Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print
আপডেট : ০৭-৩০-২০১৬

ধর্মীয় জ্ঞানে দুর্বলদের টার্গেট করেছে মাস্টারমাইন্ডরা

ধর্মীয় জ্ঞানে দুর্বলদের টার্গেট করেছে মাস্টারমাইন্ডরা

ঢাকা, ৩০ জুলাই- বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের ধর্মীয় জ্ঞানে দুর্বল এমন শিক্ষার্থীদেরকে জঙ্গিবাদের মাস্টারমাইন্ডরা টার্গেট করেছে বলে মন্তব্য করেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য অধ্যাপক আখতারুজ্জামান। 

শনিবার (৩০ জুলাই) দুপুরে রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইন্সিটিটিউশন মিলনায়তনে আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা উপ-পরিষদের আয়োজনে “ইসলামের আলোকে জঙ্গি ও সন্ত্রাস মোকাবিলায় আমাদের করণীয়” শীর্ষক গোলটেবিল আলোচনায় এ মন্তব্য করেন তিনি।

অধ্যাপক আখতারুজ্জামান বলেন, ‘আগে জঙ্গিদের টার্গেট গ্রুপ ছিল মাদরাসার ছাত্র। কিন্তু এটা পরিবর্তন হয়ে এখন টার্গেট গ্রুপ হয়েছে ইংরেজি মাধ্যম ও বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্ররা। জঙ্গিদের মাস্টারমাইন্ড মাদরাসার ছাত্রদের উপর গবেষণা করে বেশি ফল পেতো। কারণ তাদের আরবি ও ইসলামী শিক্ষার উপর জ্ঞান থাকায় জঙ্গিদের বেশি ধারণ করে না। তাই মাস্টারমাইন্ডরা ধর্মীয় জ্ঞানে দুর্বল প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়কে টার্গেটে পরিণত করে।’ 

জঙ্গিবাদ বিরোধী কর্মকাণ্ডে হেফাজতের এগিয়ে আসার প্রতি ইঙ্গিত দিয়ে ঢাবি উপ-উপাচার্য বলেন, ‘আজকে যেসব আলেম এখানে উপস্থিত আছেন এর বাইরেও আরো বিশাল গোষ্ঠী আছে। যাদের আহ্বানে সাড়া দিয়ে রাজধানীতে গাছ কাটা, অগ্নিসংযোগ হয়েছে। তাদেরও এগিয়ে আসতে হবে। তাদের এই ইস্যুতে সোচ্চার হওয়া প্রয়োজন রয়েছে।’

তিনি আরো বলেন, ‘ইসলামে যে নিরাপরাধ মানুষকে হত্যা করা যায় না বিষয়টি আপনারা (হেফাজতে ইসলাম) আলোচনা করুন। কথা না বললে মানুষের সন্দেহের তীর আপনাদের দিকেই থাকবে। এর বিরুদ্ধে আপনাদের জোরালো বক্তব্য প্রয়োজন।’

এসব হামলার পিছনে রাজনৈতিক শক্তি জড়িত উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘আত্মঘাতি হামলার মাধ্যমে কি রাষ্ট্রীয় দর্শন পরিবর্তন করতে পারবেন? এর পিছনে অন্য শক্তি আছে। তা হল রাজনৈতিক শক্তি। রাজনৈতিক শক্তি ছাড়া রাষ্ট্র পরিচালনা করা যায় না।’

উপ-উপাচার্য বলেন, ‘চলন্ত বাসে পেট্রোল দিয়ে মানুষ মারা আর গুলশানের একটি ক্যাফেতে বিদেশি নাগরিকদের জিম্মি করে হত্যার মধ্যে মৌলিক কোনো তফাৎ নেই। তফাৎ শুধু কৌশল, লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য এক, তা হলো রাষ্ট্রক্ষমতা পরিবর্তন করা।’

প্রধানমন্ত্রীর রাজনৈতিক উপদেষ্টা এইচটি ইমামের সভাপতিত্বে আলোচনায় আরো অংশ নেন- আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক হাছান মাহমুদ, বাংলাদেশ তরিকত ফেড়ারেশনের চেয়ারম্যান নজিবুল বশর মাইজভান্ডারী, ইসলামী ঐক্যজোটের চেয়ারম্যান মেছবাহুর রহমান, শোলাকিয়া ঈদগাহের প্রধান ইমাম ফরিদউদ্দিন মাসউদ, ইসলামী আরবী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য আহসান উল্লাহ, ঢাকা আলিয়া মাদরাসার অধ্যক্ষ সিরাজ উদ্দিন আহমেদ ও আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য আমিনুল ইসলাম আমিন প্রমুখ।

আর/১০:১৪/৩০ জুলাই

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে