Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print

আপডেট : ০৭-১৩-২০১৬

জঙ্গি দমনে বিএনপির সঙ্গে ঐক্য করতেই হবে

জঙ্গি দমনে বিএনপির সঙ্গে ঐক্য করতেই হবে

ঢাকা, ১৩ জুলাই- জঙ্গিবাদ উগ্রবাদকে দলীয় নয়, জাতীয় সমস্যা উল্লেখ করে বিএনপির শীর্ষ নেতারা বলেছেন, আইনশৃঙ্খলা বাহিনী বা সেনাবাহিনী দিয়ে নয়, জঙ্গিবাদ প্রতিহত করতে জাতীয় ঐক্যের কোনো বিকল্প নেই। আর বিএনপিকে বাইরে রেখে জাতীয় ঐক্য কোনোভাবেই সম্ভব নয়। 

সম্প্রতি ঢাকার গুলশান এবং কিশোরগঞ্জের শোলাকিয়ার যে জঙ্গি হামলার ঘটনা ঘটেছে এরই প্রেক্ষিতে রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনে আয়োজিত শোকসভায় বিএনপি নেতারা এসব কথা বলেন। শোকসভার আয়োজন করে ঢাকা মহানগর বিএনপি।

গতকাল সোমবার (১১ জুলাই) ক্ষমতাসীন জোটের উদ্যোগে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার চত্বরে জঙ্গিবিরোধী প্রতিরোধ সমাবেশ হয়। এর একদিন পরই মঙ্গলবার (১২ জুলাই) বিকেলে বিএনপি তাদের জোটের শরিক দলগুলোকে বাইরে রেখে এ শোকসভার আয়োজন করে।   

গুলশানের হলি আর্টিসানে হামলার ঘটনা নিয়ে দোষারোপের রাজনীতি করা হলে প্রকৃত জঙ্গিদের দমন করা যাবে না বলে মন্তব্য করে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, ‘২০০১ সালে আমরা ক্ষমতায় আসার পর বাংলাদেশকে ব্যর্থ রাষ্ট্র হিসেবে বিদেশি কয়েকটি পত্রিকা প্রচার-প্রচারণা শুরু করেছিলো। দেশীয় কয়েকটি পত্রিকায়ও তা প্রকাশ করেছিলো।’ 

তিনি বলেন, ‘যখনই কোনো ঘটনা ঘটে তখনই আওয়ামী লীগের লোকেরা এর জন্যে বিএনপি-জামায়াতকে দায়ী করে বক্তৃতা করেন। বিরোধী দলকে দায়ী করে জনগণের দৃষ্টি ভিন্ন দিকে ফেরানোর চেষ্টা বন্ধেরও আহ্বান জানান ফখরুল।

তিনি বলেন, ‘দেশে এসব হত্যাকাণ্ড বন্ধ করতে হলে খালেদা জিয়ার ডাকে দলমত নির্বিশেষে জাতীয় ঐক্য গড়ে তুলতে হবে। তাহলেই এসব হত্যাকাণ্ড বন্ধ করা সম্ভব।’ গুলশানের হলি আর্টিসান রেস্টুরেন্টে সন্ত্রাসী হামলার ঘটনায় বাংলাদেশের রাজনীতিতে ভূমিকম্পের সৃষ্টি হয়েছে বলেও মন্তব্য করেন বিএনপি মহাসচিব।

ইউটিউবে প্রচারিত কথিত উগ্রবাদী ৩ তরুণের ভিডিও দেখে আতঙ্ক প্রকাশ ফখরুল বলেন, ‘এই ঘটনায় দেশবাসী আতঙ্কিত। অবশ্য বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া বলেছিলেন, গণতন্ত্রের প্রতি আঘাত হানার পর যে অস্থিতিশীল পরিস্থিতির সৃষ্টি হবে গোটা জাতি তাতে আক্রান্ত হবে।’ তিনি ওই ৩ তরুণকে ‘বিভ্রান্ত’ বলে আখ্যা দেন।

শোকসভায় দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য মওদুদ আহমেদ বলেন, ‘দোষারোপের রাজনীতি দিয়ে জঙ্গিবাদ উগ্রবাদ দমন করা যাবে না। এতে তাদের লালন পালন হবে। আইনশৃঙ্খলা বাহিনী কিংবা সেনাবাহিনী দিয়েও জঙ্গিবাদ দমন সম্ভব নয়। জঙ্গিবাদ দমনে গণতান্ত্রিক পরিবেশ দরকার। জাতীয় ঐক্য দরকার।’ 

সভাপতির বক্তব্যে সরকারের দুই মন্ত্রী মেনন-ইনুর জন্য পুরস্কার ঘোষণা করে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস বলেন, ‘সরকারের এই দুই মন্ত্রী যদি বিএনপিকে ‘না বকে’ ভালো ব্ক্তব্য দিতে পারে তবে তাদের পুরস্কার দেবো। পুরস্কার হিসেবে এই দুই মন্ত্রীকে ঢাকা-আমেরিকার ফ্লাইটের টিকিট ফ্রি দেবো।’

গুলশান হামলার ঘটনায় বিএনপির দায়িত্বশীল ভূমিকার কথা স্পষ্ট করে আব্বাস বলেন, ‘হামলার ঘটনার পর বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া স্থায়ী কমিটির জরুরি বৈঠক ডেকেছেন, প্রেস ব্রিফিং করেছেন, জাতীয় ঐক্যের আহ্বান জানিয়েছেন। তিনি ক্ষমতায় যাওয়ার জন্য জাতীয় ঐক্যের আহ্বান জানাননি।’

আরেক স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেন, ‘ক্ষতিগ্রস্ত রাষ্ট্রগুলো জানে, গুলশানের ঘটনায় কারা জড়িত। সবখানে বলছে এটা সরকারের নাটক। সরকার এ ঘটনা ঘটাক বা না ঘটাক, জনগণ মনে করছে এটা সরকারের নাটক। গুলশানের ঘটনায় সেনাবাহিনীকে কেন দেরিতে নামানো হয়েছে জনগণের মধ্যে সে প্রশ্নও তৈরি হয়েছে।’ জঙ্গিবাদ উগ্রবাদ দমনে জাতীয় ঐক্যের কথা বলে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীসহ সকল প্রতিষ্ঠানকে নিরপেক্ষভাবে কাজ করতে হবে বলেও মত দেন তিনি।

গুলশান হামলায় নিহতদের স্মরণে ১২ জুলাই বিএনপি ঘোষিত দেশব্যাপী শোক দিবস উপলক্ষে শোকসভায় শোক প্রস্তাব পাঠ করেন দলের ছাত্রবিষয়ক সম্পাদক শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানি। শোক প্রস্তাব পাঠের পর নেতাকর্মীরা হাত তুলে তা সমর্থন করেন।

শোকসভায় অন্যদের মধ্যে দলের ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল্লাহ আল নোমান, যুগ্ম মহাসচিব মাহাবুব উদ্দিন খোকন, মজিবর রহমান সরোয়ার; সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্স, সাখাওয়াত হাসান জীবন, বিলকিস জাহান শিরিন, আব্দুস সালাম আজাদ এবং সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক শহীদুল ইসলাম বাবুল প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

এফ/০৭:৪৫/১৩জুলাই

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে