Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 3.0/5 (5 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print
আপডেট : ০৮-১৬-২০১৬

কোনও নারীর দিকে ১৪ সেকেন্ড তাকালেই শাস্তি?

কোনও নারীর দিকে ১৪ সেকেন্ড তাকালেই শাস্তি?
ঋষি রাজ সিং

তিরুবনন্তপুরম, ১৬ আগষ্ট- ভারতের এক পুলিশ কর্মকর্তা বলেছেন, কোনও নারীর দিকে যদি কোনও পুরুষ ১৪ সেকেন্ড তাকিয়ে থাকেন, তাহলেই পুলিশের কাছে অভিযোগ করা যাবে। এটা দণ্ডনীয় অপরাধ।

কেরালা রাজ্যের আবগারি কমিশনার, ইন্ডিয়ান পুলিশ সার্ভিসের অফিসার ঋষি রাজ সিংয়ের এই মন্তব্যের সময় সেখানে উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের ক্রীড়ামন্ত্রী ই পি জয়রাজনও। পরে মন্ত্রী সবার সামনেই জানান, এ রকম কোনও আইন নেই। মস্তিষ্কপ্রসূত এক আইনের ধারার কথা উল্লেখ করছেন ওই পুলিশ কর্মকর্তা!

আইনজীবীরাও বলছেন, এ রকম কোনও আইনের ধারা ভারতে নেই, যাতে শুধু কোনও নারীর দিকে তাকিয়ে থাকলেই শাস্তিযোগ্য অপরাধ বলে গণ্য হবে। ভারতের স্বাধীনতা দিবসের আগে কোচি শহরে ছাত্র-ছাত্রীদের সামনে ভাষণ দিতে গিয়ে ওই পুলিশ কর্মকর্তা এ মন্তব্য করেন।

মঙ্গলবার সংবাদমাধ্যমের পক্ষ থেকে ঋষি রাজ সিং-এর সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, আমি সেদিন যা বলেছিলাম, এখনও সেটাই বলবো। আর শুধু ১৪ সেকেন্ড কেন, তার কম সময়ের জন্যও যদি কোনও পুরুষ মানুষ কোনও নারীর দিকে তাকিয়ে থাকেন, যাতে ওই নারীর অস্বস্তি হতে পারে, তাহলেও সেটা শাস্তিযোগ্য অপরাধ। ধর্ষণ আর নারীদের প্রতি হয়রানি রুখতে ২০১৩ সালে ভারতীয় দণ্ডবিধিতে যে পরিবর্তনগুলো আনা হয়েছে, সে অনুযায়ী এজন্য জেলও হতে পারে"।

ভারতীয় দণ্ডবিধিতে ২০১৩ সালে ৩৫৪ সি এবং ৩৫৪ ডি বলে দুটি ধারা যুক্ত হয়েছে। এতে ভয়্যারিজম আর স্টকিং-কেও শাস্তিযোগ্য অপরাধ বলে গণ্য করা হয়েছে। এই ভয়্যারিজম আর স্টকিং –এর ব্যাখ্যা দিতে গিয়েই ঋষি রাজ সিং বলছেন, কোনও নারীর দিকে তাকানোটাই অপরাধ।

অথচ আইনে বলা হয়েছে কোনও নারীকে যদি কেউ লুকিয়ে লক্ষ্য করেন, অথবা ছবি তোলেন বা ছবি তুলে তৃতীয় ব্যক্তিকে দিয়ে দেন অথবা সরাসরি কিংবা বৈদ্যুতিক মাধ্যমে পিছু নেন, সেগুলো আইনের এই দুটি নতুন ধারায় শাস্তিযোগ্য অপরাধ। খুব স্পষ্ট করেই আইনে বলা রয়েছে যে, ঠিক কোন কোন কাজ এ দুটি ধারার অধীনে আসবে।

কেরালার ওই পুলিশ কর্মকর্তার ব্যাখ্যা যেমন অসার বলে মনে হয়েছে কেরল রাজ্যের মন্ত্রী ই পি জয়রাজনের, তেমনই এই ব্যাখ্যাকে হাস্যকর বলে মন্তব্য করছেন কলকাতা হাইকোর্টের সিনিয়র আইনজীবী ভারতী মুৎসুদ্দিও।

ভারতী মুৎসুদ্দি বলেন, ভয়্যারিজম আর স্টকিং-এর ব্যাপারটা যুক্ত হয়েছে ঠিকই। কিন্তু তাই বলে কোনও নারীর দিকে কোনও পুরুষ মানুষ তাকালেই সেটা অপরাধ হয় নাকি! তাও আবার ১৪ সেকেন্ড! এই সময়ের ব্যাপারটা উনি কোথায় পেলেন? আইনের এ রকম ভুল ব্যাখ্যা করলে তো আসল উদ্দেশ্যটাই নষ্ট হয়ে যাবে"।

সেদিনের ভাষণ মঞ্চে উপস্থিত মন্ত্রী জয়রাজন বলছেন, তার তো এ বিষয়ে মন্তব্য করারই কথা নয়। উনি তো শুল্ক দফতরের কর্মকর্তা। এই বিষয়টা আমি সংশ্লিষ্ট মন্ত্রীর নজরে আনব।

কেরালার ওই পুলিশ কর্মকর্তা অবশ্য এর আগেও বিতর্ক তৈরি করেছেন। কখনও মন্ত্রীকে স্যালুট করতে অস্বীকার করা অথবা সহকর্মীরা ঠিকমতো উর্দি না পড়ে আসায় তাদের ওপরে ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠার ঘটনাও ঘটিয়েছেন এই পুলিশ কর্মকর্তা। অবশ্য রাজনৈতিক নেতা হোন বা আইনভঙ্গকারী সাধারণ নাগরিক – ঋষি রাজ সিংয়ের হাতে পড়লে ছাড়া পাওয়া মুশকিল। কঠোর পুলিশ অফিসার বলে তার পরিচিতি আছে মানুষের মধ্যে। সূত্র: বিবিসি বাংলা।

এফ/২২:৪০/১৬আগষ্ট

দক্ষিণ এশিয়া

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে