Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print
আপডেট : ০৮-২৭-২০১৬

যেভাবে প্রাচীন মিশর এখনো প্রভাবিত করে চলেছে আমাদের

সাদিয়া ইসলাম বৃষ্টি


যেভাবে প্রাচীন মিশর এখনো প্রভাবিত করে চলেছে আমাদের

প্রচীন মিশর তার শরীরের প্রাচীন গন্ধ ধুয়ে আর সব দেশের সাথে পায়ে পা মিলিয়ে এগিয়ে চলেছে সামনের দিকে। কিন্তু তবু আজ অব্দি সেই ফেলে আসা মিশরীয় নানা ব্যাপার আমাদের জীবনকে প্রভাবিত করে চলেছে বিভিন্নভাবে। জানতে চান প্রাচীন মিশরের দ্বারা প্রভাবিত আমাদের জীবনের সেই দিকগুলোকে? চলুন দেখে আসি।

১. স্থাপনাশিল্প ও সময়
বর্তমান সময়ের যতসব স্থাপনা সেসবের প্রত্যেকটার দিকে তাকালে কোন না কোনভাবে মিশরীয় সেই অদ্ভূত সব কারুকার্য আর স্থাপনা পদ্ধতির ছোঁয়া দেখা যাবে। আর এগুলোকে যদি পাশ কাটিয়ে আরেকটু সামনে আগানো যায় তাহলে বলতে গেলে আমাদের বর্তমান জীবনের খুব প্রয়োজনীয় কিছু মৌলিক বিষকে ঘিরে রয়েছে মিশরীয়দের অবদান। এই যেমন- বর্তমান সময়ের পদ্ধতি বা দিন, মাস, বছরের হিসেব, এর পেছনে রয়েছে মিশরীয়রাই।

২. কৃষিকাজ, বিয়ার ও কাগজ
হেরোডোটাসের লেখায় পাওয়া যায় যে, মিশরে ওয়াইন না থাকায় মিশরীয়রা বার্লি থেকে এক ধরণের পানীয় তৈরি করতো। যেটা কিনা বর্তমানে বিয়ার নামে পরিচিত। এছাড়াও কৃষিকাজে বেশ পটু ছিল তারা। বর্তসানে কৃষিকাজে যে সেচ পদ্ধতি ব্যবহৃত হয় তার পেছনেও মিশরীয়দের অবদান কম নয়। আর বর্তমানে আমরা যে কাগজ ব্যবহার করি তার শুরুটা যে ছিল মিশরীয়দের তৈরি প্যাপিরাস থেকে সেটা তো আমাদের সবারই জানা।

৩. গণিত
কোনরকম জ্ঞান সংক্রান্ত বিষযে নয়, নিজেদের দৈনন্দিন কাজগুলোকে সহজ করে নিতেই নানারকম মাপ, জ্যামিতি, আধুনিক গণিতবিদ্যায় প্রবেশ করে মিশরীয়রা। সেচকাজ ও পিরামিডের কারণেই এমনটা করেছে তারা বলে মনে করেন অনেকে। তবে কারণ যেটাই হোক, তাদের এই কাজ এখনো অব্দি সাহায্য করে চলেছে মানুষকে।

৪. চিকিত্সা
চিকিত্সা সংক্রান্ত ব্যাপারে মিশরীয়রা মনে করতো যে, মানুষের শরীরের একেকটি অংশের জন্যে আলাদা পুরোহিত থাকা আবশ্যক। কারণ মানুষের শরীরের একেকটি অংশের জন্যে আলাদা দেবতা আছেন। তাই পুরোহিতও আলাদা থাকা দরকার। এই যেমন এখন আমরা প্রতিটি অঙ্গের জন্যে আলাদা চিকিত্সকের কাছে যাই, সেটার শুরুটা হয়েছিল মিশরে। এছাড়াও মিশরীয় চিকিত্সকেরা টিউমর, সিস্টসহ নানারকম চিকিত্সাপদ্ধতি আবিষ্কার করেন যেগুলো কিনা এখনো ব্যবহার করে আসছে বর্তমান পৃথিবীর মানুষেরা।

৫. মাইনিং
খ্রিষ্টপূর্ব ৪,০০০-৫,০০০ অব্দে প্রথম স্বর্ণ ও তামার খনি খোঁড়ার কাজে সাহায্য হবে ভেবে মাইনিংয়ের প্রবর্তন করে মিশরীয়রা। আর তাদের হাত ধরেই পৃথিবী প্রথম মাইনিং বিষটির সাথে পরিচিত হয়। প্যাপিরাসের পাতায় প্রাচীন মিশরীয়দের লেখা দেখে যতদূর বোঝা যায় যে মাইনিংয়ের ক্ষেত্রে অনেকটা উন্নতি করেছিল তারা।

আর/১০:১৪/২৭ আগষ্ট

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে