Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print
আপডেট : ০৬-২৮-২০১৬

বেপরোয়া হয়ে উঠছে টিকিট কালোবাজারি চক্র

বেপরোয়া হয়ে উঠছে টিকিট কালোবাজারি চক্র

ঢাকা,২৮জুন- ঈদের সময় যতই ঘনাচ্ছে, ততই বেপরোয়া হয়ে উঠছে টিকিট কালোবাজারি চক্র। কমলাপুর রেল স্টেশনে ঘণ্টার পর ঘণ্টা লাইনে অপেক্ষার পরও মিলছে না ঈদে ঘরমুখো মানুষের কাঙ্ক্ষিত টিকিট। কাউন্টারগুলোতে টিকিট ছাড়ার কিছুক্ষণের মধ্যেই এসি ও শোভন চেয়ারের টিকিট শেষ হয়ে যাওয়ার অজুহাতে টিকিট পাওয়া যাচ্ছে না বলে অভিযোগ অগ্রিম টিকিট প্রত্যাশীদের।

এদিকে শত কষ্ট করে লাইনে দাঁড়িয়ে থেকে ‘সোনার হরিণ’ বাড়ি ফেরার টিকিট হাতে না পেলেও জায়গা মতো যোগাযোগ করলে সহজের হাতে চলে আসছে টিকিট। টিকিটও পর্যাপ্ত। নেই কোনো ক্রাইসিস। তবে এক্ষেত্রে গুণতে হচ্ছে নির্ধারিত মূল্যের চেয়েও কয়েকগুণ বেশি টাকা। 

সোমবার (২৭ জুন) কমলাপুর রেল স্টেশনে যাত্রী ও কয়েকজন কালোবাজারির সঙ্গে কথা বললে এরকমই তথ্য উঠে আসে।

ঈদে বাড়ি ফেরার প্রত্যাশায় অগ্রিম টিকিট কিনতে আসাদের একজন রাজশাহীর রেজাউল কবির। কমলাপুরে টিকিট ভোগান্তি ও কালোবাজারির দৌরাত্ম্যের কথা জানাতে গিয়ে তিনি বাংলামেইলকে বলেন, ‘গতকাল (রোববার) দুপুর থেকে স্টেশনে এসে দাঁড়িয়ে আছি। সিরিয়ালে সামনে থাকলেও এসি টিকিট পাইনি। এতো টিকিট কোথায় গেছে?। পরে ঠিকই টিকিট ব্ল্যাকারদের কাছে পাওয়া যাবে।’

টিকিট সংগ্রহ করতে এসে চট্টগ্রামের দিদারুল আলমেরও একই অভিযোগ। তিনি বলেন, ‘এতো নিরাপত্তা এতো কথা তাহলে টিকিট কই যায়? রেলওয়ে কর্মকর্তাদের যোগসাজসেই কাউন্টারের টিকিট যাত্রীদের হাতে না গিয়ে কারোবাজারিদের হাতে চলে যায়।’

যাত্রীবেশে রেলওয়ের একজন নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্য রহমান মিয়ার (ছদ্দনাম)  সঙ্গে কথা হলে তিনি বলেন, ‘টিকিট লাগবে কবের? কয়টা? আগে থেকেই বলে রাখি- টাকা কিন্তু বেশি লাগবে।’

তিনি আরো বলেন, ‘টিকিট এখন আমাদের কাছে পাবেন না। কারণ এখন আপনি ৫০০ টাকার টিকিট সর্বোচ্চ দিবেন ৭০০ টাকা। কিন্তু যেদিন যাবেন সেদিন কয়েকগুণ বেশি টাকা দিয়েও টিকিট নিবেন। ফলে লাভ বেশি।’

রেল স্টেশনে কথা হয় আরেকজন কালোবাজারি রমজান মিয়ার সঙ্গে। তিনি বলেন, ‘এবার খুব ঝামেলা হচ্ছে। টিকিটের রেটও বেশি। লাগলে যোগাযোগ কইরেন।’ আগামী ৪ জুলাইয়ের টিকিট আছে কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘২ জুলাই রাতে ফোন দিয়া মনে করাইয়া দিয়েন। আমি ম্যানেজ কইরে রাখবো।’

এর আগে রোববার (২৬ জুন) কমলাপুর থেকে ট্রেনের টিকিট কালোবাজারি চক্রের ৫ সদস্যকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব। স্টেশন এলাকার সার্বিক পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণে এসে এ তথ্য জানান র‌্যাবের মহাপরিচালক বেনজীর আহমেদ।

তিনি বলেন, ‘কেউ যেন যাত্রীদের হয়রানি করতে না পারে, আমরা সেদিকে নজর রাখছি। যাত্রীদের নিরাপত্তা ও কালোবাজারি ঠেকাতে কমলাপুর, সদরঘাট এবং রাজধানীর বাস টার্মিনালগুলোতে র‌্যাবের ৯টি অস্থায়ী ক্যাম্প খোলা হয়েছে।’

ঈদের ছুটিতে রাজধানীর নিরাপত্তায় বাড়তি ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে জানিয়ে বেনজীর বলেন, ‘ঈদে মাওয়া ও আরিচায় দু’টি করে র‌্যাবের ৪টি ক্যাম্প স্থাপন করা হবে।’

এদিকে সোমবার বিক্রি হচ্ছে ৫ জুলাইয়ের টিকিট। ঈদের ছুটি ০১ তারিখ  থেকে শুরু হওয়ায় ৫ জুলাইয়ে টিকিটের চাহিদা আগের দু’দিনের তুলনায় অনেক কম। সকাল থেকে প্রচুর ভিড় থাকলেও বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে সেটা কমতে থাকে। টিকিট পেয়েছেন প্রায় সবাই। দুপুর গড়িয়ে বিকেলে কাউন্টারের সামনের চিত্র ছিল প্রায় ফাঁকা। টিকিটও পর্যাপ্ত রয়েছে বলে জানিয়েছেন রেলওয়ের কর্মকর্তারা।

০৫ জুলাইয়ের টিকিট প্রত্যাশী রবিউল আলম বাংলামেইলকে বলেন, ‘আজকে চাপ অনেক কম। টিকিটের জন্য বেশি সময় অপেক্ষা করতে হয়নি। মাত্র ০৮-১০ জনের সিরিয়াল।’ 

কমলাপুর স্টেশন ম্যানেজার সীতাংশু চক্রবর্তী বাংলামেইলকে বলেন, ‘আজকে সকালে মোটামোটি ভিড় ছিল। তবে এখনও অনেক টিকিট অবিক্রিত রয়েছে।’ 

টিকিট কালোবাজারি প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘এবার টিকিট কালোবাজারি বন্ধে অনেকগুলো স্পটে সিসি ক্যামেরা স্থাপন করা হয়েছে। প্রচুর নিরাপত্তা বাহিনী রয়েছে। তাদের চোখ ফাঁকি দিয়ে কেউ ব্ল্যাকে টিকিট বিক্রি করতে পারবে না। আর যে দু-একজন করেছে তাদেরকে গ্রেপ্তার করছে র‌্যাব।’

এ  আর/১৩:৪৭/ ২৮জুন

জাতীয়

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে