Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print

আপডেট : ০৭-২৮-২০১৬

‘জঙ্গি’দের নিয়ন্ত্রণ করছে ইহুদি-খ্রিস্টানরা : হেফাজত

‘জঙ্গি’দের নিয়ন্ত্রণ করছে ইহুদি-খ্রিস্টানরা : হেফাজত

ঢাকা, ২৮ জুলাই- সাম্প্রতিককালে বিশ্বব্যাপী যেসব সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড, হামলা, নাশকতা ও হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটছে তাতে বিশ্ববাসী শঙ্কিত ও আতঙ্কিত। সারাবিশ্বেই সন্ত্রাসবাদ রাষ্ট্রযন্ত্রের জন্য অনেক বড় চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়িয়েছে। ইহুদি-খ্রিস্টান সাম্রাজ্যবাদী ইসলামবিদ্বেষী গোষ্ঠী এদের পরিচালিত করছে। এসব সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে জাতি-ধর্ম ও দলমত নির্বিশেষে সূদৃঢ় ঐক্য গড়ে তোলার কোনো বিকল্প নেই- এমনটাই জানিয়েছেন হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের মহাসচিব আল্লামা জুনাইদ বাবুনগরী।

আগামীকাল শুক্রবার বাদ জুমা ঢাকা বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদের উত্তর গেট ও চট্টগ্রাম আন্দরকিল্লা শাহী জামে মসজিদের উত্তর গেট চত্বরে অনুষ্ঠেয় বিক্ষোভ সমাবেশ ও মিছিল হওয়ার কথা জানিয়ে বৃহস্পতিবার এক বিবৃতিতে এ কথা বলেন। 

জুনাইদ বাবুনগরী বলেন, ‘এসব হামলা ইসলাম ও মুসলমানদের বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক ষড়যন্ত্রের অংশ। যে কোনো মূল্যে সকল ষড়যন্ত্র রুখে দিয়ে ইসলাম ও মুসলিম মিল্লাতকে বিপর্যয়ের হাত থেকে রক্ষা করার জন্য মুসলিম বিশ্বের ক্ষমতাসীনদের ঐক্যবদ্ধ হয়ে মোকাবিলা করতে হবে। কারণ পৃথিবীর কোনো ধর্মই সন্ত্রাসবাদকে পছন্দ করে না। ইসলামের সাথেও এর কোনো সম্পর্ক নেই। ইসলাম কোনো উগ্রতা ও সহিংসতাকে সমর্থন করে না। যারা এসব হামলার সাথে জড়িত তারা ইসলাম, মুসলমান ও বিশ্বমানবতার শত্রু। ইসলাম সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে জিহাদ ঘোষণা করেছে।’

হেফাজত নেতা বলেন, ‘আমাদের মাতৃভূমি বাংলাদেশের শিক্ষাব্যবস্থাকে ধর্মহীন করার কারণে কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ে মুসলমানদের সন্তানরা ধর্মের সঠিক ব্যাখ্যা না জানার ফলে বিপদগামী হচ্ছে। দেশে সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড, গুপ্তহত্যা, গুম, খুন, ও রাজনৈতিক জিঘাংসা ইত্যাদি পরিস্থিতিতে নাগরিক হিসেবে আমরা সবাই আতঙ্কিত ও উদ্বিগ্ন। তাই, শিক্ষার সর্বস্তরে ইসলামী শিক্ষা বাধ্যতামূলক করতে হবে।’ 

ইফা প্রেরিত জুমার খুতবা অনুসরণ না করায় দেশের কয়েকস্থানে ইমাম-খতিবদের গ্রেপ্তার ও নির্যাতনের তীব্র প্রতিবাদ জানিয়ে দেশের আলেম-ওলামা ইমাম-খতিবদের উপর জুলুম নির্যাতন বন্ধের আহ্বান জানান হেফাজত মহাসচিব জুনাইদ বাবুনগরী। তিনি অবিলম্বে গ্রেফতারকৃত ইমাম-খতিবদের নিঃশর্ত মুক্তি দাবি করে বলেন, ‘হত্যা, সন্ত্রাস, উগ্রবাদ প্রতিরোধে আলেম-ওলামা, ইমাম-খতিবরা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে আসছেন। মসজিদের মিম্বর থেকে সবসময় সত্য, ন্যায়, নৈতিকতা, শান্তি ও মানবতার বাণী প্রচার করা হয়। ইসলামের সাথে ঘৃণিত উগ্রবাদ তথা সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের কোনো সম্পর্ক নেই। কিন্তু আজ সরকার চলমান ন্যাক্কারজনক সন্ত্রাসী হামলার ইস্যুকে কেন্দ্র করে মসজিদ ও জুমার খুতবার উপর নিয়ন্ত্রণ আরোপের চেষ্টা করছে। এদেশের ধর্মপ্রাণ জনতা ধর্মের উপর কোনোরূপ নিয়ন্ত্রণ, নজরদারী কোনোভাবেই মেনে নিবে না।’

তিনি বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী সংসদে বলেছেন- সরকার জুমার খুতবা নিয়ন্ত্রণ করবে না। তাহলে যেসব ইমাম ও খতিবকে ইফার খুতবা না পড়ার কারণে গ্রেপ্তার করা হয়েছে তাদের অবিলম্বে মুক্তি দিয়ে তা প্রমাণ করুন।’

এফ/২২:৩৫/২৮জুলাই

জাতীয়

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে