Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print
আপডেট : ০৭-২৬-২০১৬

নিহতরা আর্টিজানের জঙ্গিদের মতো উচ্চ শিক্ষিত: ডিএমপি কমিশনার

নিহতরা আর্টিজানের জঙ্গিদের মতো উচ্চ শিক্ষিত: ডিএমপি কমিশনার

ঢাকা, ২৬ জুলাই- রাজধানীর কল্যাণপুরে ‘জঙ্গি আস্তানায়’ পুলিশের অভিযানে নিহত ৯ জঙ্গি সবাই গুলশানের হলি আর্টিজানে হামলার জঙ্গিদের মতো উচ্চ শিক্ষিত ছিল বলে মনে করছেন ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি) কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া। মঙ্গলবার দুপুরে ডিএমপির মিডিয়া সেন্টারে জঙ্গি আস্তানায় অভিযান নিয়ে বিস্তারিত ব্রিফ করার সময় তিনি এ কথা বলেন।

আছাদুজ্জামান মিয়া বলেন, জঙ্গিদের সবার গায়ে কালো পোশাক, পরণে জিন্স পেন্ট এবং একজন ব্যতিত সবার পায়ে ক্যাডস পড়া ছিল। তারা সবাই গুলশানের হলি আর্টিজানে হামলায় জঙ্গিদের মতো উচ্চ শিক্ষিত ছিল। নিহত জঙ্গিদের বয়স ২০ থেকে ২৫ বছরের মধ্যে।  

নিহত ৯ জনকে জঙ্গি ও উচ্চ শিক্ষিত দাবি করলেও সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে আছাদুজ্জামান মিয়া বলেন, তাদের নাম-পরিচয় এখনো নিশ্চিত হওয়া যায়নি। তবে আধুনিক তথ্যপ্রযুক্তির মাধ্যমে পরিচয় নিশ্চিত হওয়ার চেষ্টা চলছে। 

তিনি আরও বলেন, গুলশান হামলায় যারা জড়িত ছিল কল্যাণপুরের জঙ্গিরা একই গ্রুপের সদস্য। তারা বড় ধরনের হামলার পরিকল্পণায় সেখানে অবস্থান নিয়েছিল। 

ডিএমপি কমিশনার বলেন, গুলশান হামলার মতো বড় ধরনের হামলার পরিকল্পণায় কল্যাণপুরে আস্তানা গড়েছিল জঙ্গিরা। তারা গত ২০ জুন কল্যাণপুরের ৫ নম্বর সড়কের ৫৩/৩ তাজমঞ্জিল নামের ৬ তলা ভবনের পঞ্চম তলা ভাড়া নেয়। তারা গুলশান হামলায় জড়িত জঙ্গিগোষ্ঠী দলেরই সদস্য। 

তিনি বলেন, আমাদের কাছে গোয়েন্দা তথ্য ছিল। গতকাল জঙ্গিরা ওই ভবনটিতে হামলার পরিকল্পণা বিষয়ে জড়ো হয়। আমাদের কাছে তথ্য আসার সঙ্গে সঙ্গে রাত ১২টার পর আমরা বাড়িটির চারদিক ঘিরে ফেলি। এসময় ভবনের পেছনে পাইপ বেয়ে দুই জঙ্গি 'আল্লাহুআকবার' ধ্বনি দিয়ে পুলিশের উপর হামলা চালায়। এসময় পুলিশের গুলিতে একজন নিহত হন। আরেকজনকে আহত অবস্থায় আটক করে ঢাকা মেডিকেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তার নাম হাসান। 

আছাদুজ্জামান মিয়া বলেন, রাত আড়াইটায় সোয়াত টিম ঘটনাস্থলে গিয়ে পুলিশের বিশেষায়িত টিম, পুলিশ, র‍্যাবের সমন্বয়ে অভিযান পরিকল্পণা গ্রহণ করেন। এরপর অনুমতি দেওয়া হলে ভোর ৫টা ৫১ মিনিটে 'অপারেশন স্ট্রম-২৬' পরিচালনা করে আইনশৃংখলা বাহিনী। এক ঘন্টায় অভিযান সফল হয়। ৯ জঙ্গি পুলিশের সঙ্গে গোলাগুলিতে নিহত হয়। 

তিনি বলেন, সোয়াত টিমের নেতৃত্বে পরিচালিত এ অভিযানের সময় জঙ্গিরা আইনশৃংখলা বাহিনীকে লক্ষ্য করে বোমা, গুলি ছোড়ে। পাল্টা পুলিশও গুলি করলে তারা সবাই নিহত হয়।

ব্রিফিংয়ের কিছুক্ষণ আগেই কাউন্টার টেরোরিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইমের প্রধান মো. মনিরুল ইসলাম জানান, কল্যাণপুরে জঙ্গি আস্তানায় অভিযান চালানোর সময় আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে লক্ষ্য করে মোট ১১টি গ্রেনেড ছোড়ে জঙ্গিরা। এরমধ্যে একটি গ্রেনেড অবিস্ফোরিত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়েছে। আস্তানা থেকে ৪ থেকে ৫ কেজি বিস্ফোরক, ৪টি পিস্তল, ২১ রাউন্ড গুলি, ১টি তলোয়ার, ৩টি অটোমেটিক ছুরি, ৭টি ছোট ছুরি এবং বেশ কিছু আইএস লেখা কালো পতাকা পাওয়া গেছে।

এর আগে, সোমবার দিবাগত রাত সোয়া ১টার দিকে রাজধানীর কল্যাণপুরের ৫ নম্বর সড়কে পুলিশ ও জঙ্গিদের মধ্যে গোলাগুলি চলছে বলে স্থানীয়দের কাছ থেকে জানা যায়। পরে মিরপুর থানাসহ আশেপাশের থানার পুলিশকে জরুরি তলব করে ওই এলাকায় অভিযান শুরু করে পুলিশ।

জঙ্গিরা ‘নারায়ে তাকবির’ ও ‘আল্লাহু আকবর’ বলে পুলিশের উপর গুলি চালায় বলে জানা যায়। এসময় বেশ কয়েকটি বোমা বিস্ফোরণের শব্দও পাওয়া যায়। 

এসময় হাসান (২০) নামে এক যুবক গুলিবিদ্ধ হলে রাত সোয়া ৩টার দিকে পুলিশ সদস্যরা তাকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নিয়ে আসে। মেডিকেল ক্যাম্প পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) বাচ্চু মিয়া জানায়, ওই যুবকের মাথায় ও পায়ে গুলি লেগেছে।

এফ/১৭:০২/২৬জুলাই

জাতীয়

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে