Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print
আপডেট : ০৭-২৭-২০১৬

৭২ ঘণ্টার মধ্যে তথ্য আদান-প্রদান করবে বিজিবি-বিএসএফ

৭২ ঘণ্টার মধ্যে তথ্য আদান-প্রদান করবে বিজিবি-বিএসএফ

ঢাকা, ২৭ জুলাই- রিয়েল টাইম ইন্টেলিজেন্সের উপর গুরুত্ব দেয়া হয়েছে বাংলাদেশ বর্ডার গার্ড ও ভারতীয় সীমান্ত রক্ষী বাহিনীর বৈঠকে। গত মঙ্গলবার থেকে পশ্চিমবঙ্গের শিলিগুড়িতে বিজিবি ও বিএসএফর মধ্যে ডিজি পর্যায়ের তিন দিনের বৈঠক শুরু হয়েছে।

বৈঠকে বিজিবির এডিজির সঙ্গে দেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, মাদক নিয়ন্ত্রণ ব্যুরো ও নদী কমিশনের আধিকারিকসহ মোট ২০ জন প্রতিনিধি উপস্থিত ছিলেন। বিএসএফের পক্ষে উত্তরবঙ্গের আইজি ছাড়াও গুয়াহাটি ও দক্ষিণবঙ্গের আইজিসহ অন্যান্য দপ্তরের আধিকারিকরা বৈঠকে যোগ দিয়েছিলেন।

বুধবার (২৭ জুলাই) বিজিবির প্রতিনিধিদল সীমান্ত এালকা পরিদর্শন করে। আগামী ২৯ জুলাই কলকাতায় শিলিগুড়ি বৈঠকে গৃহীত সিদ্ধান্তগুলি নিয়ে দুই দেশের পক্ষে জয়েন্ট রেকর্ড অব ডিসকাসন স্বাক্ষরিত হবে বলে জানা গেছে। প্রথম দিনের বৈঠকেই সিদ্ধান্ত হয়েছে, আর পুরনো তথ্য নয়, বরং সীমান্ত নিরাপত্তা সংক্রান্ত যে কোনও তথ্য দুই দেশ ৭২ ঘণ্টার মধ্যে আদান প্রদান করবে। বাংলাদেশের গুলশান ও শোলাকিয়ায় জঙ্গী হানার পরিপ্রেক্ষিতে তথ্য বিনিময়ের উপর জোর দেওয়া হয়েছে।

বিএসএফের উত্তরবঙ্গের আইজি কমল নয়ন চৌবে জানিয়েছেন, বাংলাদেশের সাম্প্রতি ঘটনাবলির পরিপ্রেক্ষিতে আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি, তিন দিনের পুরনো খবর যাতে আর আদানপ্রদান করতে না হয়। রিয়েল টাইম ইন্টেলিজেন্সকেই বৈঠকে গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে। বিজিবির এডিজি শাহরিয়ার আহমেদ চৌধুরি জানিয়েছেন, এখন কোনও দেশই আর একা থাকতে পারবে না। ভালো থাকতে হলে পরষ্পরের সঙ্গে যোগাযোগ বাড়াতেই হবে।

বৈঠকের প্রথম দিনেই সীমান্ত এলাকায় সক্রিয় অপরাধীদের তালিকা বিনিময় করা হয়েছে। জানা গেছে, এই ধরণের বৈঠকে অপরাধীদের তালিকা বিনিময় করাটা স্বাভাবিক প্রক্রিয়ারই অংশ। প্রতি ছয় মাস অন্তর বিজিবি ও বিএসএফ এই ধরণের বৈঠক করলেও বাংলাদেশের সাম্প্রতিক ঘটনাবলির পরিপ্রেক্ষিতে এ বারের বৈঠক বিশেষ গুরুত্বপূর্ণ বিবেচিত হচ্ছে। সীমান্ত এলাকায় কোনও অপরাধী যাতে পারাপার করতে না পারে সে বিষয়টিতে জোর দেয়া হয়েছে। 

ভারতে অনুপ্রবশ করার বিষয়টিকে এখন থেকে নানা দৃষ্টিকোন থেকে বিচার করা হয়েছে। জানা গেছে, বিএসএফও মনে করে, বেশির ভাগই জীবিকার খোঁজে ঝুঁকি নিয়ে ভারতে আসেন সীমান্ত পেরিয়ে। আবার কিছু অপরাধ করার জন্যই ভারতে আসে। এবারের বৈঠকে এ সব বিষয় বিচার বেশি লক্ষ করা হয়েছে বলে জানা গেছে। এছাড়া, জাল টাকা পাচার, মাদক পাচার ও গোরু পাচারের মত বিষয়গুলিই বৈঠকের আলোচনায় প্রাধান্য পেয়েছে। এই বৈঠকে যে সব এলাকায় কাঁটাতারের বেড়া এখনও দেওয়া হয় নি সেখানে এই বেড়া দেবার জন্য বাংলাদেশ তাগিদ দিয়েছে।

আর/১৭:১৪/২৭ জুলাই

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে