Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print
আপডেট : ০৮-৩১-২০১৬

যে ১০ সুপারহিট বলিউড সিনেমা আসলে দক্ষিণ ছবির রিমেক

Shamima Seema


যে ১০ সুপারহিট বলিউড সিনেমা আসলে দক্ষিণ ছবির রিমেক

আপনি যদি ধরে নিয়ে থাকেন বলিউড শুধু হলিউডের সিনেমাই নকল করে থাকে, তাহলে আপনি ভুল ভাবছেন। যখন কোন নির্মাতা সিনেমা বানানোর কথা ভাবেন, সেই সঙ্গে সংস্কৃতি, সমাজ, ধর্ম নিয়েও ভাবতে হয় তাদের। তাই সব সময় হলিউডের ইংলিশ সিনেমার অনুবাদ বানালেই চলে না। গতানুগতিক কাহিনী কিংবা তাদের সংস্কৃতির কাছাকাছি থাকার জন্য তারা তাদের পাশের সিনেমা ইন্ডাস্ট্রি তামিল সিনেমা থেকে অনুপ্রেরণা (!) নিয়ে থাকেন।

বলিউডের একাধিক সফল সিনেমা আসলে তামিল ইন্ডাস্ট্রি থেকে গল্প ধার করে বানানো। বেশিরভাগ সময় দেখা যায়, তামিল সিনেমার বলিউড রিমেক সিনেমায় শুধু মাত্র অভিনিয়শিল্পীরা ছাড়া লোকেশন, কাহিনী ও গানের দৃশ্যায়ন একই হয়ে থাকে। সিনেমাগুলো শুধু ব্যবসা সফলই হয় না, ব্যাপক জনপ্রিয়তা পায় দর্শক মহলে। তেমন ১০টি বলিউড সিনেমা নিয়ে আমাদের আজকের প্রতিবেদন, যা আসলে দক্ষিণ সিনেমারই রিমেক।


আনজানা আনজানি
২০১০ সালে বলিউডে মুক্তি পায় ছবিটি। এতে প্রধান চরিত্রে অভিনয় করেন রণবীর কাপুর ও প্রিয়াঙ্কা চোপড়া। অনেকেই জানেন না, সিদ্ধার্থ আনন্দ পরিচালিত ছবিটি আসলে দক্ষিনের তেলেগু সিনেমার নকল। টলিউড সুপারস্টার রবি তেজার ‘ইটলু স্রাভানি সুব্রমানিয়াম’ ছবি থেকে মেয়া হয়েছে ‘আনজানা আনজানি’ ছবির কাহিনী। দক্ষিনে ছবিটি বেশ সাড়া ফেললেও বলিউডে ছবিটি অ্যাভারেজ হিটের তালিকায় স্থান পায়।


রেহনা হ্যায় তেরে দিল মে
২০০১ সালের সিনেমাটিতে অভিনয় করে তাক লাগিয়ে দেন দুজন নতুন মুখের নায়ক নায়িকা। আর মাধবন ও দিয়া মির্জার প্রথম বলিউড সিনেমা ছিল এটি। এটিও তামিল ছবির হিন্দি সংস্করণ। তামিল ছবি ‘মিনালে’ ছবিটি থেকে কাহিনী নেয়া রোমান্টিক ছবিটিতেও অভিনয় করেছিলেন মাধবন। বলিউড ও তামিল দুই ক্ষেত্রেই বেশ জনপ্রিয়তা পায় ছবি দুটি।


নায়ক
২০০১ সালের আরেক সুপারহিট বলিউড সিনেমা ‘নায়ক’। এতে মুখ্য ভূমিকায় ছিলেন অনিল কাপুর। সঙ্গে ছিলেন রানি মুখার্জী। দক্ষিনি অভিনেতা অর্জুন সারজা অভিনীত ‘মুধালভান’ ছবির হিন্দি সংস্করণ হচ্ছে ‘নায়ক’। যদিও দুটি ছবির নির্মাতা একজনই। এস শঙ্কর পরিচালনা করেন দুটি ছবিই। দুই ভাষাতেই সমান ব্যবসা সফল ও জনপ্রিয়তা পায় ছবিগুলো।


নো এন্ট্রি
বলিউডের একাধিক অভিনেতা অভিনেত্রীদের নিয়ে ২০০৫ সালে নির্মিত হয় কমেডি ধারার সিনেমা ‘নো এন্ট্রি’। অনেকেই হয়ত জানেন না, ছবিটি তামিল ছবি ‘চার্লি চ্যাপলিন’ ছবি থেকে কপি করা। দক্ষিণ ইন্ডাস্ট্রিতে সেখানকার বহু তারকাকে নিয়ে ২০০২ সালে ছবিটি নির্মিত হয়।


ভুল ভুলাইয়া
১৯৯৩ সালে দক্ষিনে মুক্তি পায় মালায়ালাম সিনেমা ‘মানিচিত্রাথাজু’ ছবিটি। এটি মুক্তির প্রায় ১৫ বছর পর ছবিটির হিন্দি সংস্করণ ‘ভুল ভুলাইয়া’ নির্মিত হয়। অক্ষয় কুমার, বিদ্যা বালান, শাইনি আহুজা, পরেশ রাওয়াল অভিনীত কমেডি হরর থ্রিলার ঘরানার ছবিটি বলিউডে ২০০৭ সালে মুক্তি পায়।


বিল্লু
বলিউডে শাহরুখ খান ও ইরফান খান অভিনীত ‘বিল্লু’ ছবিটি মুক্তি পায় ২০০৯ সালে। তবে পাঠক জানেন কি, ২০০৮ সালে একই কাহিনীর সিনেমা নির্মিত হয় তামিল ইন্ডাস্ট্রিতে। বলিউডের সিনেমায় যে চরিত্রে শাহরুখ খান অভিনয় করেছিলেন, তামিল ছবিতে একই চরিত্রে ছিলেন সুপারস্টার রজনীকান্ত। ছবির নাম ‘কাথানায়াকুডু’।


বিবি নাম্বার ওয়ান
কমেডি সিনেমার জনপ্রিয় নির্মাতা ডেভিড ধাওয়ান পরিচালিত ‘বিবি নাম্বার ওয়ান’ ছবিটি বলিউডে মুক্তি পায় ১৯৯৯ সালে। অনেকেই জানেন না, সালমান খান, কারিশমা কাপুর, অনিল কাপুর অভিনীত ছবিটি আসলে দক্ষিনের সিনেমার রিমেক। ‘সাথী লীলাবতী’ শিরোনামের ছবিটি তামিল ইন্ডাস্ট্রিতে মুক্তি পায় ১৯৯৫ সালে। বলিউডের ছবিতে যে চরিত্রে সালমান অভিনয় করেছিলেন, সেই চরিত্রে তামিল সিনেমায় অভিনয় করেন কমল হাসান।


হেরা ফেরি
বলিউডের ২০০০ সালের জনপ্রিয় সুপারহিট সিনেমা ‘হেরা ফেরি’। অক্ষয় কুমার, সুনীল শেঠি, পরেশ রাওয়াল অভিনীত ছবিটির মালায়ালাম সংস্করণ ছবিটির নাম ‘রামজি রাও স্পিকিং’। ১৯৮৯ সালে মুক্তি পায় ছবিটি।


ফোর্স
২০১১ সালে বলিউডে মুক্তি পায় অ্যাকশন ঘরানার ছবি ‘ফোর্স’। জন আব্রাহাম ও জেনেলিয়া ডিসুজা অভিনীত ছবিটি বেশ জনপ্রিয়তা পায়, সেই সঙ্গে ব্যবসাসফল সিনেমার তকমা পায়। যে কারণে ছবিটি সিক্যুয়াল নির্মিত হচ্ছে। অনেকের একথা অজানা, ছবিটি দক্ষিণ সিনেমার রিমেক। ‘কাখা কাখা’ শিরোনামের তামিল ছবিটি মুক্তি পায় ২০০৩ সালে।


সাথিয়া
যশ রাজ ফিল্মেসের ব্যানারে ২০০২ সালে বলিউডে মুক্তি পায় ‘সাথিয়া’। রানি মুখার্জী ও বিবেক ওবেরয় অভিনীত ছবিটি বক্স অফিসে দারুণ ব্যবসা করে। ছবিটি আসলে তামিল ছবি ‘আলাইপায়ুথে’ ছবির রিমেক। তামিল ইন্ডাস্ট্রির ছবিটি মনি রত্নম পরিচালনা করলেও বলিউডের হিন্দি ছবিটি পরিচালনা করেন সাদ আলি। দুটি ছবির গানের মিউজিক করেন বিখ্যাত সুরকার এ আর রহমান। বলা যায়, শুধু ভাষা ও নায়ক নায়িকা পাল্টে একই কাহিনীর সিনেমা ‘সাথিয়া’।

এফ/২৩:৪০/৩১ আগষ্ট

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে