Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 1.5/5 (2 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print
আপডেট : ০৭-১৬-২০১৬

ফেসবুকের মাধ্যমে শিশু সন্তান ফিরে পেলেন মা

ফেসবুকের মাধ্যমে শিশু সন্তান ফিরে পেলেন মা

প্যারিস, ১৬ জুলাই- ফ্রান্সের দক্ষিণাঞ্চলীয় নিস শহরে বাস্তিল দিবসের উৎসবে জড়ো হওয়া জনতার ওপর দ্রুত গতিতে ট্রাক চালিয়ে দেওয়ার সময় হুড়োহড়িতে আট মাসের শিশু ছেলেকে হারিয়ে ফেলেন মা তিয়াভা ব্যানার। তবে সামাজিক মাধ্যম ফেসবুকে শিশু সন্তানের ছবি পোস্ট করলে হারানো শিশুটিকে খুঁজে পান মা।

ওই মর্মান্তিক হামলার সময়ই শিশুটিকে হারিয়ে ফেলেন ব্যানার। মাত্র আটমাসের শিশু সন্তান হারিয়ে পাগল প্রায় অবস্থা ছিল ব্যানারের। বারবারই তার মনে হচ্ছিল হামলার সময় হয়তো মারাই গেছে তার সন্তানটি। শেষ পর্যন্ত যখন আদরের বাচ্চাটির খোঁজ পাচ্ছিলেন না, তখন তিনি সামাজিক গণমাধ্যম ফেসবুকে শিশুর ছবি সহ একটি পোস্ট পোস্ট করে তিনি লিখেন, ‘আমরা আমাদের আটমাসের শিশু সন্তানটিকে ট্রাক হামলার সময় হারিয়ে ফেলেছি, নিসের কোনো বন্ধু বা সহৃদয়বান ব্যক্তি আমাদের শিশুকে পেলে যোগাযোগ করুন।’

ব্যানারের ফেসবুক পোস্টটির পর তা দ্রুত শেয়ার হতে থাকে, কিছুক্ষণের তা কমপক্ষে ২২ হাজার ব্যক্তি শেয়ার করে শিশুটিকে ফিরে পেতে। এর অল্প কিছুক্ষণ পরেই ব্যানার দম্পক্তির জন্য আসে সন্তান ফিরে পাওয়ার খবর। জয় রুজ নামক এক মহিলা আটমাসের ওই শিশুটিকে উদ্ধার করেন।

ব্যানারের পরিবারের একজন সংবাদ সংস্থা এএফপিকে বলেন, দুর্ঘটনাস্থলে রুজ নামের মহিলা শিশুটিকে উদ্ধার করে তার বাসায় নিয়ে যায়। পরে তিনি অনলাইন হলে ফেসবুক শেয়ারে শিশু বাচ্চাটির ছবিসহ ব্যানারের পোস্ট দেখতে পান, পরে তিনি ব্যানারের সঙ্গে যোগাযোগ করেন।

সন্তান ফিরে পাওয়ার খুশীতে পুনরায় ফেসবুকে পোস্ট করে ব্যানার বলেন, খুঁজে পেয়েছি!!!ধন্যবাদ মিসেস জয় রুজ। এছাড়াও জয় রুজ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুককে ধন্যবাদ জানান। সঙ্গে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন যারা তার পোস্টটি শেয়ার করেছেন। ব্যানার তার পোস্টে আরও জানান, ওই নৃশংস হামলায় যারা শিকার ও আহত হয়েছে সবার পরিবারের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করেন।

নিস শহরে উৎসব চলাকালীন সময়ে ওই হামলায় কমপক্ষে বারোটি পরিবার তাদের সন্তানকে খুঁজে পেতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে এখনো চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।

ফ্রান্সের নিস শহরে বাস্তিল দিবসের উৎসবে জনতার ওপর দিয়ে দ্রুত গতিতে ট্রাক চালিয়ে ১০জন শিশুসহ ৮৪ জন নিহত হয়। আহত অবস্থায় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন কমপক্ষে ৫০০ জন, তাদের মধ্যে ৫৪ জন শিশু রয়েছে।

এফ/০৯:৩৫/১৬ জুলাই

বিচিত্রতা

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে