Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print

আপডেট : ০৭-২৪-২০১৬

এদেশে জঙ্গিবাদ আজকের ঘটনা নয়

এদেশে জঙ্গিবাদ আজকের ঘটনা নয়

ঢাকা, ২৪ জুলাই- স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, ‘জঙ্গি-সন্ত্রাসবাদ এদেশে আজকের ঘটনা নয়। রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক জোহাকে পাকিস্তান আমলে হত্যা করা হয়েছিল। আমরা পাকিস্তানের সঙ্গে থাকবো কী থাকবো না; যখন এ সিদ্ধান্তের দিকে এগোচ্ছিলাম, ঠিক তখনই তাকে হত্যা করা হয়েছিল।’

শনিবার রাজধানীর সেগুনবাগিচাস্থ আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনন্সিটিউিটে আয়োজিত সাম্প্রতিক পরিস্থিতি ও বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষার সুষ্ঠু পরিবেশ নিশ্চতকরণে আয়োজিত মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য তিনি এসব কথা বলেন।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘এরপর আমরা দেখেছি স্বাধীনতা যুদ্ধের সময়- আল বদর ,আল শামস, রাজাকার বাহিনী গ্রামের পর গ্রাম গুড়িয়ে দিয়েছে। দেখেছি তাদের বীভৎসতা। যুদ্ধের পর যারা আমাদের দেশকে নেতৃত্ব দিতে পারতেন, তাদেরকেও হত্যা করা হয়েছে। এরাই আবার সংঘবদ্ধ হয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘তবে গুলশানের মতো ঘটনা একেবারে প্রথম। যারা এদেশকে চায় না, স্বাধীনতাকে চায় না, সেই পরাজিত শক্তিরাই বিভিন্ন সময় বিভিন্ন নামে এদেশ নৃশংসতা চালাচ্ছে। কখনো হরকাতুল জিহাদ, কখনো জিএমবি, আনসারুল্লাহ বাংলা টিম, আনসারুল ইসলাম এসব নামে তারা আত্মপ্রকাশ করছে।’ 

‘ইদানিংকালে আইএস নামে আক্রমণ করছে। তারা নাকি আমাদের দেশকে মুসলমান রাষ্ট্র বানাতে চাইছে। আমরা তো মুসলমান রাষ্ট্রই। এখানে আমাদের শতকরা ৯০ শতাংশ মুসলমান। মুসলমানের নিয়ম-রীতি-নীতি আমাদের সরকার ফলো করছে। তাহলে কেনো এ আক্রমণ?’ প্রশ্ন রাখেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।

তিনি বলেন, ‘ধর্মের নামে তরুণদের কাছে ভুল তথ্য পৌঁছে দিচ্ছে জঙ্গি সংগঠনগুলো। কোরানের আগের অংশ, পরের অংশ বাদ দিয়ে শুধু যেখানে জিহাদের কথা বলা হয়েছে সেটুকু শুধু আলোচনা করা হচ্ছে।’

মন্ত্রী বলেন, ‘আমাদের দেশ একটি অসাম্প্রদায়িক দেশ, আমাদের দেশ শান্তির দেশ। কিন্তু কেন এ ধরনের হামলা ঘটলো? আমাদের দেশ সব ধর্মের দেশ। এদেশ ধর্ম নিরপেক্ষ দেশ। এ দেশে সব ধর্মের সমান অধিকার আছে। আমরা সব ধর্মকে সমানভাবে গুরুত্ব দেই। তাহলে কেন আমাদের ওপর আঘাত আসলো? এর হিসেব যদি বের করতে যায় তাহলে বের হয়ে আসে, যারা আমাদের স্বাধীনতায় বিরোধীতা করেছে তারাই এ হামলা ঘটিয়েছে।’  

পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধিদের মধ্যে বক্তব্য দেন জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. হারুন-অর-রশিদ, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ডা. কামরুল ইসলাম খান, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. মিজান উদ্দিন, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. ইফতেখারুজ্জামান, বাংলাদেশ কৃষি বিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. আলী আকবর, জাহাঙ্গীর নগর বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. ফারজানা ইসলাম, বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়েল উপাচার্য অধ্যাপক ড. স ম ইমামুল হক এবং মাওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্বদ্যিালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আলাউদ্দিন।

শিক্ষামন্ত্রণালয় এবং বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের আয়োজনে শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদের সভাপতিত্বে আরো উপস্থিত ছিলেন- স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব ড. মো. মোজাম্মেল হক খান, শিক্ষাসচিব মো. সোহরাব হোসাইন খানসহ পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য, উপ-উপাচার্য, শিক্ষক নেতারা।

এফ/০৮:১২/২৪জুলাই

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে