Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 1.5/5 (2 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print
আপডেট : ০৮-১৮-২০১৬

স্কিনে বন্দি হয়ে যাচ্ছে মানুষ

স্কিনে বন্দি হয়ে যাচ্ছে মানুষ

আড্ডা, আড্ডা আর আড্ডা। ঘড়ির কাটার দিকে তাকানোর সুযোগ নেই। খাওয়া-দাওয়ার কথাও মনে থাকে না। বয়সের ব্যবধানেও নেই কোন বাধা। সম্পূর্ণ উন্মুক্ত আলোচনা। যে যার মতো স্ট্যাটাস দিয়ে যাচ্ছে। ভালো লাগা খারাপ লাগা গুলো শেয়ার করে নিচ্ছে একে অপরের সাথে। কারো সাথে নেই কোন রক্তের সম্পর্ক। তাতে কী? সবাই যে মানুষ। ধর্মও এখানে কোন বাধা নেই। প্রতিনিয়ত নির্মাণ করছেন তাদের নিজেদের আনন্দ, বেদনা ও হতাশার গল্প। এরই নাম সোশ্যাল মিডিয়া।

নিজের অসুস্থ্যতা থেকে শুরু করে পরিবার, বন্ধ-বান্ধব, আত্মীয়স্বজন, পাড়া-প্রতিবেশি, দেশ-বিদেশী সকলের খবরাখবর জানা যায় মুহূর্তের মধ্যেই। রাজনৈতিক, সামাজিক, পারিবারিক এমনকি ঘটে যাওয়া সমাজের অসঙ্গতিপূর্ণ যত ঘটনা আছে সবই চলে আসে এখানে।

এই ধরুন, রামপালে বিদ্যুৎ প্রকল্পের কথা। রামপালে বিদ্যুৎ প্রকল্পের বিরুদ্ধে নানা যুক্তি, তথ্য-উপাত্ত ফেসবুকের ওয়ালে হাজির করছেন সবাই। একটা পক্ষ বলছেন, রামপালে বিদ্যুৎ কেন্দ্রে সুন্দরবনের কোনো ক্ষতি হবে না। বরং দেশের উন্নয়নের জন্য প্রয়োজন বিদ্যুৎ। আর অন্য পক্ষ বলছে সুন্দরবন ধ্বংসের জন্যই এ প্রকল্প।

বাংলাদেশের ইতিহাসে একটি প্রধানতম ঘটনা গণজাগরণ মঞ্চ। সিলেটে শিশু রাজনের খুনিদের গ্রেপ্তার আর দ্রুত বিচারেও প্রধান ভূমিকা রাখে এই সোশ্যাল মিডিয়াই।

রাজনকে নির্যাতনের ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়লে ফুঁসে উঠে জনতা। সোহাগী জাহান তনু হত্যার বিচারের দাবিও সর্বপ্রথম উচ্চকিত হয় ফেসবুক দুনিয়ায়। সম্প্রতি গুলশান হামলার হোতাদের চিহ্নিত করতেও ফেসবুক গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছে। হামলাকারীদের ছবি দেখে দ্রুতই তাদের চিহ্নিত করেছেন ফেসবুক দুনিয়ার বাসিন্দারা। আরব বসন্তের পেছনেও প্রধান ভূমিকা রাখে সোশ্যাল মিডিয়া।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছেলে সজীব ওয়াজেদ জয় ফেসবুকে সরব। প্রায়ই নানা গুরুত্বপূর্ণ ইস্যুতে নিজের মতামত দেন তিনি। আওয়ামী লীগ-বিএনপির অনেক কেন্দ্রীয় নেতারই ফেসবুক একাউন্ট রয়েছে। মন্ত্রিসভার সদস্যদের মধ্যে ওবায়দুল কাদের, শাহরিয়ার আলম, জুনায়েদ আহমেদ পলককে সবচেয়ে সরব দেখা যায় ফেসবুকে। বিভিন্ন সমস্যার সমাধানে তারা ফেসবুককে ব্যবহার করে থাকেন।

তবে এর কিছু বিরূপ প্রতিক্রিয়া আছে।সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রায়ই নানামুখী হয়রানির শিকার হয় নারীরা। সাম্প্রতিক সময়ে সোশ্যাল মিডিয়াকে ব্যবহার করছে সন্ত্রাসবাদীরা। জঙ্গিরা তাদের বক্তব্য প্রচারের জন্য ব্যবহার করছে সোশ্যাল মিডিয়াকে। সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে সংগ্রহ করছে সদস্য। এক্ষেত্রে অবশ্য বেশি ব্যবহৃত হয় টুইটার।

ফেসবুক দুনিয়ার মানুষের হাত বাঁধা নেই, তাদের চোখ খোলা। তারা যা কিছু দেখেন তাই লিখতে পারেন। নিজেদের মতামত প্রকাশ করতে পারেন অনেকটা নিঃসংকোচে। মূলধারার মিডিয়া কোনো খবর চাপা দিতে চাইলেও চাপের মুখে পড়ে সোশ্যাল মিডিয়ার কাছ থেকে। সোশ্যাল মিডিয়ার চাপে অনেক চাপা পড়া সংবাদও প্রকাশ করতে বাধ্য হয় মিডিয়া।

আর/১২:১৪/১৮ আগষ্ট

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে