Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 3.1/5 (30 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print
আপডেট : ০৭-৩১-২০১৬

বাউল আস্তানায় দূর্বত্তদের হামলা, মাথার চুল কর্তন

কামরুজ্জামান সেলিম


বাউল আস্তানায় দূর্বত্তদের হামলা, মাথার চুল কর্তন

চুয়াডাঙ্গা, ৩১ জুলাই- চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদায় বাউল আস্তানায় সশস্ত্র দূর্বত্তরা হামলা চালিয়ে অগ্নিসংযোগ, ভাংচুর, বাউল গুরুসহ দুই জনের মাথার চুল কেটে দিয়েছে। এসময় দুর্বত্তরা বাউল গুরুসহ চার জনকে পিটিয়ে গুরুতর আহত করে। গত শুক্রবার দিবাগত রাত ১২টার দিকে গোবিন্দপুর মোল্লাচারা মাঠ পাড়ায় গোবিন্দপুর ল্যাংটা বাবার দরবার শরীফের বাউল আস্তানায় এ ঘটনা ঘটে।

গতকাল বিকালে দামুড়হুদা থানায় একটি মামলা হয়েছে। এ ঘটনার পর থেকে গ্রাম জুড়ে বাউল অনুসারীদের মধ্যে আতঙ্ক বিরাজ করছে। জেলায় বাউল ও সাধুদের উপর দুর্বত্তদের হামলার ঘটনা ধারাবাহিক ভাবে অব্যাহত রয়েছে।

বাউল ও সাধুরা অভিযোগ করে বলছেন পুলিশ প্রশাসনের উদাসীনতার কারণে দূর্বত্তরা আমাদের উপর এমন হামলার ঘটনা অব্যাহত রেখেছে। আজ শনিবার সকালে চুয়াডাঙ্গা পুলিশ সুপার রশীদুল হাসান ও দামুড়হুদা থানার ওসি আবু জিহাদ ফকরুল আলম খান ঘটনাস্থল পরিদর্র্শন করেছেন।

দূর্বত্তদের হামলায় আহতরা হলেন-দামুড়হুদা উপজেলার কুড়ালগাছি ইউনিয়ানের পোতাবপুর গ্রামের খালপাড়ার মৃত খোয়াজ মন্ডলের ছেলে বাউল গুরু জুলমত আলি শাহ (৫২), তার স্ত্রী মোমেনা বেগম(৪১), নাতি ছেলে রাকিব হাসান(৯) ও চন্ডিপুর গ্রামের মালোপাড়ার মৃত রেনুপদ হালদারের ছেলে বাউল ভক্ত শ্রী হরেনদ্রনাথ গোসাই।

বাউল আশ্রমের বাউল গুরু ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, গত শুক্রবার দিবাগত রাতে দামুড়হুদা উপজেলার হাউলি ইউনিয়নের গোবিন্দপুর মোল্লাচারা মাঠ পাড়ায় গোবিন্দপুর ল্যাংটা বাবার দরবার শরীফের বাউল আস্তানায় ৮/১০ জনের সশস্ত্র অজ্ঞাত দূর্বত্ত প্রবেশ করে। দুর্বত্তরা বাউল আস্তানার সবাইকে ঘুমন্ত অবস্থায় ডেকে তুলে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে সোলার লাইনের সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে। এরপর বাউল আস্তানার বাউল গুরু জুলমত আলি শাহ, তার স্ত্রী মোমেনা বেগম ও বাউল ভক্ত শ্রী হরেনদ্রনাথ গোসাইকে দড়ি দিয়ে হাঁত-পা বেধে মারপিট করে গুরুতর আহত করে।

দূর্বত্তরা শ্রী হরেনদ্রনাথ গোসাই ও জুলমত আলি শাহের মাথার চুল সম্পূর্ণ কেটে দেয়। দূর্বত্তরা বাউল আস্তানার সকল জিনিসপত্র বাইরে বের করে বাউল আস্তানার ভেতরের দুটি ঘর ও একটি রান্না ঘরে পেট্রোল ঢেলে আগুন ধরিয়ে দিলে সম্পূর্ণ মালামাল ও দুটি ঘর ভূস্মীভূত হয়ে যায়। নগদ ১৭ হাজার টাকা, একটি সোলোর মেশিন, একটি বাইসাইকেলসহ প্রায় ৩ লাখ টাকার মালামাল আগুনে পুড়ে ছাই হয়ে যায়। পরে এলাকাবাসী খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌছানোর আগেই সব মালামাল পুড়ে ছাই হয়ে যায়।
গতকাল বিকালে দামুড়হুদা থানায় বাউল গুরু জুলমত আলী শাহ বাদী হয়ে অজ্ঞাত ৮/৯ জনকে আসামী করে একটি মামলা দায়ের করেছে।

জেলা বাউল সংঘের সভাপতি মনিরুজ্জামান ধীরু বাউল জানান, এটি দু:খ জনক ঘটনা। পুলিশের উদাসীনতার কারণে এমন ঘটনা ঘটছে বারবার। এ হামলার ঘটনায় পুলিশ দোষীদের গ্রেফতার করতে না পারলে বৃহত্তর আন্দোলন গড়ে তোলা হবে।
বাউল গুরুর স্ত্রী মোমেনা বেগম জানান, দূর্বত্তদের সবার হাতে ধারালো অস্ত্র ছিল। দড়ি দিয়ে আমাদের বেধে ফেলে। নাতি ছেলে আমার কাছে থাকায় বেশি নির্যাতন করেনি। আর স্বামী দড়ির বাধন খুলে মাঠে পালিয়ে প্রাণে রক্ষা পায়। এসময় পেট্রোল ঢেলে আস্তানা মালামাল আগুন দিয়ে পুড়িয়ে ছাই করে দেয়।

চুয়াডাঙ্গা পুলিশ সুপার রশীদুল হাসান জানান, বাউল ও সাধু আস্তানায় হামলার সাথে জড়িতদের শনাক্তের চেষ্টা চলছে। পুলিশের পক্ষ থেকে নিরাপত্তার ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে। পরবর্তীতে হামলার ঘটনা না ঘটে সে ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। তিনি আরোও জানান ঘটনার সাথে জড়িতদের গ্রেফতারে পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

উল্লেখ্য, গত ১৬ জুলাই রাতে চুয়াডাঙ্গার জীবননগরে উথলি একতারপুর গ্রামে সাধু আস্তানায় দূর্বত্তরা হামলা চালিয়ে তিন সাধু ভক্তকে কুপিয়ে ও পিটিয়ে জখম করে। আর গত বছরের শেষের দিকে সদর উপজেলার আলোকদিয়া ইউনিয়ানের আকন্দবাড়িয়া গ্রামে দূর্বত্তরা মাজারের এক খাদেমকে কুপিয়ে হত্যা করে।

চুয়াডাঙ্গা

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে