Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print
আপডেট : ০৭-১৩-২০১৬

শিশুর ADHD হওয়ার অজানা কিছু কারণ

সাবেরা খাতুন


শিশুর ADHD হওয়ার অজানা কিছু কারণ

এটেনশন ডিফিসিট হাইপারএক্টিভিটি ডিজঅর্ডার (ADHD )একটি মানসিক ব্যাধি। যা হলে যেকোন কাজে মনোযোগ দিতে সমস্যা দেখা যায়, শিশু অত্যধিক স্নায়বিক উত্তেজনায় ভোগে, হাইপারএক্টিভিটি এবং আবেগপ্রবণ আচরণ করতে দেখা যায়। সাধারণত ৬-১২ বছরের শিশুদের ADHD তে পীড়িত হতে দেখা যায়। এটি হলে স্কুলে শিশুর পারফরমেন্সের উপর সরাসরি প্রভাব ফেলে। বিভিন্ন গবেষণায় দেখা গেছে যে, ৬টি কারণে শিশু ADHD তে আক্রান্ত হতে  পারে। কারণগুলো জেনে নিই চলুন।

১। অসংশোধিত দৃষ্টির সমস্যা
যে শিশুদের চোখের স্বাস্থ্য ভালো তাদের চেয়ে যে শিশুরা চোখের সমস্যায় ভোগে তাদের যেমন- চোখের প্রান্তের সমস্যা বা চোখ নাড়াচাড়ায় সমস্যা থাকলে তাদের ADHD তে ভোগার প্রবণতা বেশি দেখা যায়। আমেরিকান একাডেমী ফর অপ্টোমেট্রিতে প্রকাশিত গবেষণা প্রতিবেদনে জানা যায় যে, দৃষ্টিশক্তির সমস্যা আছে এমন শিশুদের ১৫% এর ADHD হওয়ার সম্ভাবনা থাকে।

২। মস্তিষ্কে আঘাত পেলে
গবেষকদের মতে, মাথায় আঘাত পাওয়ার ইতিহাস থাকলে ADHD তে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি দ্বিগুণ বৃদ্ধি পায়। ADHD  শুরু হয় শিশুকালে কিন্তু এটি বয়স্ক অবস্থা পর্যন্ত থেকে যাওয়ারও সম্ভাবনা থাকে।

৩। শিশু নির্যাতন
গবেষণায় জানা যায় যে, যে সকল নারী ও পুরুষেরা ADHD র সমস্যায় ভোগেন তারা শিশুকালে শারীরিক নির্যাতনের শিকার হয়েছিলেন।

৪। উচ্চমাত্রার চর্বিযুক্ত খাবার খাওয়ার অভ্যাস
আপনি আপনার সন্তানকে যা খাওয়ান তার সরাসরি প্রভাব পরে তার মানসিক ও আবেগীয় ভালো থাকার উপর। উচ্চমাত্রার ফ্যাটযুক্ত খাবারের সাথে ADHD এর লক্ষণ যেমন- অমনোযোগীতা ও অধিক সক্রিয়তার সাথে সম্পর্কিত।

৫। প্রিম্যাচিউর বার্থ
পরিপূর্ণ বৃদ্ধির অভাবের কারণে প্রিম্যাচিউর শিশুদের অ্যাংজাইটি ডিজঅর্ডার এবং ADHD হওয়ার  ঝুঁকিতে থাকে। তবে বিজ্ঞানীদের মতে প্রিম্যাচিউর শিশুদের ADHD হওয়ার ঝুঁকি শিশু অবস্থায় বা বয়স্ক অবস্থায় খুবই কম থাকে। ৮৪ জন বয়স্ক মানুষ যারা ছিলেন প্রিম্যাচিউর বেবি তাদের মধ্যে মাত্র ৮ জনের ADHD তে ভুগতে দেখা যায়।

৬। প্রেগনেন্সির সময় স্ট্রেস
প্রেগনেন্সির সময় স্ট্রেস কঠোরভাবে নিয়ন্ত্রণ করা উচিৎ। নাহলে গর্ভজাত শিশুর নিউরোবিহেভিয়ারাল  ডেভেলপমেন্টের সমস্যা দেখা দিতে পারে। অর্থাৎ আপনার শিশুর ADHD হওয়ার প্রবণতা বৃদ্ধি পায় এবং এমনকি অটিজম ও হতে পারে।     

মেয়েদের চেয়ে ছেলে শিশুদের ADHD হওয়ার ঝুঁকি দ্বিগুণ থাকে। বেশি পরিমাণে টিভি দেখার ফলে ও জিনগত কারণেও ADHD হতে পারে। এটি নির্ণয়ের জন্য কোন ল্যাব টেস্ট নেই। ডাক্তার হয়তো শিশুকে কিছু প্রশ্ন করবেন, পিতামাতার বর্ণনা শুনবেন এবং শিক্ষকের মতামত নেবেন।  

বিহেভিয়ারাল থেরাপির মাধ্যমে শিশুর নেতিবাচক আচরণগুলো চিহ্নিত করে তা পরিবর্তনের চেষ্টা করা যায়। সাইকোথেরাপির মাধ্যমে আক্রান্ত ব্যক্তির নিজের প্রতি ভালোবাসা সৃষ্টি করে রোগমুক্ত হতে সাহায্য করা যায়। সামাজিক দক্ষতা বৃদ্ধির মাধ্যমে অন্যদের সাথে মেশার ক্ষমতা বৃদ্ধি করা যায়। প্যারেন্টিং স্কিল ট্রেইনিং এর মাধ্যমে পিতামাতা ADHD তে আক্রান্ত শিশুর রক্ষণাবেক্ষণ সঠিকভাবে করতে পারেন এবং শিশুর দক্ষতা বৃদ্ধিতেও সাহায্য করে।  

লিখেছেন- সাবেরা খাতুন

এফ/১৭:৪০/১৩জুলাই

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে