Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 2.0/5 (1 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print
আপডেট : ০৭-২০-২০১৬

আবাসিক এলাকায় বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠান: নোটিশ ১৩ হাজার, পর্যালোচনার পর উচ্ছেদ

আবাসিক এলাকায় বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠান: নোটিশ ১৩ হাজার, পর্যালোচনার পর উচ্ছেদ

ঢাকা, ২০ জুলাই- দেশের মহানগরীগুলোর আবাসিক এলাকা থেকে অনুমোদনহীন সব ধরনের বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠান নিজ উদ্যোগে সরিয়ে নিতে সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠান মালিকদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন স্থানীয় সরকার বিভাগের সচিব আবদুল মালেক। তিনি বলেন, তা না হলে অনুমোদনহীন প্রতিষ্ঠানের সব ধরণের ইউটিলিটি সার্ভিস বন্ধ করে দেওয়া হবে। পরবর্তিতে রাজউক-সিটি করপোরেশনসহ সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠান এসব ভবন উচ্ছেদ করে ফেলবে।

‘দেশের মহানগরীগুলোর আবাসিক এলাকায় রাস্তার পাশে ভবনসমূহে রেস্টুরেন্ট ও পানশালাসহ অন্যান্য বাণিজ্যিক কার্যক্রম পরিচালনার কারণে উদ্ভুত সমস্যা নিরসন সংক্রান্ত’ বৈঠকে সভাপতির বক্তৃতায় স্থানীয় সরকার বিভাগের সচিব এ কথা বলেন।

স্থানীয় সরকার বিভাগের সভাকক্ষে বুধবার (২০ জুলাই) দুপুরে এই সভার আয়োজন করা হয়। সভায় গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়, বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়, রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ-রাজউক, সব সিটি করপোরেশন, পৌরসভা এবং সংশ্লিষ্ট সংস্থা ও দফতরসমূহের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

সভায় জানানো হয়, দেশের মহানগরীগুলোর আবাসিক এলাকায় থাকা বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠানের ট্রেড লাইসেন্স নবায়ন কিংবা নতুন কোনও বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠানের ট্রেড লাইসেন্স দেবে না সরকার। অন্যদিকে আবাসিক এলাকার বৈশিষ্ট্য নষ্ট করে গড়ে ওঠা বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠানগুলোকে ইতিমধ্যে নোটিশ দিয়েছে সরকারের সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠান। সর্বশেষ হিসাব অনুযায়ী ১২ হাজার ৯৫৭টি নোটিশ জারি করা হয়েছে। এসব নোটিশের জবাব পর্যালোচনা করে উচ্ছেদের চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবে সরকার।

সভায় জানান হয়, ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন ৩০১৫টি, ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন ১১৩৭টি, রাজউক ২৪০০টি, চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন ১৫০টি, খুলনা সিটি করপোরেশন ২৬টি, গাজীপুর সিটি করপোরেশন ৩৭৬টি, কুমিল্লা সিটি করপোরেশন ৪০টি, বরিশাল সিটি করপোরেশন ৫৮টি, সিলেট সিটি করপোরেশন ২৬টি এবং নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন ৫টি বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠানকে নোটিশ পাঠিয়েছে। এগুলোর অবস্থান আবাসিক এলাকায়।

৫১টি বার, ক্লাব ও রেস্তোরাঁকে নোটিস পাঠিয়েছে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর। এ ছাড়া ঢাকা ইলেকট্রিক সাপ্লাই কোম্পানি-ডেসকো ৫৫৩৪টি, ঢাকা পাওয়ার ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেড (ডিপিডিসি) ১১২টি এবং ফায়ার সার্ভিস ১৩টি প্রতিষ্ঠানকে নোটিস জারি করেছে।

বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের প্রতিনিধি সভায় জানান, ঢাকায় ৩৪টি চার ও পাঁচ তারকা হোটেল রয়েছে। এগুলোর বিষয়ে রাজউকের সঙ্গে আলোচনা করে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

সভায় জানান হয়, আবাসিক এলাকায় সেবামূলক প্রতিষ্ঠান ছাড়া অন্য কোনও বাণিজ্যিক কার্যক্রম চলতে দেওয়া হবে না। সেবামূলক প্রতিষ্ঠানগুলো প্রকৃতপক্ষে সেবাদান করছে কিনা স্থানীয় বাসিন্দাদের সঙ্গে আলোচনা করে দেখা হবে। আবাসিক এলাকায় রেস্টুরেন্ট ও বারের ট্রেড লাইসেন্স বাতিলকরণ ও নতুন কোনও লাইসেন্স না দেওয়া, বৈধ লাইসেন্স থাকলেও সেগুলোর লাইসেন্স পর্যায়ক্রমে নবায়ন না করাসহ বিভিন্ন বিষয়ে সিটি করপোরেশন, জেলা প্রশাসনসহ সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দেওয়া হয়।

সচিব বলেন, গত ৪ এপ্রিল মন্ত্রিসভা সিদ্ধান্ত নিয়েছে আবাসিক এলাকার সব বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠান অপসারণ করতে। এ জন্য ছয় মাস সময় বেঁধে দেওয়া হয়েছে। নির্ধারিত সময়েই আমরা কাজটি শেষ করতে চাই। এ কারণে সংশ্লিষ্টদের নামে নোটিশ দেওয়া হয়েছে। নোটিশে তারা কী জবাব দেন, সেটা পর্যালোচনা করে উচ্ছেদের উদ্যোগ নেওয়া হবে। এ ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় ও দফতরগুলোকে সমন্বিতভাবে কাজ করার অনুরোধ জানান সচিব আবদুল মালেক।

মহানগরীর আবাসিক এলাকায় ভবনের বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠানের ব্যবহারের বিষয়ে ৪ এপ্রিল ২০১৬ মন্ত্রিসভায় এ সংক্রান্ত সুপারিশসমূহের সার-সংক্ষেপ অনুমোদন করা হয়। এই সিদ্ধান্তের পর স্থানীয় সরকার বিভাগের সচিবকে প্রধান করে সংশ্লিষ্ট সরকারি দফতরের প্রতিনিধিদের নিয়ে একটি কমিটি করা হয়। গত ১ জুলাই রাতে গুলশানের হলি আর্টিজান বেকারিতে হামলার পর আবাসিক এলাকার বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠানগুলোকে নিয়ে নতুন করে তোড়জোড় শুরু হয়।

আর/১৭:১৪/২০ জুলাই

জাতীয়

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে