Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print
আপডেট : ০৭-৩০-২০১৬

বঙ্গবন্ধুকে খুনের সময়ে ডিএফআই প্রধান নিহত জঙ্গি অর্কের দাদা!

বঙ্গবন্ধুকে খুনের সময়ে ডিএফআই প্রধান নিহত জঙ্গি অর্কের দাদা!

ঢাকা, ৩০ জুলাই- কল্যাণপুরে নিহত জঙ্গি সেহজাদ রউফ অর্কের দাদা আব্দুর রউফ ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে সপরিবারের হত্যার ঘটনার সময়ে প্রতিরক্ষা গোয়েন্দা সংস্থা ডিএফআই (বর্তমান ডিজিএফআই) প্রধান ছিলেন।

ওই সময়ে কর্নেল জামিল আহমেদের (মরণোত্তর পদোন্নতি পাওয়া ব্রিগেডিয়ার জেনারেল) কাছে দায়িত্ব হস্তান্তরের কথা থাকলেও সময়মতো দায়িত্ব হস্তান্তর না করায় ইতিহাসের পাতায় বারবারই তার নাম ‘বিতর্কিত’ সেনাকর্মকর্তা হিসেবেই হাজির হয়েছে। পরবর্তীতে প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের সঙ্গে তার সখ্যতা ছিল। জিয়ার শাসনামলে ডিএফআইকে ডিজিএফআই করা হলে কে এম আমিনুল ইসলামকে পরিচালক পদে দেওয়া হয়। এর পরপরই অভিযোগ এনে তাকে সেখান থেকে সরানো হলে আব্দুর রউফ পরিচালকের দায়িত্ব পান।

রাজধানীর কল্যাণপুরে মঙ্গলবার ভোরে পরিচালিত অপারেশন স্টর্ম ২৬ –এ নিহত জঙ্গি সেহজাদ রউফ অর্কের বাবা তৌহিদ রউফও ছিলেন সেনাবাহিনীর ঠিকাদার। এমনকি অর্ক নিজেও সেই অস্ত্র ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠানের পরিচালক পদে আসীন ছিলেন। পুলিশ জানায়, মঙ্গলবার পুলিশের অভিযানে নিহত অর্ক যুক্তরাষ্ট্রের পাসপোর্টধারী বাংলাদেশি।-বাংলা ট্রিবিউন।


অস্ত্রব্যবসার ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান নিউ ভিক্টর লিমিটেড (এনভিএল) নামে একটি প্রতিষ্ঠান ১৯৭৭ সালে তার বিতর্কিত দাদা গড়ে তুলেছিলেন। উইকিলিকসের ফাঁস করা মার্কিন যুক্তরাস্ট্রের স্টেট ডিপার্টমেন্টের গোপন নথি (৮ সেপ্টেম্বর ২০০৯) অনুসারে, ১৯৭৭ সালের ৬ এপ্রিল ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) আব্দুর রউফ এনভিএল গড়ে তোলেন। তার ছেলে তৌহিদ রউফ ১৯৮৮ সাল থেকে এই কোম্পানির ব্যবস্থাপনা পরিচালক হিসেবে কর্মরত আছেন। আর অর্ক সেখানে পরিচালক পদে ছিলেন।

ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি শাহরিয়ার কবির বলেন, একের পর এক বের হয়ে আসছে আব্দুর রউফের নাতি, কুখ্যাত মোনায়েম খানের নাতিরা এসব জঙ্গি তৎপরতায় জড়িত হয়েছে। একবারের মুক্তিযোদ্ধা আজীবন মুক্তিযোদ্ধা নন, তার আদর্শে পরিবর্তন আসতে পারে। কিন্তু একবারের রাজাকার আজীবন রাজাকার। বংশ পরম্পরায় তাদের এ আদর্শ পরিবাহিত হচ্ছে।

তিনি বলেন, এই আব্দুর রউফ জিয়ার মদদপুষ্ট ছিলেন। বঙ্গবন্ধুর নিরাপত্তার দায়িত্বে এসব পাকিস্তানপন্থীরা জায়গা করে নিয়েছিল বলেও মন্তব্য করেন শাহরিয়ার কবির।

সেহজাদ রউফ অর্কর জীবন বৃত্তান্ত থেকে তার কোম্পানির কাজ সম্পর্কে জানা যায়। তিনি লিখেছেন, ‘আমরা (এনভিএল) এই ব্যবসা ক্ষেত্রে সবচেয়ে পুরোনো কোম্পানি: আমরা বিদেশ থেকে (চীন, ইংল্যাণ্ড, ইতালি, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, কানাডা, কোরিয়া, সাউথ আফ্রিকা) পুলিশ, আর্মি, র‌্যাব, নৌবাহিনীর কাছে টেন্ডার অনুযায়ী সেনা প্রতিরক্ষা সরঞ্জামাদি সরবরাহ করি’।

গুলশানে হলি আর্টিজান বেকারির হামলার ঘটনায় যৌথবাহিনীর অভিযানে নিহত নিবরাসের ঘনিষ্ঠ বন্ধুও ছিলেন অর্ক বলে এরই মধ্যে নিশ্চিত করেছে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। গত ফেব্রুয়ারি থেকে তিনি নিখোঁজ ছিলেন বলে পরিবারের দাবি। তার বাসা রাজধানীর বসুন্ধরা আবাসিক এলাকায় (বাসা -৩০৪, রোড -১০, ব্লক-সি)। তার নিখোঁজের ঘটনার পর ভাটারা থানায় একটি জিডি করে তার পরিবার। জিডি নম্বর-৩৯২।


নিবরাস ও অর্কএ বিষয়ে কথা বলতে তার বাবা তৌহিদ রউফের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি দুদফা ফোন ধরলেও সাংবাদিক শুনে আর কথা বলতে চাননি। তবে তিনি ২৭ জুলাই ওয়াশিংটন পোস্টে জানিয়েছেন, তার ছেলের জন্ম বাংলাদেশে হলেও বেশির ভাগ সময় ইলিনয় ও ক্যালিফোর্নিয়ায় কাটিয়েছে। তিনি বলেন, নিঁখোজ হওয়ার আগে কোনো চিহ্ন বুঝতে পারেননি তারা।

এফ/০৮:১৫/৩০জুলাই

জাতীয়

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে