Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print

আপডেট : ০৭-০৯-২০১৬

মক্কার খতিবকে ঢাকায় আনার চেষ্টা: আলেমদের মধ্যে প্রতিযোগিতা

সালমান তারেক শাকিল


মক্কার খতিবকে ঢাকায় আনার চেষ্টা: আলেমদের মধ্যে প্রতিযোগিতা
মসজিদুল হারামের ইমাম ড. শায়খ আবদুর রহমান আস সুদাইসি

ঢাকা, ০৯ জুলাই- মক্কার মসজিদুল হারামের ইমাম ড. শায়খ আবদুর রহমান আস সুদাইসিকে বাংলাদেশ সফরে নিয়ে আসাকে কেন্দ্র করে কয়েকটি ধর্মভিত্তিক রাজনৈতিক দল ও সংগঠনের মধ্যে প্রতিযোগিতা শুরু হয়েছে। বাংলাদেশ তরিকত ফেডারেশন ও জমিয়তুল উলামা নিজ নিজ ব্যানারে মক্কার ইমামকে বাংলাদেশে এনে আলেমদের মধ্যে জঙ্গিবাদবিরোধী প্রচারণা চালাতে চায়।

জানা গেছে, ১৪ দলীয় জোটের শরিক তরিকত ফেডারেশন চায় এ বছরের শেষ দিকে দলটির আন্তর্জাতিক জঙ্গিবাদবিরোধী সম্মেলনে মক্কার ইমামকে আনতে। গত বছর আন্তর্জাতিক সূফি সম্মেলন করলেও এ বছর জঙ্গিবাদ ও বিশ্বব্যাপী ইসলামের নামে সন্ত্রাসের বিষয়টিকে প্রাধান্য দেওয়ার ইচ্ছা দলটির নীতিনির্ধারকদের। চলতি বছরের শেষ দিকে এ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হতে পারে।

তরিকত ফেডারেশন সূত্রে জানা গেছে, গত বছরের মতো এবারের সম্মেলনেও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অংশ নেবেন। মক্কার ইমাম ড. সুদাইসির সঙ্গে শিডিউল নিশ্চিত হলেই সম্মেলনের দিনক্ষণ চূড়ান্ত করবে তরিকত।

দলটির প্রেসিডিয়ামের একজন সদস্য জানান, এবারের জঙ্গিবাদবিরোধী সম্মেলনে প্রধান আকর্ষণ করতেই মক্কার ইমামকে আনতে চায় তরিকত। গত ২৬ মে তরিকতের একটি শক্তিশালী প্রতিনিধি দল সৌদি আরব যায় এ নিয়ে আলোচনা করতে। ওই প্রতিনিধি দলে দলটির মহাসচিব এম এ আউয়াল এমপি, প্রেসিডিয়ামের সদস্য সৈয়দ রেজাউল হক চাঁদপুরী, সৈয়দ মুতাওয়াক্কিল বিল্লাহ রাব্বানীসহ মোট ৬ জন ছিলেন।

প্রতিনিধি দলে থাকা একজন সদস্য জানান, ড. সুদাইসি এর আগেও বাংলাদেশে এসেছিলেন। আমরা চেষ্টা করছি। প্রাথমিক আলোচনাও হয়েছে।

জানতে চাইলে তরিকত ফেডারেশনের মহাসচিব এম এ আউয়াল বলেন, আমরা ওমরা হজে গিয়েছিলাম। তবে মক্কার ইমাম একজন সর্বজন শ্রদ্ধেয় ব্যক্তিত্ব। বাংলাদেশের মানুষ তাকে পেলে খুশি হবে। আমরা চেষ্টা করব মানুষ যেন খুশি হয়। তবে আলোচনা কতদূর হয়েছে, জানতে চাইলে তিনি বলেন, এসব বিষয় পরে জানানো হবে।


মসজিদুল হারামের ইমাম ড. শায়খ আবদুর রহমান আস সুদাইসি

এদিকে মসজিদুল হারামের ইমাম ড. সুদাইসিকে বাংলাদেশে আনার ব্যাপারে মত প্রকাশ করেছেন সোলাকিয়া ঈদগাহের খতিব মাওলানা ফরীদ উদ্দীন মাসঊদ। সম্প্রতি জঙ্গিবাদবিরোধী লাখো আলেমের ফতোয়া প্রকাশ অনুষ্ঠানে মক্কার ইমামকে বাংলাদেশে আনার ইচ্ছার কথা জানান। তার দাবি ছিল, মক্কার ইমামকে এনে ফতোয়া সম্পর্কে জানানো এবং বাংলাদেশের আলেম সমাজের মধ্যে এর কার্যকরী প্রভাব তৈরি করা।

এ সপ্তাহের শেষ দিকে আলাপকালে মাওলানা মাসঊদ বলেন, এ বিষয়ে প্রাথমিক আলাপ হয়েছে। মক্কা শরিফের ইমাম  যেহেতু রাষ্ট্রীয় গুরুত্বপূর্ণ একটি পদ, তাই তাকে বাংলাদেশে আনতে হলে বাদশাহর অনুমোদন লাগবে। বাংলাদেশ থেকে সরকারিভাবে দাওয়াত দিতে হবে। আমরা এখন সে প্রক্রিয়ার দিকে এগুচ্ছি। তিনিও বাংলাদেশ আসতে ব্যক্তিগতভাবে আগ্রহী। আমরাও  আশাবাদী, শীতকালে তাকে আনব। পাশাপাশি সমাবেশ করে এ ফতোয়ার একটি কপি তার হাতে তুলে দেব।

যদিও তরিকত ফেডারেশনের মহাসচিব এম এ আউয়াল মনে করেন, সরকারের অনুমতি পেলে এবং নিরাপত্তার ব্যবস্থা সুনিশ্চিত হলে মক্কার ইমামকে বাংলাদেশে নিয়ে আসা সম্ভব।

শেষ পর্যন্ত তাহলে কার আমন্ত্রণে আসছেন মসজিদে হারামের ইমাম, এমন প্রশ্নে এম এ আউয়াল বলেন, আমরা তো আগে থেকেই চিন্তা করছি এবং আলোচনার সূত্রপাত ঘটিয়েছি। আর মাওলানা মাসঊদ হয়তো বলেছেন। এখন দেখা যাক। যারাই তাকে আমন্ত্রণ দিক, মানুষ ড. সুদাইসি আসলে খুশি হবে। শুক্রবার বিকেলে এ বিষয়ে জানতে চেয়ে যোগাযোগ করলে মাওলানা মাসঊদ ইতেকাফে থাকায় কথা বলতে পারেননি।

উল্লেখ্য, মসজিদুল হারামের ইমাম ড. মুদাইসি সুমধুর কোরআন তেলাওয়াতের জন্য পুরো মুসলিম বিশ্বে প্রসিদ্ধ। পাশাপাশি গ্র্যান্ড মসজিদের ইমাম হিসেবে তিনি ইসলামের সন্ত্রাসবিরোধী অবস্থান নিয়ে সারাবিশ্বেই উচ্চকিত কণ্ঠ।

এফ/২৩:০৮/০৯জুলাই

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে