Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 1.5/5 (2 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print
আপডেট : ০৭-১৪-২০১৬

সেই লর্ডসেই টেস্টে ফিরছেন মোহাম্মদ আমির

সেই লর্ডসেই টেস্টে ফিরছেন মোহাম্মদ আমির

লর্ডস, ১৪ জুলাই- ক্রীড়া প্রতিবেদক: আজ থেকে ইংল্যান্ডের ঐতিহাসিক লর্ডসে শুরু হচ্ছে বহুল আলোচিত ক্রিকেটের দুই পরাশক্তি দল পাকিস্তান এবং ইংল্যান্ড ৪ ম্যাচ টেস্ট সিরিজের প্রথম টেস্টে।

ছয় বছর আগে ঠিক এই লর্ডসেই বিখ্যাত সেই ‘নো’ বল করে জেল পর্যন্ত খেটেছেন, নিষেধাজ্ঞা ভোগ করেছেন মোহাম্মদ আমির। আজা আবারও সেই লর্ডসে ফিরছেন তিনি।

সিরিজের প্রথম টেস্টে আজ বাংলাদেশ সময় বিকাল ৪টায় মাঠে নামবে দুই দল। আর এ ম্যাচেই ২০১০ সালের স্পট ফিক্সিং কেলেংকারী ধুয়ে মুছে ফেলার আশা করবেন পাকিস্তানি পেসার মোহাম্মদ আমির।

ইংল্যান্ডের বিপক্ষে একটি ট্যাবলয়েড পত্রিকার স্টিং অপরারেশনের অংশ হিসেবে তত্কালীন অধিনায়ক সালমান বাটের নির্দেশে আমির এবং তার নতুন বল পার্টনার মোহাম্মদ আসিফ ইচ্ছাকৃত নো-বল করেছিলেন। ফলে তিনজনই ক্রিকেটে পাঁচ বছরের জন্য নিষিদ্ধ হন এবং তাদের স্পোর্টস এজেন্ট মাজহার মজিদসহ সকলেই জেল খাটেন।

ফলে ক্রিকেট বিশ্বে শুরু হয় তুমুল বিতর্ক। যার ফলে প্রথম ইনিংসে টিনএজ শেসসেশন আমিরের ৮৪ রানে ৬ উইকেট শিকারের কৃতিত্ব প্রায় ভুলেই গেছে ক্রিকেট বিশ্ব। সে দিনের কিশোর আজ ২৪ বছরের আমির দীর্ঘ দিন ক্রিকেটের বাইরে থাকলেও সমারসেটের বিপক্ষে পাকিস্তানের প্রথম অনুশীলন ম্যাচে ৩৬ রানে ৩ উইকেট শিকার করে নিজের বোলিং ক্ষমতার প্রমাণ দিয়েছেন।

পক্ষান্তরে এ ম্যাচে ইনজুরির কারণে দেশের হয়ে সর্বোকালের সর্বোচ্চ উইকেট শিকারি জেমস এন্ডারসন এবং অলরাউন্ডার বেন স্টোকসকে দলে পাচ্ছে না ইংল্যান্ড।

এদিকে পাকিস্তানের সাবেক অধিনায়ক রমিজ রাজার মত ব্যক্তি পুনরায় আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফেরা আমিরের প্রজ্ঞা সম্পর্কে সন্দেহ প্রকাশ করেছেন। অবশ্য উভয় দলের খেলোয়াড়রাই বর্তমান অবস্থাকে মেনে নিয়েছেন।

ইংল্যান্ড ব্যাটসম্যান জো রুট বলেন, ‘আমরা কথা বলতে পারি কিংবা আমাদের মতামত প্রকাশ করতে পারি। তবে প্রকৃত সত্য হচ্ছে চার টেস্টের পুরো সিরিজে আমাদের বিপক্ষে তাঁর (আমির) বোলিং শুরু করায় কোনো পরিবর্তন হবে না।’ বাঁ-হাতি পেসার ওয়াহাব রিয়াজ ও সোহেল খান এবং লেগ স্পিনার ইয়াসির শাহকে নিয়ে পাকিস্তান বোলিং আক্রমণ গঠিত হলেও ইংল্যান্ডের জন্য সবচেয়ে হুমকি হতে পারেন আমির।

পুরো সিরিজেরই মুখ্য হয়ে উঠতে পারেন উভয় দলের টপ অর্ডার ব্যাটসম্যানরা। সম্প্রতি নিজ মাঠে শ্রীলংকার বিপক্ষে ২-০ ব্যবধানে জয় পাওয়া সিরিজে বার বারই ইংল্যান্ডের টপ অর্ডার ব্যর্থ হয়েছে। কিন্তু বারবারই উদ্ধার করেছেন মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান জনি বেয়ারস্টো।

অধিনায়ক মিসবাহ উল হক, বর্ষীয়ান ইউনিস খান এবং ফর্মের তুঙ্গে থাকা আসাদ শফিককে নিয়ে গঠিত পাকিস্তানের মিডল অর্ডারও বেশ শক্তিশালী। পক্ষান্তরে ইংল্যান্ড অধিনায়ক এলিস্টার কুকের সঙ্গী এখন পর্যন্ত টেস্ট ক্রিকেটে সেঞ্চুরির দেখা না পাওয়া এ্যালেক্স হেলকে নিয়ে কিছুটা চিন্তিত ইংলিশরাও।

ইংল্যান্ড ব্যাটিং অর্ডারে তিন নম্বরে উঠে আসা রুটকে লক্ষ্য বস্তুতে পরিনত করতে চান রক্ষণশীল রিয়াজ। রুট সম্পর্কে রিয়াজ বলেন, ‘দলের মেরুদণ্ড হচ্ছেন তিনি এবং তাকে শুরুতেই ফিরিয়ে দিতে পারলে ইংল্যান্ডকে চাপে রাখা যাবে।’ আমিরের প্রতি দৃষ্টি ফিরিয়ে রিয়াজ বলেন, ‘সে খুবই চতুর বোলার এবং খুব শক্তিশালী ছেলে.. পারফর্ম করার জন্য সে মুখিয়ে আছে।’

দুই পেসার জ্যাক বেল অথবা টবি রোল্যান্ড জোন্স এর মধ্যে কাকে টেস্ট ক্যাপ পড়ানো হবে সে বিষয়েও সিদ্ধান্ত নিতে হবে ইংল্যান্ডকে। গত বছর বাদ পড়ার পর এ ম্যাচ দিয়েই টেস্ট ক্রিকেটে ফিরছেন ইংল্যান্ড ব্যাটসম্যান গ্যারি ব্যালেন্স।

তবে এ সকল বিষয়ে মোটেই ভাববে না ওয়াহাব রিয়াজ। তিনি বলেন, ‘ইংল্যান্ড দলে কে থাকল আর কে থাকল না তা নিয়ে আমরা মোটেই চিন্তিত নই। আমরা কেবল একটা বিষয় জানি নিজ কন্ডিশনে ইংল্যান্ড একটা ভাল দল। নিজেদের সম্পর্কে ওয়াহাব বলছিলেন, ‘আমরা পাকিস্তান ক্রিকেটের কঠিন সময় দেখেছি। পাকিস্তান একটি ভাল দল। বিশ্বব্যাপি মানুষকে আমরা সেটা বুঝাতে সক্ষম হয়েছি। পাকিস্তান একটি শক্ত দল সব সময়ই আপনার বিপক্ষে কঠিন লড়াই করতে পারে।’-বাসস

আর/১৭:১৪/১৪ জুলাই

ক্রিকেট

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে