Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 2.6/5 (7 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print
আপডেট : ০৮-১৯-২০১৬

অবশেষে সুপারকার প্রকাশ্যে আনলেন সুপারস্টার রোনালদো

অবশেষে সুপারকার প্রকাশ্যে আনলেন সুপারস্টার রোনালদো

ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোর পায়ের অপ্রতিরোধ্য গতি সম্পর্কে তো সবারই জানা! যেন সেই গতির সঙ্গে তাল মেলাতেই রাস্তায় বৈধভাবে চলমান গাড়িগুলোর মধ্যে সবচেয়ে দ্রুতগতির গাড়িটিকেও কিনে নিলেন সিআর সেভেন। ইউরো জয়ের পরপরই গাড়িটি কিনেন রিয়াল মাদ্রিদের পর্তুগীজ সুপারস্টার।

তবে ভক্ত-অনুরাগীদের সামনে আনলেন বৃহস্পতিবার। এদিন সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম ইন্সটাগ্রামে কোটি কোটি ভক্তদের এক ঝলক দেখার সুযোগ করে দেন তিনি। বুগাটি বেরন নামের বিলাসবহুল এই কারটিকে ‘অ্যানিমেল’ বলে উল্লেখ করেছেন পর্তুগিজ অধিনায়ক। যার বাজার মূল্য ১.৭ মিলিয়ন পাউন্ড।


গাড়িতে রিয়ালের পর্তুগিজ সুপারস্টার।

মাঠে সেরা পারফরম্যান্সের পাশাপাশি ব্যক্তিগত জীবনেও সেরাটা ধরে রাখতে চান রোনালদো। বিভিন্ন ফ্যাশনের পাশাপাশি ব্যক্তিগত চলাফেরার জন্য তার গাড়িতেও দেখা যায় সেরা অভিজাত্যের ছাপ। বর্তমানে সিআর সেভেনের গাড়ির সংখ্যা ১৯। যা মাদ্রিদের উপ-শহরে তার কোটি মিলিয়ন পাউন্ডের বিনিময়ে কেনা বিলাসবহুল বাড়ির গ্যারেজে রেখেছেন। তবে তার আগের সব গাড়ির আকর্ষণকেই যেন ম্লান করে দেয় বুগাটি বেরন!

বেরনের ১৬.৪ গ্র্যান্ড স্পোটর্স বিটেসে ভার্সনের এই গাড়ি ঘন্টায় ৪১০ কি.মি গতিতে ছুটতে পারে। বিলাসবহুল এই গাড়িটির ০-১০০ কি.মি. গতি উঠতে সময় লাগে মাত্র ২.৬ সেকেন্ড! সিআর সেভেন তাহলে কিভাবে নিয়ন্ত্রণ করেন তার গতি? যেন তা জানানোর জন্যই ইন্সটাগ্রামে একটি ভিডিও পোস্ট করেন রোনালদো। 

গেল মৌসুমে রিয়াল মাদ্রিদকে ইউরোপিয়ান ফুটবলের শ্রেষ্ঠত্বের মুকুট পড়াতে সামনে থেকেই নেতৃত্ব দেন রোনালদো। এরপর পর্তুগালকে ২০১৬ ইউরো জেতাতেও তার ভূমিকা ছিল প্রশংসনীয়। কিন্তু দুর্ভাগ্য তার। ফাইনালের প্রথম ২৫ মিনিটের পরই যে চোট পেয়ে মাঠ ছাড়তে হয় তাকে।


ইউরোর ফাইনালে চোঁট পেয়ে মাঠ ছাড়েন রোনালদো।

তবে সেই চোঁট কাটিয়ে উঠতে রোনালদোকে নাকি সহায়তা করেছে দ্রুতগতির গাড়ি বুগাটি বেরন!

দেশকে ইউরোর শিরোপা উপহার দেওয়ার পরই ছুটিতে মিয়ামিতে চলে যান রোনালদো। সেখানকার সময়টা দারুণ উপভোগ করেছেন সিআর সেভেন। তবে এই সময়ের মধ্যে বির্তকও তার পাশাপাশি হেটে চলেছে। যদিওবা এসবে কান দিতে নারাজ বর্তমান বিশ্ব ফুটবলের এই সুপারস্টার।

মিয়ামিতে পায়ের-বন্ধনী ছাড়াই হাটতে দেখা গেছে সিআর সেভেনকে। 

আগামী রোববার লা লিগার মিশন শুরু করবে রিয়াল মাদ্রিদ। প্রথম ম্যাচে খেলতে পারবেন কী না তা নিয়ে এখনও সংশয় রয়েছে রোনালদোর। না খেলার সম্ভাবনাই বেশি তার। কেননা দুইদিন আগে সান্তিয়াগো বার্নাব্যু ট্রফিতে যে খেলতে পারেননি তিনি। সিআর সেভেনের হাটুর সেই চোট তাকে মাঠের বাইরে রাখায় রিয়াল মাদ্রিদের ভরসা এখন গ্যারেথ বেল।

আর/১০:১৪/১৯ আগষ্ট

ফুটবল

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে