Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print
আপডেট : ০৬-২৮-২০১৬

যেভাবে সিলেটে শুল্ক ফাঁকির গাড়ি রেজিস্ট্রেশন করা হয়

যেভাবে সিলেটে শুল্ক ফাঁকির গাড়ি রেজিস্ট্রেশন করা হয়

সিলেট,২৮জুন- যুক্তরাজ্য থেকে কার্নেট সুবিধায় ছয় মাসের ব্যবহারের জন্য দেশে গাড়ি নিয়ে আসেন প্রবাসীরা। এরপর জালিয়াতির মাধ্যমে ভুয়া কাগজপত্র তৈরী করে সেই গাড়ি দেশেই রেজিস্ট্রেশন করিয়ে নেয়া হয়। বিশেষ করে সিলেটে এ প্রবণতা বেশি। অবৈধ এসব রেজিস্ট্রেশনের ক্ষেত্রে বিআরটিএ অফিসের কতিপয় দুর্নীতিবাজ কর্মকর্তাদের যোগসাজশ থাকে।

জানা যায়, যুক্তরাজ্য থেকে কার্নেট সুবিধায় ছয় মাসের জন্য যেকোনো দেশে গাড়ি নিয়ে যাওয়া যায়। এমন সুযোগে যুক্তরাজ্যে বসবাসরত সিলেটি প্রবাসীরা গাড়ি নিয়ে দেশে আসেন। কিন্তু ছয় মাস পেরিয়ে যাওয়ার পরও সেই গাড়ি ফিরিয়ে নেয়া হয় না। এসব ক্ষেতে ‘গাড়ি হারিয়ে গেছে’ ‘গাড়ি চুরি হয়ে গেছে’ কিংবা ‘গাড়ি দুর্ঘটনায় কবলিত হয়ে ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে’ অজুহাত দেখিয়ে গাড়ির মূল মালিকানা প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে দায়মুক্তি নেন প্রবাসীরা। কিন্তু কার্নেট সুবিধায় আনা সেই গাড়ি ভুয়া কাগজপত্রের মাধ্যমে দেশে ঠিকই রেজিস্ট্রেশন করিয়ে নেয়া হয়। 

জানা যায়, চট্টগ্রাম সমুদ্র বন্দর দিয়ে আমদানি করা বিভিন্ন পণ্যের কাগজপত্র জালিয়াতির মাধ্যমে গাড়ি আমদানির কাগজপত্র হিসেবে দেখানো হয়। গত শনিবার সিলেটের শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তরের একটি দল সুনামগঞ্জ সদরের হাজীপাড়ার এক ব্যবসায়ীর বাসায় অভিযান চালিয়ে শুল্ক ফাঁকি দিয়ে আনা কোটি টাকার বিলাসবহুল একটি গাড়ি আটক করে। কার্নেট সুবিধায় যুক্তরাজ্য থেকে প্রায় দুই কোটি টাকা মূল্যের লেক্সাস জিপ (সিলেট ঘ ১১-০৩০১) গাড়িটি প্রায় ৬ বছর ধরে দেশের ভেতর চলাচল করছিল বলে শুল্ক গোয়েন্দারা জানিয়েছেন।

শুল্ক গোয়েন্দারা অনুসন্ধানে জানতে পারেন, আর এক্স ৩০০ মডেলের কালো রঙের লেক্সাস জিপটি রেজিস্ট্রেশন করিয়ে নেয়ার সময় যে কাগজপত্র জমা দিয়েছিল তা সঠিক নয়। রেজিস্ট্রেশনের সময় সিলেট বিআরটিএ অফিসে দেখানো হয় ২০১৪ সালের ২৯ মে জাপান থেকে গাড়িটি আমদানি (বিল অব এন্ট্রি সি-১১৪২৮৬) করা হয়েছে। এ সংক্রান্ত জাল কাগজপত্রও জমা দেয়া হয়। পরবর্তীতে শুল্ক গোয়েন্দারা খোঁজ নিয়ে জানতে পারেন রেজিস্ট্রেশনের সময় আমদানির যে কাগজপত্র জমা দেয়া হয় তা একটি পোশাক রপ্তানিকারকের শিপমেন্টের। ওই শিপমেন্টে করে কোন গাড়ি আমদানি করা হয়নি।

শুধু এ লেক্সাস জিপই নয়, কার্নেট সুবিধা নিয়ে শুল্ক ফাঁকি দিয়ে দেশে গাড়ি এনে বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই তা ফিরিয়ে নেয়া হয়। এসব বিলাসবহুল গাড়ি বিআরটিএ অফিসের কতিপয় অসাধু কর্মকর্তাদের যোগসাজশে ভুয়া আমদানির কাগজপত্র দেখিয়ে রেজিস্ট্রেশন করা হয়। 

এ  আর/১০:৩৫/ ২৮জুন

সিলেট

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে