Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 1.5/5 (2 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print
আপডেট : ০৭-২৪-২০১৬

বিনা ওয়ারেন্টে গ্রেফতারের বিধান রেখে আইন পাস!

বিনা ওয়ারেন্টে গ্রেফতারের বিধান রেখে আইন পাস!

ঢাকা, ২৪ জুলাই- কোন সেতুতে যানবাহন চলাচলে বাধা সৃষ্টি বা আগে যাওয়ার জন্য সারিভঙ্গ করে টোলঘরের কাছে জটলা সৃষ্টি করলে ১০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড আরোপ ও বিনা ওয়ারেন্টে গ্রেফতার করার বিধান রেখে বাংলাদেশ সেতু কর্তৃপক্ষ আইন ২০১৬ বিল জাতীয় সংসদে পাস হয়েছে।

এছাড়া বিলে সেতু কর্তৃপক্ষকে সেতু বা টানেল পরিচালনায় কোম্পানী গঠন ও ইজারা প্রদানেরও ক্ষমতা দেওয়া হয়েছে।

ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে দশম সংসদের একাদশ অধিবেশনে রোববারের বৈঠকে বিলটি পাস হয়। বাংলাদেশ সেতু কর্তৃপক্ষ আইন ২০১৬ বিলটি পাস করার প্রস্তাব করেন সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। এর আগে বিলটির ওপর আনীত বাছাই কমিটিতে প্রেরণ, জনমত যাচাই ও সংশোধনী প্রস্তাবসমুহ কন্ঠভোটে সংসদে নাকচ হয়ে যায়।

সেতু কর্তৃপক্ষ বিলের ২১ ধারায় বলা হয়েছে- সেতু কর্তৃপক্ষ জনসাধারণরে জন্য বিপজ্জনক মনে করলে নির্দিষ্ট কোন শ্রেণির যানবাহন চলাচল বন্ধ ঘোষণা করতে পারবেন। ২২ ধরায় সেতু কর্তৃপক্ষকে নিজ এলাকায় যে কোন প্রতিবন্ধকতা অপসারণে বল প্রয়োগের ক্ষমতা দেওয়া হয়েছে। ২৩ ধারায় সেতু কর্তৃপক্ষকে যে কোন যানবাহন থামানো, যানবাহনের চালক, যাত্রী বা ব্যক্তিকে তল্লাশি করার ক্ষমতা দেওয়া হয়েছে। ২৫ ধারায় সরকারের অনুমোদন সাপেক্ষে কোন স্থাপনা নিমার্ণের পর তার মালিকানা, প্রশাসন ব্যবস্থাপনা, পরিচালনা ও রক্ষণাবেক্ষণের দায়িত্ব হস্তান্তরের জন্য শেয়ার মূলধন সম্পর্কিত কোম্পানি গঠনের ক্ষমতা দেওয়া হয়েছে। ২৭ ধারায় সেতু কর্তৃপক্ষকে সেতু, টানেল বা অন্যান্য স্থাপনা নির্ধারিত শর্তে ইজারা প্রধানের ক্ষমতা দেওয়া হয়েছে।

২৮ধারায় কোন সেতু, টানেল বা টোল সড়কে বা অন্য কোন স্থাপনায় যানবাহন চলাচলে বাধা সৃষ্টি করলে বা আগে যাওয়ার জন্য সারিভঙ্গ করে সেতু টোলঘরের কাছে জটলা সৃষ্টি করলে ১০ হাজার টাকা অর্থ দণ্ডের বিধান রাখা হয়েছে। ২৯ ধারায় কর্তৃপক্ষের কোন আদেশ অমান্য করলে অনধিক পাঁচ হাজার টাকা পর্যন্ত জরিমানা আদায় করার ক্ষমতা দেওয়া হয়েছে।

৩০ ধারা বলে পুলিশ বা কর্তৃপক্ষের ক্ষমতাপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সেতু কর্তৃপক্ষের জারিকৃত কোন বিধি বা আদেশ অমান্য করতে দেখলে বিনা ওয়ারেন্টে তাকে গ্রেফতার করতে পারবে।

বিলের উদ্দেশ্য ও কারণ সম্বলিত বিবৃতিতে বলা হয়েছে, আদালতের রায়ে সংবিধানের চতুর্থ তফসিলের ১৯ অনুচ্ছেদ বিলুপ্ত হওয়ায় যমুনা বহুমুখী সেতু কর্তৃপক্ষ অধ্যাদেশ ১৯৮৫ এবং ২০০৯ সালে নাম যমুনা বহুমুখী সেতু কর্তৃপক্ষ ২০০৯-এর কার্যকারিতা লোপ পায়।

আইনের ধারাবাহিকতা রক্ষা এবং সমন্বিত যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়ন সেতু, টানেল, এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ে নির্মান ও রক্ষণা বেক্ষণের জন্য বাংলাদেশ সেতু কর্তৃপক্ষ নামে একটি কর্তৃপক্ষ প্রতিষ্ঠা ও বিধান প্রণয়নের জন্য জারিকৃত অধ্যাদেশ পরিমার্জিত আকারে বাংলাদেশ সেতু কর্তৃপক্ষ আইন ২০১৬ বিলটি সংসদে পেশ করা হলো।

আর/১০:১৪/২৪ জুলাই

জাতীয়

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে