Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print
আপডেট : ০৭-১৯-২০১৬

মন্ত্রীদের ওপর হামলার আশঙ্কা, সতর্ক অবস্থানে মন্ত্রীরা

মন্ত্রীদের ওপর হামলার আশঙ্কা, সতর্ক অবস্থানে মন্ত্রীরা

ঢাকা, ১৯ জুলাই- ক্ষমতাসীন সরকারের মন্ত্রিপরিষদ সদস্যদের ওপর জঙ্গি হামলা হতে পারে এমন আশঙ্কা প্রকাশ করে মন্ত্রীদের মোবাইল ফোনে এসএমএস পাঠিয়েছেন ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি) কমিশনার মো. আছাদুজ্জামান মিয়া। মন্ত্রিপরিষদ সদস্যদের সতর্ক থাকার পরামর্শ দিয়ে সোমবার রাতে এই এসএমএস পাঠানো হয়।

মন্ত্রিপরিষদ সদস্যদের কাছে পাঠানো ডিএমপি কমিশনারের ওই এসএমএসে সালাম জানিয়ে বলা হয়, ‘গোয়েন্দা তথ্য অনুযায়ী, যে কোনো সময় যে কোনো মন্ত্রীর ওপর জঙ্গিগোষ্ঠী হামলা চালাতে পারে। এ ব্যাপারে আমরা সংশ্লিষ্ট সবাইকে প্রয়োজনীয় নির্দেশনা দিয়েছি। অনুগ্রহ করে সতর্ক থাকবেন এবং আপনার গানম্যান ও নিরাপত্তা দলকে বিষয়টি অবহিত করবেন।’ 

এ বিষয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলেন, ‘সরকারের মন্ত্রিসভার সদস্য ও সরকারের শীর্ষ পর্যায়ের কর্মকর্তাদের ওপর হামলা চালানো হতে পারে, এমন তথ্য দিয়েছে একটি গোয়েন্দা সংস্থা। গোয়েন্দা সংস্থার দেওয়া এ প্রতিবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে মন্ত্রিসভার সব সদস্য ছাড়াও সরকারের শীর্ষ কর্মকর্তাদের সতর্কভাবে চলাফেরার জন্য বলা হয়েছে। একই সঙ্গে তাদের নিরাপত্তার জন্য নিয়োজিত গানম্যান ও হাউস গার্ডকে সতর্কাবস্থায় থাকার জন্য ব্রিফ করা হয়েছে। পরবর্তী নির্দেশনা না দেওয়া পর্যন্ত এ নির্দেশ বলবৎ থাকবে’।

মঙ্গলবার সচিবালয়ে আইন কমিশনের প্রতিনিধি দলের সঙ্গে এক বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেন, ‘আমরা নিরাপত্তা নিয়ে উদ্বিগ্ন নই, তবে সতর্ক আছি।’

তিনি বলেন, ‘আমরা সবাইকে সাবধানতা অবলম্বন করতে বলছি। সবাইকে সাবধান থাকার জন্য অনুরোধ করছি।’ 

সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে আইনমন্ত্রী বলেন, ‘ব্যাপারটা হচ্ছে, ১ জুলাই যে মর্মান্তিক দুর্ঘটনা ঘটেছে। এটাকে হালকাভাবে নেওয়ার কোনো অবকাশ নেই। এই ঘটনার থেকে আমরা বুঝতে পেরেছি, আমাদেরকে সাবধানতা অবলম্বন করতে হবে।’

মন্ত্রী আরও বলেন, ‘যখনই যে তথ্যাদি আমাদের আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী পান না কেন, প্রয়োজন অনুসারে সে সব তথ্য  বিশেষভাবে নিরাপত্তার জন্য সরকারে আসীন আছেন, তাদের তারা জানান। সেই ধারাবাহিকতায় ডিএমপির পুলিশ কমিশনার আমাদেরকে জানিয়েছিলেন, যে তাদের কাছে ‘এই সংবাদ’ আছে। সেই সংবাদ অনুসারে আমরা যেন একটু সাবধান হই।’ 

এদিকে মঙ্গলবার সচিবালয়ে নিজ দফতরে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রী রাশেদ খান মেনন বলেছেন, ‘কেউ যদি কাউকে মেরে ফেলতে চায়, তা হলে নিরাপত্তা দিয়ে তাকে রক্ষা করা যায় না; বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, জিয়াউর রহমানকেও রক্ষা করা যায়নি।’ 

পুলিশের কাছ থেকে এসএমএস পাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করে মেনন বলেন, ‘পুলিশের কাছ থেকে আমি খুদেবার্তাটি পেয়েছি। আমার গানম্যান ও প্রোটোকলের দায়িত্বে যারা আছেন তাদেরকে বিষয়টি অবহিত করেছি।’ 

এ নিয়ে আপনি ভীত-সন্ত্রস্ত কি না, এমন প্রশ্নে তিনি বলেন, ‘এর আগেও বহুবার আমি হুমকি-ধমকি পেয়েছি। এবার যেহেতু পুলিশ থেকে জানানো হয়েছে, তাই আশঙ্কাও একটু ভিন্ন। এ জন্য আমাদের সতর্ক থাকা উচিত, এমনকি সমগ্র জাতিকেই সতর্ক থাকা উচিত।’

এর আগে ১১ জুলাই ও সোমবার অনুষ্ঠিত মন্ত্রিসভার নিয়মিত বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মন্ত্রীদের সতর্ক থাকার পরামর্শ দেন। 

প্রসঙ্গত, গত ১ জুলাই শুক্রবার দিবাগত রাত পৌনে নয়টার দিকে গুলশানের ৭৯ নম্বরের আর্টিজান বেকারিতে ৮ থেকে ১০ জন সন্ত্রাসী অতর্কিত হামলা চালায়। এরপর ওই রেস্তোরাঁয় থাকা ২০ জন বিদেশি নাগরিকসহ ৩০-৩৫ জন লোকজনকে জিম্মি করে রাখে। এ সময় পুলিশের সঙ্গে সন্ত্রাসীদের গোলাগুলিতে ডিবির সহকারী কমিশনার (এসি) রবিউল ইসলাম এবং বনানী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সালাউদ্দিন নিহত হয়েছেন। আহত হন প্রায় ৩০ জন পুলিশ সদস্য। 

জঙ্গি হামলা চালিয়ে দেশি-বিদেশি নাগরিকদের জিম্মি করার ঘটনায় দায় স্বীকার করেছে মধ্যপ্রাচ্যভিত্তিক আন্তর্জাতিক জঙ্গি সংগঠন ইসলামিক স্টেট (আইএস)। এই ধরনের অতর্কিত হামলা চালিয়ে মানুষজনকে জিম্মি করার ঘটনা বাংলাদেশে এটাই প্রথম।

পরদিন (২ জুলাই) ভোরে সেনাবাহিনীর নেতৃত্বে যৌথবাহিনী অভিযান চালায়। চালিয়ে জিম্মি হওয়া ১৩ জনকে জীবিত উদ্ধার করে এবং ২০ জন বিদেশি নাগরিকের মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে বলে সংবাদ সম্মেলনে জানান ব্রিগেডিয়ার জেনারেল নাঈম আশফাক। এ ঘটনায় বাংলাদশে দুই দিনের শোক পালন করা হয়।

গুলশানের জঙ্গি হামলায় অংশগ্রহণকারীদের প্রশংসা করে বাংলাদেশে আরও হামলার হুমকি দেওয়া হয় আইএসের নাম করে।  

এছাড়া গত ৭ জুলাই সকাল ৯ টার দিকে কিশোরগঞ্জের শোলাকিয়া ঈদগাহসংলগ্ন আজিমুদ্দিন উচ্চ বিদ্যালয়ের সামনে হাতবোমা বিস্ফোরণ ঘটিয়েছে দুর্বৃত্তরা। এ ঘটনায় জহিরুল ইসলাম (৩২) ও আনছারুল ইসলাম নামে দুই পুলিশ সদস্য, এক হামলাকারী ও  ঝর্ণা রাণী ভৌমিক (৩৪) নামের এক নারী নিহত হয়। ঘটনাস্থল থেকে এক আহতসহ ২ হামলাকারীকে আটক করেছে পুলিশ। 

আর/১৭:১৪/১০ জুলাই

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে