদেশ ও মুক্তিযুদ্ধের ওপর ঘণ্টাব্যাপী ছবি প্রদর্শন এবং সেমিনারের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে আলোচক ছিলেন হেক্স প্রজেক্ট কর্মকর্তা মাথিয়াজ হাউপ্ট। তিনি তার বক্তব্যে মুক্তিযুদ্ধের সময় পাকিস্তান সেনাবাহিনী কর্তৃক সংগঠিত গণহত্যার বিষয়টিও আলোচনায় নিয়ে আসেন।

স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে আয়োজিত এই সব কটি অনুষ্ঠানেই উপস্থিত ছিলেন সুইজারল্যান্ডে বাংলাদেশ দূতাবাস ও স্থায়ী মিশনের প্রথম সচিব মোহাম্মাদ হোসেন সরকার। তিনি প্রবাসে দেশের ভাবমূর্তি বিকাশের লক্ষ্যে প্রবাসী বাংলাদেশিদের সবাইকে একসঙ্গে কাজ করার আহ্বান জানান। তিনি প্রবাসীদের সকল সমস্যায় পাশে থাকবার অঙ্গীকার ব্যক্ত করেন।

জুরিখপ্রবাসী বাংলাদেশিদের দীর্ঘদিনের দাবি জুরিখে কনসাল সেবা প্রদান চালু প্রসঙ্গে তিনি বলেন, রাষ্ট্রদূত বিষয়টি অবগত আছেন এবং দ্রুতই জুরিখে অস্থায়ী মিশনের কাজ শুরু হবে। জুরিখে কনসাল সেবা প্রদানের দাবির সঙ্গে তিনি পুরোপুরি একমত প্রকাশ করেন।

প্রবাসে বাংলা ভাষা এবং সংস্কৃতি বিকাশের লক্ষ্যে আয়োজিত এই উৎসবে বরাবরের মতো এবারেও দেশি বিদেশিদের অংশগ্রহণ ছিল লক্ষণীয়।

অন্যান্য

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে