Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 3.0/5 (10 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print
আপডেট : ০৩-০৩-২০১৭

সৌদিতে দুর্ঘটনায় দুই বাংলাদেশির মৃত্যু

সৌদিতে দুর্ঘটনায় দুই বাংলাদেশির মৃত্যু

রিয়াদ, ০৩ মার্চ- ওদের স্বপ্ন ভেঙে চুরমার। সুদূর প্রবাসে গিয়েছিল অনেক স্বপ্ন নিয়ে। আর ওদের দিকে তাকিয়ে ছিল আরো কতক চোখ। সবই এক দমকা হাওয়ায় চুরমার। সৌদি আরবের হাইল প্রদেশে সড়ক দুর্ঘটনায় দুই বাংলাদেশি নিহতের খবরে তাদের পরিবারে চলছে শোকের মাতম। বুধবার রাত ৩টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলেন লক্ষ্মীপুর জেলার রায়পুরের আবুল খায়ের ও নোয়াখালীর সোনাইমুড়ী উপজেলার দুলাল হোসেন। আবুল খায়ের চাকরির জন্য সৌদি আরবে পৌঁছেই দুর্ঘটনায় পড়ে।

পরিবারের অভাব-অনটন দূর করতে নিজ এলাকার স-মিলের কাজ ছেড়ে শ্বশুর ও পিতার সহযোগিতায় সৌদি আরব যান লক্ষ্মীপুরের রায়পুরের দরিদ্র শ্রমিক আবুল খায়ের (৩৩)। কিন্তু  সৌদি আরবের শ্বশুরের বাসায় যাওয়ার আগেই সড়ক দুর্ঘটনায় কেড়ে নিলো তার সব স্বপ্ন। বুধবার রাতে আবুল খায়ের মারা গেলেও স্থানীয় সাংবাদিকদের মাধ্যমে বৃহস্পতিবার দুপুরে তার মৃত্যুর সংবাদ জানার পরই  পরিবার ও এলাকাবাসীর মাঝে নেমে আসে শোকের ছায়া।

নিহত আবুল খায়ের সৌদি আরব বিমানবন্দর থেকে ট্যাক্সিযোগে বাসায় যাওয়ার পথে বুধবার রাত ৩ টায় মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনায় মারা যান। এ সময় আবুল খায়েরকে বিমানবন্দর থেকে নিতে আসা তার শ্বশুর মুনছুর আহমদ (৫২)  আহত হয়েছেন।

নিহত আবুল খায়ের লক্ষ্মীপুরের রায়পুর উপজেলার ৩নং চরমোহনা ইউনিয়নের দক্ষিণ রায়পুর গ্রামের হাওলাদার বাড়ির আবদুুল কাদেরের ছেলে ও আবুল কাশেম মাস্টারের ছোটভাই।
আবুল খায়েরের বড়ভাই আবুল কাশেম জানান, দীর্ঘদিন ধরে সংসারে অভাব-অনটন লেগেই থাকতো আবুল খায়েরের পরিবারে। অভাবের সংসারে সচ্ছলতা ফিরিয়ে আনতে ’স মিলের কাজ ছেড়ে শ্বশুর ও পিতার দেয়া ৪ লাখ ৫০ হাজার টাকা ঋণ করে (ফ্রি ভিসায়-শ্রমিকের কাজে) সৌদি আবর যান। তার সংসারে পিতা, মাতা, ১০ ভাই-বোন, স্ত্রী ও রাহা নামে ৪ বছরের এক কন্যাসন্তান রয়েছে।

নিহত আবুল খায়েরের স্ত্রী ফাতেমা আক্তার রুপা বলেন, অভাবের সংসারে সচ্ছলতা ফিরিয়ে আনতে বাবার সহযোগিতায় তাকে বিদেশে পাঠিয়েছিলাম। কিন্তু ভাগ্যে তা হলো না। আমার অবুঝ মেয়েকে এখন কে দেখবে? আমি আমার স্বামীর লাশ সৌদি আরব থেকে ফিরিয়ে আনতে সরকারের সহযোগিতা চাই।  

রায়পুর উপজেলার ৩নং চরমোহনা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সফিকুর রহমান পাঠান বলেন, আবুল খায়ের কর্মঠ ও ভালো মানুষ ছিলো। তার লাশ দ্রুত  দেশে ফিরিয়ে আনতে ও ক্ষতিপূরণ পেতে সরকারের সহযোগিতা কামনা করছি।

অন্যদিকে নিহত নোয়াখালীর সোনাইমুড়ী উপজেলার দুলাল হোসেনের বাড়িতেও চলছে মাতম।

আর/১২:১৪/০৩ মার্চ

সৌদি আরব

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে