Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 3.4/5 (7 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print
আপডেট : ০৮-২৭-২০১৬

নজরদারি এড়াতে জঙ্গিবাদে সম্পৃক্ত করা হচ্ছে নারীদের

নজরদারি এড়াতে জঙ্গিবাদে সম্পৃক্ত করা হচ্ছে নারীদের

ঢাকা, ২৭ আগষ্ট- জঙ্গিবাদের নতুন মাত্রা যুক্ত হয়েছে নারীদের জঙ্গি ও সন্ত্রাসবাদের সম্পৃক্ততার ঘটনায়। হামলার পরিকল্পনা ও যোগাযোগে জেএমবি সদস্যদের চলাফেরা কঠিন হয়ে পড়ায় ব্যবহার করা হচ্ছে নারী জঙ্গিদের। গোয়েন্দা ও পুলিশী নজরদারি এড়িয়ে প্রাথমিক তথ্য সংগ্রহ, তথ্যের আদান-প্রদান, আস্তানা পরিচালনা, অস্ত্র সংরক্ষণ ও লুকানোর কাজগুলো নারী জঙ্গিরা করছে। 

মূলত: জেএমবি’র পরিকল্পনায় নারীরা জঙ্গিবাদে জড়াচ্ছে বলে গোয়েন্দা তদন্তে উঠে এসেছে। গুলশান, শোলাকিয়া হামলা ও কল্যাণপুরে বড় ধরনের হোঁচট খাওয়ার পর দেশীয় জঙ্গিরা নিরাপত্তার বেড়াজাল ভাঙতে নারীদের ব্যবহারের দিকে ঝুঁকে পড়েছে বলে ধারণা গোয়েন্দা ও বিশ্লেষকদের।

গুলশান ও শোলাকিয়ায় জঙ্গি হামলার পর তদন্তে উঠে আসে নারী জঙ্গিদের বিষয়। ওই সময়ই সিরাজগঞ্জে জঙ্গি সম্পৃক্ততার অভিযোগে গ্রেফতার হয় ৪ নারী। পুলিশ জানায় তারা জেএমবি সদস্য।

সে ঘোর কাটতে না কাটতেই জঙ্গি সম্পৃক্ততার অভিযোগে ঢাকা থেকে আরও চার তরুণী আটক হয়। এদের তিনজন মানারাত বিশ্ববিদ্যালয়ের ফার্মাসি বিভাগের ছাত্রী ও একজন ঢাকা মেডিকেল কলেজের ইন্টার্নি ডাক্তার।

গোয়েন্দা পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, নারী জঙ্গিবাদেও বিত্তশালী পরিবারের সদস্যদের সম্পৃক্ততা মিলছে। জঙ্গিবাদে সম্পৃক্ত নারীদের বয়স ২০ থেকে ৩০। কেউ ইতিমধ্যে সন্তানের মা হয়েও জঙ্গিত্বের পথ বেছে নিয়েছে। নিখোঁজ জঙ্গি স্বামীর স্ত্রীও জঙ্গি সংগঠনে যোগ দেয়ার তথ্যও রয়েছে।

অন্যদিকে গত ২৩ ও ২৪ জুলাই রাজধানীর ইডেন কলেজ থেকে ছাত্রী সংস্থার পাঁচজনকে গ্রেফতার করেছিল গোয়েন্দা পুলিশ। এরপর তদন্তে তাদের বিরুদ্ধে জঙ্গি সম্পৃক্ততার কথা জানায় পুলিশ।

এরপর চলতি মাসেই রাজধানীর মেরুল বাড্ডায় মৃত্যুদণ্ড কার্যকর হওয়া যুদ্ধাপরাধী ও জামায়াত নেতা মতিউর রহমান নিজামীর স্ত্রী শামসুন্নাহার নিজামীর পরিচালনাধীন ইসলামিক ইন্টারন্যাশনাল স্কুলে অভিযান চালিয়ে ২৩ জনকে আটক করেছে পুলিশ। এদের মধ্যেও পাঁচজন নারী।

ওই ঘটনায় দায়ের করা মামলার তদন্ত শুরু করে কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিট। এরপর তদন্ত প্রতিবেদনে জানানো হয়, `কোমলমতি ছাত্রী ও সরলমনা ধর্মভীরু মহিলাদের জিহাদে অংশগ্রহণসহ প্রচলিত সংবিধানের বাইরে সমাজ প্রতিষ্ঠা করা এবং দেশে অস্থিতিশীল পরিস্থিতি সৃষ্টির হীন লক্ষ্যে তাদের (নারী) জিহাদি মনোভাবাপন্ন করে তৈরি করে মাঠে নামানো।` এই উদ্দেশ্যকে প্রচার করা হচ্ছে।

কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিটের এক কর্মকর্তা নাম প্রকাশ না করে বলেন, তিন কারণে নারীরা জঙ্গিবাদে জড়িয়ে পড়ছে। সেসব কারণ ধরেই অভিযান ও তদন্ত কাজ এগিয়ে নেয়া হচ্ছে।

তিনি বলেন, জঙ্গিদের ভেঙে পড়া মনোবল পুনরুদ্ধার করতে একটি `সার্থক` হামলা জঙ্গিরা অপরিহার্য মনে করছে। কিন্তু তা বাস্তবায়নের ক্ষেত্রে গোয়েন্দা ও পুলিশী নজরদারি প্রধান বাধা। নজরদারি এড়াতে নারী জঙ্গিদের তৎপরতা হঠাৎ বেড়ে গেছে বলে মনে করেন তিনি।

ইসলামী দাওয়া নামে মাহফিলের আড়ালেও জঙ্গি মতাদর্শের দীক্ষার প্রচার করা হচ্ছে। বিত্তশালী পরিবারের মাতা ও কন্যাদের মাধ্যমে আয়োজন করা হচ্ছে এ `মাহফিল`। সেখানে জঙ্গিবাদী দর্শন ছড়ানো নিরাপদ মনে করছে জঙ্গিরা।

তিন কৌশলে নারীদের উদ্বুদ্ধ করা হচ্ছে জঙ্গিবাদে
যারা জঙ্গি রিক্রুট করে তাদের প্রাথমিক কাজই হচ্ছে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তি কিংবা নারীকে পর্যবেক্ষণ করা। প্রথমে তারা ধর্মভীরু নারীদের কাছে যান। এরপরই আস্তে আস্তে জঙ্গি কাজে সম্পৃক্ত করার চেষ্টা করা হয় নারীদের। পারিবারিকভাবে জঙ্গিদের স্ত্রী, সন্তানদেরও জঙ্গি হওয়ার প্রবণতা লক্ষ্যণীয়।

কাউন্টার টেররিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম ইউনিটের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার মোহাম্মদ ছানোয়ার হোসেন বলেন, নানা কৌশলেই মাস্টার মাইন্ডরা জঙ্গি রিক্রুটিংয়ের কাজ করছে। জঙ্গি কাজে তিনভাবে নারীর সম্পৃক্ততার বিষয়টি তারা জানতে পেরেছেন। একটি হলো আগে থেকেই জঙ্গি পরিবারের সদস্য নারী জঙ্গি হয়।
 
দ্বিতীয় ক্ষেত্রে স্বামী হঠাৎ জঙ্গি হলে স্ত্রীও স্বামীর সঙ্গে অংশ গ্রহণ করল বা করল না। আরেকটি হচ্ছে জঙ্গি পরিবারের কোনও ছেলের সঙ্গে কোনও নারীকে বিয়ে দেওয়া। এই কৌশলে নারীদের জঙ্গি কার্যক্রমে জড়ানো হচ্ছে।

ছানোয়ার হোসেন আরও বলেন, জঙ্গি রিক্রুটমেন্ট প্রক্রিয়া বিষয়টি ব্যাপকতা পায় নি। তবে এটি বিচ্ছিন্ন কিছু নয়। আন্তর্জাতিকভাবে বিভিন্ন বিদ্রোহী গ্রুপ থেকে শুরু করে যারাই সমাজচ্যুত বা বিপ্লবী হয়, সেক্ষেত্রে তাদের পরিবারের সদস্যদের অংশ নিতে দেখা যায়। এখনই এর শিকার উপড়ে ফেলতে হবে বলেও মনে করেন তিনি।

চার নারী জঙ্গিকে গ্রেফতারের পর র‌্যাব-৪ এর অধিনায়ক খন্দকার লুৎফুল কবির বলেন, জঙ্গি সম্পৃক্ততার অভিযোগে তারা কয়েকজন নারীকে গ্রেফতার করেছেন। অনেককেই বর্তমান প্রেক্ষাপটে নতুন ধারায় জঙ্গিবাদে উৎসাহ দেয়া হচ্ছে। এমন আরও ১০ নারীর সন্ধান মিলেছে। যা যাচাই বাছাই করা হচ্ছে।

এফ/২০:১০/০১আগষ্ট

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে