Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print
আপডেট : ০৭-১৮-২০১৬

তবে কি ব্যর্থ তিশা?

মিঠু হালদার


তবে কি ব্যর্থ তিশা?

ঢাকা, ১৮ জুলাই- এবারের ঈদে মুক্তি পেয়েছে তিশা অভিনীত ছবি ‘রানা পাগলা-দ্য মেন্টাল’। এ ছবি নিয়ে নুসরাত ইমরোজ তিশা দারুণ আশাবাদী থাকলেও দর্শকদের তেমন সাড়া পাননি। আবার দর্শকরাও ছবিটি দেখে হতাশা প্রকাশ করেছেন। তারা জানিয়েছেন, ছবির নায়িকা তিশা তাদের প্রত্যাশা পূরণ করতে ব্যর্থ হয়েছেন।

ছবিটি প্রেক্ষাগৃহে মুক্তির পর এক সপ্তাহের বেশি সময় ধরে দর্শকদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, ছোট পর্দার জনপ্রিয় ও দক্ষ অভিনেত্রী তিশাকে সেভাবে দর্শকরা গ্রহন করেননি। তাই স্বভাবতই এখন তিশা’র দর্শক-ভক্তদের সামনে বড় প্রশ্ন হয়ে দাঁড়িয়েছে, তবে কি ‘মেন্টাল’ময় তিশা ব্যর্থ? নাকি তিশা বাণিজ্যিকধারার দর্শকদের সামনে নিজেকে সেভাবে তুলে ধরতে পারছেন না?

১৯৯৫ সালে বিটিভির জনপ্রিয় অনুষ্ঠান ‘নতুনকুঁড়ি’র মাধ্যমে নিজের জানান দিয়েছিলেন নুসরাত ইমরোজ তিশা। পরবর্তীতে ‘এঞ্জেল ফোর’ নামের একটি ব্যান্ড দলও গঠন করেছিলেন। শুরুতে গান দিয়ে পরিচিত পেলেও এখন তিনি নাটকের অভিনেত্রী হিসেবেই প্রতিষ্ঠিত। আর নাটক থেকে সিনেমায় এসে শুরুতে জনপ্রিয়তা পেলেও তা ধরে রাখতে পারছেন না।

মোস্তফা সরওয়ার ফারুকীর পরিচালনায় ভিন্ন ধারার সিনেমা ‘থার্ড পার্সন সিঙ্গুলার নাম্বার’ ও ‘টেলিভিশন’ সিনেমায় অভিনয় করে ব্যাপক জনপ্রিয়তা পান এই অভিনেত্রী। এমন কি ‘টেলিভিশন’ ছবিটিতে তিশার অভিনয় দেখে সদ্য প্রয়াত ইরানি পরিচালক আব্বাস কিয়ারোস্তামিও বেশ প্রশংসা করেছিলেন। কিন্তু সেই জনপ্রিয়তায় যেন ভাটা পড়েছে পরবর্তী ছবিগুলোতে।

বাণিজ্যিকধারার ছবিতে এসে কমতে থাকে তিশার দর্শকপ্রিয়তা। অনন্য মামুনের ‘অস্তিত্ব’ ছবির মাধ্যমে তিশা তেমন আলোড়ন সৃষ্টি করতে পারেননি, যতটা পেরেছিলেন আগের সিনেমা দুটোয়। এরপর তিশা অপেক্ষায় ছিলেন ‘রানা পাগলা-দ্য মেন্টাল’ ছবিটি মুক্তির জন্য। তিনি আশা করেছিলেন এই ছবির মাধ্যমে দর্শকপ্রিয়তা ফিরে পাবেন। কিন্তু সেই আশায় গুড়েবালি! দর্শকরা এ ছবি দেখার পর আরও হতাশ হয়েছেন।


খুলনার ‘সঙ্গীতা’ প্রেক্ষাগৃহে মুক্তির পর ‘রানা পাগলা-দ্য মেন্টাল’ দেখতে গিয়েছিলেন বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া ছাত্র আফজাল হোসেন। তিনি বলেন, ‘আমি নাটকের অভিনেত্রী তিশাকে দেখে যতটা মুগ্ধ, কিন্তু সিনেমায় পর্দায় দেখার পর ততটাই হতাশ। আমার মনে হয়, কোথায় যেন একটা গলদধর্ম রয়েছে। আমি তো সাধারণ একজন দর্শক। তাই হয়তো সেভাবে তাত্ত্বিক কোনো বিশ্লেষণ দেখিয়ে কিছু বলতে পারব না। তবে বাংলাদেশের সিনেমার ক্ষেত্রে যে বিভাজন রয়েছে, অনেকেই বলেন বাণিজ্যিকধারা কিংবা বিকল্পধারা। সেদিন আমার সিনেমা দেখে মনে হয়েছে দর্শক ছোট পর্দার জনপ্রিয় তিশাকে এখনও সেভাবে গ্রহণ করতে পারেনি। কারণ সিনেমা চলাকালীন দর্শকদের যে ধরনের বক্তব্য শুনেছি, তাতেই বুঝা যায় বড়পর্দার জনপ্রিয় মুখ হতে তার এখনও অনেক সময় প্রয়োজন। আর তিশা’র নাটকে নিয়মিত অভিনয় করার যে বিষয় সেটিও হলের দর্শকরা বারবার চিৎকার করেই বলছিলেন।’

ঈদের ছুটিতে গ্রামের বাড়ি টাঙ্গাইলে গিয়েছিলেন রাজধানীর ঢাকার কচুক্ষেতের বাসিন্দা প্রীতি হোসেন। তিনি ঢাকায় একটি বেসরকারি ব্যাংকে কর্মরত রয়েছেন। যখন ঢাকায় ছিলেন তখন সিনেমাটির বিভিন্ন ধরনের প্রচার-প্রচারণা লক্ষ্য করেছিলেন। যার কারণে তখনই ঠিক করে রেখেছিলেন তিনি ঈদের ছুটিতে বাড়িতে গিয়ে সিনেমাটি দেখবেন। আর সেই ভাবনা থেকেই টাঙ্গাইলের ঐতিহ্যবাহী চম্পাকলী সিনেমা হলে তিনি তার পরিবার নিয়ে সিনেমাটি দেখেছেন।


প্রীতি হোসেন বলেন, ‘শাকিব খান অভিনীত বাণিজ্যিকধারার ছবিগুলোর ব্যবসায়িক সফলতা অনেক দিন ধরেই একই রথে চলছে। সেদিক থেকে তিশা এ ধারায় একেবারে নতুন। তবে তিশার 'থার্ড পারসন সিঙ্গুলার নাম্বার' আর 'টেলিভিশন' সিনেমা দুটি আমি দেখেছি। কিন্তু 'রানা পাগলা- দ্য মেন্টাল' দেখার পর সেরকম ভাল লাগেনি। মানে বলতে চাইছি, কোথাও একটা অপূর্ণতা অনুভব করেছি। আর তিশাকে নিয়ে সেখানকার দর্শকদের মন্তব্যও আমার কাছে পজেটিভ মনে হয়নি।’

এদিকে যমুনা ব্লকবাস্টারে বন্ধুদের নিয়ে সিনেমাটি দেখেছেন ঢাকার একটি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সম্প্রতি মাস্টার্সের শিক্ষার্থী লাইজুর রহমান মাসুদ। তিনি নিয়মিত বাংলা সিনেমা না দেখলেও সিনেমা সম্পর্কে খোঁজ খবর রাখেন। এ ছাড়া তিনি তিশার নাটকের ভক্ত। আর এবারের ঈদে প্রিয় অভিনেত্রীর সিনেমা মুক্তি পাচ্ছে, আর তা দেখা হবে না- কেমন কথা! তাই এবার ঈদের আগেই বন্ধুদের নিয়ে পরিকল্পনা করে রেখেছিলেন। সেই অনুযায়ী ঈদের সিনেমা মুক্তি পেলে প্রিয় অভিনেত্রী তিশার ‘রানা পাগলা-দ্য মেন্টাল’ সিনেমাটি প্রেক্ষাগৃহে গিয়ে দেখেন।

লাইজুর রহমান মাসুদ বলেন, ‘ছোট পর্দায় তিশার অভিনয় কিংবা উপস্থিতি দেখে এক রকমের ভাল লাগা কাজ করে। কিন্তু ‘রানা পাগলা-দ্য মেন্টাল’ দেখার পর সেরকম কোনো বিষয় মনে হয়নি। অনেকটা বলতে পারেন হতাশই হয়েছি। তারপরও তিশার জন্যে শুভকামনা রইল।’


যারা নিয়মিত হলে গিয়ে সিনেমা দেখেন, এমন দশজনের সঙ্গে কথা হয় যারা ‘রানা পাগলা-দ্য মেন্টাল’ ছবিটি নিয়ে। যারা প্রত্যেকেই ছবিটি দেখেছেন। বাণিজ্যিক ঘরানার ছবিতে তিশা দর্শকদের কাছে ঠিক কতটুকু নিজের অবস্থান তৈরি করতে পেরেছেন? এমন প্রশ্নে তারা জানান, ছোট পর্দার জনপ্রিয় অভিনেত্রী তিশা বাংলা সিনেমার বাণিজ্যিকধারায় এসে তাদের মন ভরাতে পারেনি। তাদের বেশিরভাগই হতাশ হয়েছেন। তবে তারা আশা করছেন, ভবিষ্যতে এ ধারার ছবিতে তিশা তার দক্ষতা দিয়ে দর্শকদের প্রত্যাশা পূরণ করবেন।

এবারের ঈদে বাণিজ্যিক সিনেমার দর্শকরা তিশাকে ঠিক কীভাবে নিয়েছে, এ বিষয়ে জানতে চাইলে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র প্রদর্শক সমিতির সাধারণ সম্পাদক মিয়া আলাউদ্দিন প্রিয়.কমকে বলেন, ‘বণিজ্যিক সিনেমায় নায়িকাদের যে দর্শকপ্রিয়তার বিষয়টি থাকে সেটি এখনও তিশার ললাটে লাগেনি। তবে ‘অস্তিত্ব’র পর এবার ‘রানা পাগলা-দ্য মেন্টাল’ মুক্তির পর ছোট পর্দায় তিশার যে অবস্থান আমরা ভেবেছিলাম, দর্শক তাকে এখানে সেভাবে গ্রহণ করেনি।’

তিনি আরও বলেন, ‘এছাড়া অনেকটা সময় পেরিয়ে গেলেও আমরা সেভাবে তাকে ঘিরে দর্শকদের যে উন্মাদনা আশা করেছিলাম সেটিও পাইনি। তিশা তো ভার্সেটাইল অভিনেত্রী। তবে এ ধারার সিনেমায় তাকে জনপ্রিয়তা পেতে হলে যে পরিচালকরা নিয়মিত ভাল মানের বাণিজ্যিক সিনেমা নির্মাণ করছেন, তাদের ছবিতে তিশাকে অভিনয় করতে হবে।’

এফ/১৬:৪২/১৮জুলাই

ঢালিউড

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে