Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print

আপডেট : ০৭-০১-২০১৬

ইতিহাস বিকৃতি: ঢাবির ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রারকে অব্যাহতি

ইতিহাস বিকৃতি: ঢাবির ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রারকে অব্যাহতি
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় দিবসের অনুষ্ঠানে নীল পাঞ্জাবি পরিহিত ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার সৈয়দ রেজাউর রহমানকে দেখা যাচ্ছে মাইক হাতে।

ঢাকা, ০১ জুলাই- সাবেক সামরিক শাসক জিয়াউর রহমানকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় দিবসের স্মরণিকায় বাংলাদেশের ‘প্রথম রাষ্ট্রপতি’লেখায় বিক্ষোভ-ভাঙচুরের পর ওই প্রকাশনার দায়িত্বে ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার সৈয়দ রেজাউর রহমানকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে।

শুক্রবার উপাচার্যের কার্যালয়ে নিযুক্ত উপ-রেজিস্ট্রার মুনসী শামস উদ্দিন আহম্মদ স্বাক্ষরিত এক আদেশে বলা হয়, বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য আ ম ম স আরেফিন সিদ্দিক অব্যাহতির এই আদেশ দিয়েছেন। 

“বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) সৈয়দ রেজাউর রহমানকে তার পদ থেকে অব্যাহতি দেওয়া হল। আদেশ অবিলম্বে কার্যকর হবে,” বলা হয়েছে আদেশে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য মো. আখতারুজ্জামান বলেন, “তথ্য বিকৃতি ঘটেছে। এ কারণে বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রারকে অব্যাহতি দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছে।”

বিশ্ববিদ্যালয়ের ৯৫তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর স্মরণিকায় ‘স্মৃতি অম্লান’ শিরোনামে বিশ্ববিদ্যালয়ের হলগুলোর বর্ণনা দিতে গিয়ে জিয়াউর রহমান হলের ক্ষেত্রে জেনারেল জিয়াকে ‘বাংলাদেশের প্রথম রাষ্ট্রপতি, সাবেক সেনাপ্রধান ও মুক্তিযোদ্ধা’ হিসেবে বর্ণনা করা হয়।

ওই ক্রোড়পত্রের প্রকাশনার দায়িত্বে ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) সৈয়দ রেজাউর রহমান।

জিয়াউর রহমান হলের পরিচিতিতে লেখা হয়েছে,“মুক্তিযুদ্ধের পর জিয়াউর রহমান ১৯৭৭ সালে ২১ এপ্রিল বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি হন এবং ১৯৮১ সালের ৩০ মে এক সামরিক অভ্যুত্থান নিহত হন।”
বঙ্গবন্ধু হল ও বঙ্গবন্ধু টাওয়ারের ইতিহাস তুলে ধরতে গিয়ে স্মরণিকার অষ্টাদশ পৃষ্ঠায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সম্পর্কে লেখা হয়েছে, তিনি “বাংলাদেশে অন্যতম প্রধান রাজনৈতিক নেতা, যিনি পূর্ব পাকিস্তান থেকে বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠার সংগ্রামে অন্যতম পুরোধা ব্যক্তিত্ব এবং বাংলাদেশের জাতির জনক হিসেবে বিবেচিত।”

শুক্রবার টিএসসিতে বিশ্ববিদ্যালয় দিবসের আলোচনা সভায় স্মরণিকায় তথ্য বিকৃতির প্রতিবাদ  উঠলে উপাচার্য আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক তাৎক্ষণিকভাবে ওই স্মরণিকা বাজেয়াপ্ত করার ঘোষণা দেন।

পরে বিক্ষুব্ধ ছাত্রলীগ কর্মীরা বেলা ১২টা থেকে প্রায় পৌনে এক ঘণ্টা ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রারকে তার কার্যালয়ে তালাবন্ধ করে রাখে। পরে ভারপ্রাপ্ত প্রক্টর আমজাদ আলী ঘটনাস্থলে শিক্ষার্থীদের শান্ত করেন এবং রেজাউর রহমানকে বের করে আনেন।

এরপর ছাত্রলীগ কর্মীরা উপাচার্যের বাংলোর সামনে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ শুরু করলে সেখানে অধ্যাপক আরেফিন সিদ্দিকের গাড়ি হামলার শিকার হয়। 

আর/১৭:০৪/০১ জুলাই

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে