Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print
আপডেট : ০৮-১১-২০১৬

গ্রেপ্তার-শোকজের রেকর্ড দুদকের

আরিফুল ইসলাম


গ্রেপ্তার-শোকজের রেকর্ড দুদকের

ঢাকা, ১১ আগষ্ট- গত ১৪ মার্চ ইকবাল মাহমুদ দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদকের)চেয়ারম্যান হিসেবে যোগদানের পর থেকে এ পর্যন্ত ৫ মাসে দুদকের জালে আটকা পড়েছেন বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তাসহ ২৪১ জন । একই সঙ্গে সংস্থাটিতে ১ হাজারেরও বেশী শোকজ দেওয়া হয়েছে। যা দুদকের ইতিহাসে অল্প সময়ে আটক ও শোকজের রেকর্ড। দুদক সূত্র এ তথ্য জানিয়েছে।

সূত্র জানায়, দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে দুদকের পরিচালক, উপ-পরিচালক ও সহকারী উপ-পরিচালকের নেতৃত্বে পরিচালিত অভিযানে আটক হয়েছেন তারা। দুদকের দেয়া তথ্য অনুযায়ী, গ্রেপ্তার অভিযান শুরু হয় গত ১৩ই মার্চ। ওইদিনই বেসিক ব্যাংকের ঋণ জালিয়াতির অভিযোগে রাজধানী থেকে ৫ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়। এছাড়া, অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে আটক করা হয় আরেকজনকে।

দুদক থেকে প্রাপ্ত পরিসংখ্যান বলছে, গত ৫ মাসের মধ্যে সর্বোচ্চ সংখ্যক গ্রেপ্তার হয় এপ্রিল মাসে। ওই মাসে দুদকের পরিচালিত অভিযানে ৮৬ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়। এছাড়া, মে মাসে ৭১ জন, জুন মাসে ৯ জন, জুলাই মাসে ২৯ জন এবং আগস্ট মাসে এ পর্যন্ত ৪১ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এর মধ্যে সোমবার পাবনা জেলা থেকে ১৯ পুলিশ সদস্যকে গ্রেপ্তার করা হয়। ভুয়া মুক্তিযোদ্ধা সনদে চাকরি নেয়ার অপরাধে ২০১৪ সালের ৬ই জানুয়ারি সিরাজগঞ্জ থানার একটি মামলার আসামি তারা।

এছাড়া, সম্প্রতি রাজধানীর মতিঝিল থেকে রূপসা সার্ভেয়াসের চিফ সার্ভেয়ার ও ম্যানেজিং পার্টনার মো. শাহজাহান আলীকে আটক করে দুদক।

গত ৫ মাসে আরো বেশকিছু অভিযোগে বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা ও বিভিন্ন জনপ্রতিনিধিকে গ্রেপ্তার করে সংস্থাটি। এরমধ্যে সরকারের খাস জমি দখলের অভিযোগে ১ জন, মালামাল আত্মসাতের অভিযোগে ১ জন, ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানের নামে বরাদ্দকৃত চাল ও ভিজিএফের খাদ্য আত্মসাতের অভিযোগে ৩ জন, সম্পত্তি আত্মসাতের অভিযোগে ৫ জন ও ঋণ জালিয়াতির অভিযোগে ৫ জনকে আটক করে দুদক।

গত ১৯শে জুলাই ঢাকার আগারগাঁওয়ের বিভাগীয় পাসপোর্ট অফিসের পরিচালক মুন্সী মুয়ীদ ইকরাম ও একই অফিসের উচ্চমান সহকারী সাইফুল ইসলামকে গ্রেপ্তার করে দুদক। ওইদিনই এই দুই কর্মকর্তাসহ রাজধানীর শেরেবাংলা নগর থানায় সরকারি কর্মকর্তা নন এমন ব্যক্তিদের অফিসিয়াল পাসপোর্ট দেয়ার অপরাধে ২১ জনের বিরুদ্ধে মামলা করে দুদকের উপ-পরিচালক বেনজীর আহমেদ। মামলা করার পরই এই দুইজনকে আটক করা হয়।

দুদকের অনুসন্ধানে দেখা গেছে, মুন্সী মুয়ীদ ইকরামের একটি ব্যাংক অ্যাকাউন্টে ২০১৫ সালের জানুয়ারি থেকে এপ্রিল পর্যন্ত চার মাসে ৪২ লাখ টাকা জমা হয়েছে। মামলার এজাহারে বলা হয়েছে, ১৮ জনের নামে পাসপোর্ট তৈরি করে বিদেশে যাওয়ার প্রমাণ পাওয়া গেছে। আরো অনেককে এভাবে পাসপোর্ট দেয়ার তথ্য রয়েছে। প্রাথমিক অনুসন্ধানে মোট ৬৬ জনকে সরকারি পাসপোর্ট দেয়ার তথ্য পাওয়া গেছে।

এদিকে গত ১৫ মার্চ থেকেই শুরু হয় শোকজ কার্যক্রম। ওইদিন থেকে গত পাঁচ মাসে সংস্থাটিতে ১ হাজরেরও বেশী শোকজ দেওয়া হয়েছে। এরমধ্যে কোনো কোনো কর্মকর্তা-কর্মচারীকে একাধিক শোকজও দেওয়া হয়েছে।

জানা গেছে, দায়িত্বে অবহেলা, ঠিক সময়ে অফিসে হাজির না হওয়া, যথাসময়ে সভায় উপস্থিত না হওয়া, টেবিলে ফাইল ফেলে রাখা, অনুসন্ধান ও তদন্ত প্রতিবেদন নির্ধারিত সময়ে পেশ না করাসহ ইত্যাদি কারণে এসব শোকজ দেওয়া হয়।

আর/১৭:১৪/১১ আগষ্ট

জাতীয়

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে