Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print

আপডেট : ০৯-১২-২০১৬

এটা অগ্নিকাণ্ড নয়, হত‌্যাকাণ্ড: সেলিম

এটা অগ্নিকাণ্ড নয়, হত‌্যাকাণ্ড: সেলিম
টঙ্গী বিসিক শিল্প নগরীর প্যাকেজিং কারখানায় বিস্ফোরণের পর অগ্নিকাণ্ড ও ভবন ধ্বসের ঘটনায় দোষী ব্যক্তিদের বিচার দাবিতে রোববার জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে গার্মেন্ট শ্রমিক ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্রের সমাবেশ

ঢাকা, ১২ সেপ্টেম্বর- টঙ্গীর কারখানায় অনিরাপদ পরিবেশ রেখে শ্রমিকদের মৃত‌্যুর মুখে ঠেলে দেওয়া হয়েছে অভিযোগ তুলে এজন‌্য দায়ীদের শাস্তি দিতে সরকারের প্রতি দাবি জানিয়েছেন সিপিবি সভাপতি মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম।

প‌্যাকেজিং কারখানা ট‌্যাম্পাকোয় বয়লার বিস্ফোরণের পর অগ্নিকাণ্ডে ২৫ জন নিহতের ঘটনা নিয়ে রোববার রাজধানীর জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে গার্মেন্ট শ্রমিক ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্রের এক প্রতিবাদ সমাবেশে এই দাবি জানান তিনি।

টঙ্গীর বিসিক শিল্প নগরীতে বিএনপির সাবেক সংসদ সদস‌্য সৈয়দ মকবুল হোসেনের ওই কারখানায় শনিবার বয়লার বিস্ফোরিত হয়ে আগুন ধরে ভবনের প্রায় পুরো কাঠামো ধসে পড়ে।  

সেলিম বলেন, “টঙ্গীর প্যাকেজিং কারখানায় বয়লার বিস্ফোরণ কোনো দুর্ঘটনা না। যেনেশুনে কারখানায় দুর্ঘটনার পরিস্থিতি তৈরি করে রাখা হয়েছিল, কারখানায় যথাযথ নিরাপত্তার ব্যবস্থা রাখা হয়নি। এটা একটা সুপরিকল্পিত হত্যাকাণ্ড।

“আইনে আছে একজন লোককে হত্যা করলে একবার ফাঁসি হয়। তাহলে আপনারাই বলুন, ২৬ জন লোককে হত্যা করলে কয় বার ফাঁসি হয়?” এজন‌্য কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদপ্তরের গাফিলতিকে দায়ী করে সংশ্লিষ্টদের গ্রেপ্তার করে বিচারের মুখোমুখি করার দাবি জানান এই বাম নেতা।

এর আগে আশুলিয়ায় তাজরীন ফ‌্যাশনসে অগ্নিকাণ্ডে শতাধিক এবং সাভারের রানা প্লাজা ধসে সহস্রাধিক শ্রমিকের মৃত‌্যুর ঘটনায় অবহেলাজনিত হত‌্যার অভিযোগে মামলা হয়েছিল।  

সমাবেশে বক্তব‌্যে সিপিবির উপদেষ্টা পরিষদের সদস‌্য মনজুরুল আহসান খান টঙ্গীর ঘটনাটিকেও ‘অবহেলাজনিত হত্যাকাণ্ড’ বলে দাবি করেন।

“এই অবহেলা যারা করেছে, তাদের বিচার করতে হবে। নিহত শ্রমিকদের পরিবারকে যথাযথ ক্ষতিপূরণ এবং আহত শ্রমিকদের চিকিৎসার ব্যবস্থা ও যারা বেকার হল, তাদের চাকরির ব্যবস্থা করতে হবে।”

গার্মেন্ট শ্রমিক ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্রের সভাপতি মন্টু ঘোষ কারখানা মালিককে গ্রেপ্তারের দাবি জানানোর পাশাপাশি নিহতদের সারা জীবনের আয়ের সমপরিমাণ ক্ষতিপূরণ দেওয়ার আহ্বান জানান।

একই স্থানে সমাবেশে সমাজতান্ত্রিক শ্রমিক ফ্রন্টের নেতারা ট‌্যাম্পাকো কারখানায় ২৫ জনের মৃত‌্যুর জন‌্য ‘শ্রম আইন উপেক্ষা ও অনিরাপদ কর্মক্ষেত্রকে’ দায়ী করেন।

সমাবেশে বাসদ নেতা রাজেকুজ্জামান রতন বলেন, “মালিকদের গাফিলতির কারণে গত এক বছরে শতাধিক শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে। শ্রম আইন না মানা ও অনিরাপদ কর্মক্ষেত্রের কারণে শ্রমিকদের মৃত্যুর মিছিল থামছে না।”

শ্রমিক ফ্রন্টের সভাপতি আব্দুর রাজ্জাক বলেন, “দুর্ঘটনার জন্য দায় মালিকদের শাস্তি না হওয়া, নিহতদের প্রত্যেকের জন্য আজীবন আয়ের সমান ক্ষতিপূরণ না থাকায় মালিকরা অনায়াসে পার পেয়ে যাচ্ছে।”

বয়লারসহ কারখানাগুলোর ঝুঁকিপূর্ণ যন্ত্রপাতি রক্ষণাবেক্ষণ এবং নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে মালিক ও সরকারের অবহেলাই শ্রমিকদের মৃত‌্যুর ঝুঁকিতে ঠেলে দিচ্ছে বলে অভিযোগ করেন তিনি।

শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু রোববার টঙ্গীর কারখানাটি পরিদর্শনের পর সাংবাদিকদের বলেন, অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় কারও গাফিলতি থেকে থাকলে তাদের শাস্তি হবে।

এফ/১৫:৪৫/১২ সেপ্টেম্বর

জাতীয়

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে