Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print
আপডেট : ০৭-০৯-২০১৬

শ্রদ্ধা জানাতে ৭৯ নম্বরে আসছে মানুষ

শ্রদ্ধা জানাতে ৭৯ নম্বরে আসছে মানুষ

ঢাকা, ০৯ জুলাই- রাজধানীর মালিবাগ থেকে আসা বিনয় তালুকদার ও তাঁর পরিবারের সদস্যরা গভীর শ্রদ্ধায় দুই হাত জোর করে মাথা নত করে থাকলেন কিছুক্ষণ। প্রার্থনা শেষে চলে গেলেন তাঁরা। সিলেটের ব্যবসায়ী জাকির আহমদ চৌধুরী স্ত্রী, চার ছেলেমেয়ে এবং ভাইয়ের চার ছেলেমেয়েকে নিয়ে এসেছেন। সবাই মিলে একটি ছবিও তুললেন। সামনে দিয়ে গাড়ি, সিএনজিচালিত অটোরিকশা, রিকশা বা মোটরসাইকেলে চলাচলকারী যাত্রীরা ক্ষণিকের জন্য থেমে যাচ্ছেন, তারপর আবার গন্তব্যে রওনা দিচ্ছেন।

আজ শনিবার দুপুরে গুলশান-২ এর ৭৯ নম্বর সড়কের প্রবেশমুখে ব্যারিকেডের সামনে এসে এভাবেই শ্রদ্ধা জানাচ্ছিলেন বিনয় তালুকদারসহ অন্যরা।

১ জুলাই এ সড়কের হলি আর্টিজান রেস্তোরাঁয় জঙ্গি হামলার ঘটনা ঘটে। এতে ১৭ জন বিদেশি, ৩ জন বাংলাদেশি ও পুলিশের ২ কর্মকর্তা নিহত হন। পরে কমান্ডো অভিযানে পাঁচ জঙ্গি ও রেস্তোরাঁর এক কর্মী নিহত হন। ঘটনার পর পার হয়েছে এক সপ্তাহ।

ঘটনার পর থেকেই রেস্তোরাঁ পর্যন্ত যাওয়ার সড়কের মুখে ব্যারিকেড দিয়ে রাখা হয়েছে। পুলিশি তল্লাশির মধ্য দিয়ে ব্যারিকেডের ভেতরে যেতে পারছেন শুধু এলাকাবাসী। তদন্তের স্বার্থে বিশেষ অনুমতি নিয়ে ঘটনাস্থলে যাচ্ছেন সরকারের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।

ব্যারিকেডের মুখেই একটি সাদা ব্যানারে বাংলাদেশি ও বিদেশি নিহত ২০ জনের হাসি মুখের সাদা-কালো ছবি লাগানো। চারপাশে বড় বড় ব্যানারে শোকের কথা। একই সঙ্গে দেশ থেকে জঙ্গিবাদ দূর করারও প্রত্যয়।

ইউনাইটেড হাসপাতালের কাস্টমার রিলেশন সুপারভাইজার আসমা ফাতিমা ঘটনার পরদিন শনিবার সকাল সাতটার দিকে কর্মক্ষেত্রে যাওয়ার সময় এখানেই আটকা পড়েছিলেন। কেননা তখন চলছিল কমান্ডো বাহিনীর অভিযান। এরপর থেকে প্রতিদিনই তিনি কাজ শেষে ফেরার পথে এখানে কিছুটা সময় দাঁড়ান।

ওই দিনের অভিজ্ঞতা উল্লেখ করে আসমা প্রথম আলোকে বলেন, ‘মৃত্যুভয় কী জিনিস, ওই দিন টের পেয়েছি।’ মানবিকতা, ধর্মের নামে চালানো জঙ্গি হামলা এবং বিশেষ করে নিহত তরুণ জঙ্গিদের প্রসঙ্গ টেনে তিনি বলেন, ‘এই জঙ্গিদের বয়স কম। তাদের যে বয়স, তাদের তো রাত জেগে সিনেমা দেখার কথা। যাকে ভালোবাসে হাত কেটে তার নাম নিজের হাতে লেখার কথা। ঘনঘন ফেসবুকের প্রোফাইল পিকচার পরিবর্তন করার কথা। তা না করে তারা যা করল, তাতে তারা নিজেরা মরল, পরিবারকেও শেষ করে দিয়ে গেল।’

প্রতিবেদকের কাছ থেকে বিদায় নেওয়ার সময় আসমা ফাতিমা বলেন, ‘দোয়া করবেন, সবার মস্তিষ্কটা যাতে সুস্থ থাকে।’

সিলেটের ব্যবসায়ী জাকির আহমদ চৌধুরী জানালেন, সিলেট থেকে পরিবার পরিজন নিয়ে ঢাকায় এসেছেন শুধু গুলশানের এ জায়গায় আসার জন্যই।

মনোয়ারা ব্যারিকেডের ভেতরে একটি বাড়িতে ছুটা বুয়ার কাজ করেন। তিনি জানালেন, ঘটনার পর ভেতরে ঢুকতে গেলে পুলিশ বলে, ‘বুয়ারে চেক কর।’ এখনো প্রতিদিন তল্লাশি করে ভেতরে ঢুকতে দেয় পুলিশ।

ভেতর থেকে বের হওয়া অন্য দু-একজন সদস্যের সঙ্গে কথা বলার চেষ্টা করা হলেও তাঁরা কথা বলতে রাজি হননি। তবে সংক্ষেপে একজন শুধু বললেন, ভেতরে থাকা বাসিন্দাদের আতঙ্ক বেশ খানিকটা কমে এসেছে। জীবনযাত্রা আবার স্বাভাবিক হতে শুরু করেছে।

ঘটনার পর থেকেই ব্যারিকেডের ভেতরে নারী ও পুরুষ পুলিশ সদস্যরা ২৪ ঘণ্টা দায়িত্ব পালন করছেন। একজন পুলিশ সদস্য জানালেন, স্পর্শকাতর জায়গায় পুলিশদের কখনো দুই দিন ডিউটি দেওয়া হয় না। আজ যাঁরা দায়িত্ব পালন করবেন পরে আর তাঁরা এ দায়িত্ব পাবেন না। সাধারণ জনগণ, গণমাধ্যমের কর্মীদের মতো দায়িত্বরত পুলিশ সদস্যদেরও ঘটনাস্থল পর্যন্ত যাওয়ার অনুমতি নেই।

আর/১০:২৪/০৯ জুলাই

জাতীয়

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে