Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print
আপডেট : ০৭-০৭-২০১৬

শোলাকিয়া ঈদগাহের বাইরে বোমা বিস্ফোরণ, নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৪

শোলাকিয়া ঈদগাহের বাইরে বোমা বিস্ফোরণ, নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৪

কিশোরগঞ্জ, ০৭ জুলাই- কিশোরগঞ্জের শোলাকিয়া ঈদগাহসংলগ্ন আজিমুদ্দিন উচ্চ বিদ্যালয়ের সামনে হাতবোমা বিস্ফোরণ ঘটিয়েছে দুর্বৃত্তরা। এ ঘটনায় জহিরুল ইসলাম (৩২) ও আনছারুল ইসলাম নামে দুই পুলিশ সদস্য, এক হামলাকারী ও ঝর্ণা রাণী ভৌমিক (৩৪) নামের এক নারীসহ চারজন নিহতের খবর পাওয়া গেছে। 

বৃহস্পতিবার সকাল ৯ টার দিকের  এই ঘটনায় ৬ পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন। আহত পুলিশ সদস্যরা হলেন-কনস্টেবল জুয়েল, মশিউর, প্রশান্ত, রফিকুল ও  তুষার এবং সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) নয়ন। আহত পুলিশ সদস্যদের প্রথমে কিশোরগঞ্জ পরে ময়মনসিংহ সিএমএইচ হাসপাতালে পাঠানো হয়।

এদিকে ঘটনাস্থল থেকে  পুলিশ তিন হামলাকারীকে আটক করেছে। তাদের মধ্যে একজন গুলিবিদ্ধ বলে এলকাবাসীর বরাতে সংবাদমাধ্যমে খবর এসেছে। 

নিহত পুলিশ সদস্যের নাম জহিরুল হক বলে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে নিশ্চিত করেছেন ঢাকা মহানগর পুলিশের কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিটের প্রধান মো. মনিরুল ইসলাম।  

হামলার পর পুলিশসহ ১৩ জনকে কিশোরগঞ্জ জেলা হাসপাতালে নেওয়া হলে কনস্টেবল জহুরুলকে মৃত ঘোষণা করা হয় বলে ডেপুটি সিভিল সার্জন হাবিবুর রহমান জানান। 

এদিকে কিশোরগেঞ্জের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আবু সায়েম জানান, ময়মনসিংহ সিএমএইচ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আনছারুল ইসলাম নামে পুলিশের আরও এক সদস্য মারা গেছেন। তার মাথায় গুলির চিহ্ন রয়েছে। এ ছাড়া এ ঘটনায় এক হামলাকারীও নিহত হয়েছে বলে জানান তিনি। তবে হামলাকারীর পরিচয় তাৎক্ষণিকভাবে জানা যায় নি।

শোলাকিয়া মাঠে উপস্থিত পুলিশ সুপার আনোয়ার হোসেন খানও এ সময় হাসপাতালে ছুটে যান। 

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, সংঘবদ্ধ দুর্বৃত্তরা ধারালো অস্ত্র, আগ্নেয়াস্ত্র ও বোমা নিয়ে কর্তব্যরত পুলিশের ওপর এ হামলা চালায়। এ সময় পুলিশের সঙ্গে দুর্বৃত্তদের প্রায় ঘণ্টাব্যাপী লড়াই চলে। পরে পুলিশের প্রতিরোধে হামলাকারীরা পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। পুলিশের গুলিতে এ সময় এক হামলাকারীও নিহত হয়। কিশোরগঞ্জ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মীর মোশাররফ হোসেন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

হামলাকারীদের হাতে ধারালো অস্ত্র ছিল বলে একটি টেলিভিশনের খবরে জানানো হয়। তবে হামলাকারী কয়জন ছিল সে বিষয়ে স্পষ্ট কোনো তথ্য পাওয়া যায়নি।

এছাড়া পুলিশ  ঘটনাস্থল থেকে আহতাবস্থায় এক দুর্বৃত্তসহ ৩ জনকে আটক করে বলে সংবাদমাধ্যমে খবর এসেছে। 

হামলার পর পুলিশ কর্মকর্তা মনিরুল ফেসবুকে বলেন, ‘সবাই যখন আপনজনের সাথে ঈদের আনন্দ ভাগাভগি করতে ব্যস্ত তখন ও আমরা পুলিশেরা মানুষের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে ব্যস্ত। এমনি নিরাপত্তা দায়িত্বপালন কালে আজ ও কিশোরগঞ্জে আমাদের এক সদস্য নিহত হয়েছেন, আহত হয়েছেন আর ও ছয়জন। নিহত সদস্য জহিরুলের আত্মার মাগফেরাত কামনা করছি, আহতরা দ্রুত সেরে উঠুক সেই প্রত্যাশা।’

ঈদ জামাতে অংশ নিতে অনেকেই ওই স্কুলের সামনের রাস্তা দিয়ে মাঠে আসছিলেন। এ সময় স্কুল ফটকের কাছে বসানো পুলিশ চেকপোস্ট লক্ষ্য করে বেশ কয়েকটি বোমা হামলা চালানো হয়। শোলাকিয়া মাঠ থেকেও ওই শব্দ পাওয়া যায়। আর মাঠে যাওয়ার পথে সামনে বিস্ফোরণ আর ছুটোছুটি দেখে বাড়ি ফিরে যাওয়ার কথা জানান স্থানীয় এক বাসিন্দা। 

বোমা হামলার পর হামলাকারীদের সঙ্গে পুলিশের গোলাগুলি শুরু হয়ে যায় বলে একজন প্রত্যক্ষদর্শী জানান। পরে বিজিবি সদস্যরাও সেখানে যান। 

কিশোরগঞ্জ জেলা শহরের পূর্ব প্রান্তে নরসুন্দা নদীর তীরে প্রায় সাত একর জমির উপর ঐতিহ্য্যবাহী এ ঈদগাহ প্রতি ঈদে নামাজ পড়তে আসেন লাখো মানুষ।

মসনদ-ই-আলা ঈশা খাঁর ষষ্ঠ বংশধর দেওয়ান হয়বত খান বাহাদুর কিশোরগঞ্জের জমিদারি প্রতিষ্ঠার পর ১৮২৮ সালে এই ঈদগাহ চালু করেন। প্রথম জামাতে সেখানে সোয়া লাখ মুসুল্লি অংশগ্রহণ করেন বলে মাঠের নাম হয় ‘সোয়া লাখি মাঠ’। পরে উচ্চারণের বিবর্তনে তা পরিণত হয় আজকের নাম শোলাকিয়ায়।

ঈদ জামাতে দূর দূরান্ত থেকে মুসুল্লিদের আসার সুবিধার্থে ‘শোলাকিয়া স্পেশাল’ নামে দুটি বিশেষ ট্রেনেরও ব্যবস্থা করে রেল কর্তৃপক্ষ।

আর/১৫:১৪/০৭ জুলাই

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে