Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print
আপডেট : ০৭-২১-২০১৬

পাতালরাজ্যে এরা কলকাতাকে কুটে কুটে খাচ্ছে। জানেন কি?

পাতালরাজ্যে এরা কলকাতাকে কুটে কুটে খাচ্ছে। জানেন কি?

কলকাতা, ২১ জুলাই- তলে তলে এরা কলকাতায় সাম্রাজ্য বিস্তার করছে। এর সীমানা যদি কেউ মাপতে বসে তাহলে মাথায় হাত দিয়ে বসে পড়তে হবে। এদের সাম্রাজ্যের আগ্রাসন থেকে বাদ যায়নি জিপিও থেকে মেডিক্যাল কলেজ, কলকাতা হাইকোর্ট বা কলকাতা পুরসভা।

ব্যাটাদের যে পেটে পেটে এত বুদ্ধি তা কেউ ভাবতেই পারেনি। কোন ফাঁকতালে যে কলকাতাকে তলে তলে এমন ভাবে ফাঁক করে দিয়েছে তা কারোর মাথাতেই আসেনি। বছর কয়েক আগে কলকাতা মেডিক্যাল কলেজের একটি ঘটনায় এই মূষিককূলের সাম্রাজ্যের কথা সামনে আসে। 

ধর্মতলার প্রাণকেন্দ্রে কার্জন পার্কে ইঁদুরের যে বাহিনী ছিল তারাই নাকি এই সাম্রাজ্য বিস্তারের নেতৃত্ব দিচ্ছে। কলকাতা হাইকোর্টের রেকর্ডরুমের দস্তাবেজ ছিঁড়ে কুটিকুটি। মূলে এই মূষিক কূল। খুঁজতে গেলে ভোজবাজির মতো হাওয়া। গর্ত মেলে তো ঠিকানা মেলে না। মাঝখানে গ্যালন গ্যালন জল ঢেলে জলে ডুবিয়ে মারার পরিকল্পনাও কাজ করেনি। কলকাত্তাইয়াদের বুড়ো আঙুল দেখিয়ে দিব্য হই-হুল্লোড়ে মেতে আছে ইঁদুরের দল। ইঁদুরের উপদ্রব ঠেকাতে মাঝখানে হাইকোর্ট ও জিপিও-তে বিষও দেওয়া হয়। বিষ খেয়েছে ভেবে মনে মনে ফূর্তিতে মেতেছিল সকলে। কিন্তু, বিষ হজম করে দিয়ে দিব্যি ঘুরে বেড়াচ্ছে তারা।


কলকাতা পুরসভা বছর দুয়েক আগে অভিযানে নেমেছিল এই মূষিককূলের বিরুদ্ধে। লাভ কিছুই হয়নি। ঘেমে-নেয়ে পরিশ্রমই সার। হাল ছেড়ে দিয়ে পুর কর্তৃপক্ষ খুঁজে বেড়াচ্ছে অন্য অস্ত্র। 

বছর কয়েক আগে ঢাকুরিয়া উড়ালপুলে বড় বড় গর্ত দেখা যায়। তদন্তে দেখা যায় এইসব গর্তের মূলে এই মূষিককূল। উড়ালপুলের মাঠি খুড়ে চারিদিকে এত বড় বড় গর্ত তৈরি করেছে, যে কোনও মুহূর্তে তা ধসে যাওয়ার সম্ভাবনা তৈরি হয়েছিল। আপাতত কোনওমতে জোড়াতালি দিয়ে তা ঠেকানো হয়েছে। 


ধর্মতলা থেকে সেন্ট্রাল অ্যাভিনিউ কয়েক বছরে এই রাস্তাগুলিতে প্রায়ই বড় বড় গর্ত তৈরি হচ্ছে। আর তা থেকে ধস নামছে। কারণ অনুসন্ধানে দেখা গিয়েছে মূষিককূলের এই সব গর্তে জল ঢুকে তলায় তলায় মাটি নরম করে দিচ্ছে, আর ধস নামছে। কলকাতাতে পাতাল জুড়ে এইভাবেই নাকি মাটি খুঁড়ে সাফ করে দিয়েছে মূষিককূল। পরিস্থিতি যা তাতে এই মূষিককূলের হাত থেকে কলকাতাকে একমাত্র রক্ষা করতে পারে হ্যামলিন শহরের মতো কোনও বাঁশিওয়ালা। নচেৎ, ইঁদূরদের পাতাল সাম্রাজ্যের দাপটে কলকাতা শহরের না পতন হয়ে যায়।

এফ/১৫:৫০/২১জুলাই

পশ্চিমবঙ্গ

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে