Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print
আপডেট : ০৬-২৭-২০১৬

বলিউডের কোন তারকা কোন বদভ্যাসে ভোগেন, জানেন কি?

বলিউডের কোন তারকা কোন বদভ্যাসে ভোগেন, জানেন কি?

মুম্বাই, ২৭ জুন- ১। শাহরুখ খান:  শাহরুখ খানের জন্ম নভেম্বর ২, ১৯৬৫, অনানুষ্ঠানিকভাবে এসআরকে হিসাবে ডাকা হয়, একজন বিখ্যাত ভারতীয় অভিনেতা, প্রযোজক, টেলিভিশন উপস্থাপক এবং মানবপ্রেমিক। ১৯৮০ এর শেষের দিকে বেশ কিছু টেলিভিশন সিরিয়ালে অভিনয়ের মাধ্যমে তাঁর অভিনয় জীবন শুরু করেন। ১৯৯২ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত দিওয়ানা চলচ্চিত্রের মাধ্যমে তিনি চলচ্চিত্র জগতে প্রবেশ করেন। 

এরপর তিনি অসংখ্য বাণিজ্যিকভাবে সফল চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন এবং খ্যাতি অর্জন করেন। শাহরুখ খান চৌদ্দবার ফিল্মফেয়ার পুরস্কার লাভ করেন। এর মধ্যে আটটিই সেরা অভিনেতার পুরস্কার। তিনি বলিউডের অন্যতম সফল অভিনেতা। হিন্দি চলচ্চিত্রে অসাধারণ অবদানের জন্য ২০০৫ সালে ভারত সরকার শাহরুখ খানকে পদ্মশ্রী পুরস্কারে ভূষিত করে।

এই অভিনেতার কিছু  বদভ্যাস আছে যেমন পছন্দের পোশাক জিনস। প্রায় ১৫০০ জোড়া জিনস রয়েছে কিংগ খানের। এর সঙ্গে শাহরুখের আরও একটি অদ্ভুত স্বভাব রয়েছে। তা হল, শাহরুখ দিনে মাত্র একবার জুতো খোলেন।

২। অমিতাভ বচ্চন: (জন্ম ১১ই অক্টোবর) একজন জনপ্রিয় ভারতীয় চলচিত্র অভিনেতা। তিনি বিগ বি এবং শাহেনশাহ নামেও পরিচিত। ১৯৭০-এর প্রথম দিকে তিনি বলিউড সিনেমা জগতে "রাগী যুবক" হিসেবে জনপ্রিয়তা লাভ করেন এবং সময়ের সঙ্গে সঙ্গে ভারতীয় চলচ্চিত্রের ইতিহাসে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি হয়ে ওঠেন।

বচ্চন নিজের কর্মজীবনে তিনটি জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার এবং বারোটি ফিল্মফেয়ার পুরস্কার সহ অজস্র গুরুত্বপূর্ণ পুরস্কার পেয়েছেন। ফিল্মফেয়ারের শ্রেষ্ঠ অভিনেতার পুরস্কারের বিভাগে তিনি সর্বাধিক মনোনয়ন পাওয়ার রেকর্ড করেছেন। অভিনয় ছাড়াও তাঁকে নেপথ্য গায়ক, চলচ্চিত্র প্রযোজক, টেলিভিশন সঞ্চালক এবং ১৯৮৪ থেকে ১৯৮৭ পর্যন্ত ভারতীয় সংসদে নির্বাচিত জনপ্রতিনিধি হিসেবেও দেখা গেছে। অমিতাভ বচ্চন কর্মজীবন যেত সুন্দর হয়না কেনো তার কিছু বদভ্যাস আছে তিনি,আবার একইসঙ্গে দুই হাতে দুটো ঘড়ি পরেন।

৩। সাইফ আলি খান: (জন্মঃ ১৬ অাগষ্ট ১৯৭০) বলিউডের হিন্দি সিনেমার একজন বিখ্যাত নায়ক । তাঁর মা বিখ্যাত অভিনেত্রী শর্মিলা ঠাকুর এবং বাবা বিখ্যাত ক্রিকেট খেলোয়াড় মনসুর আলি খান পাতৌদি ।

তার বদভ্যাস হলো তিনি পড়তে এতটাই পছন্দ করেন যে নিজের বাথরুমেই একটা মিনি লাইব্রেরি বানিয়ে নিয়েছেন। 

৪। আয়ুষ্মান খোরানা: পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন থাকতেই পছন্দ করেন। সুযোগ পেলেই তিনি নাকি দাঁত মাজেন। টুথপেস্ট আর টুথব্রাশ হাতে আয়ুষ্মান, এই ছবি বহুবার দেখেছেন তাঁর ভক্তরা। তার এটা বদভ্যাস

৫। রানি মুখোপাধ্যায়:  জন্ম মার্চ ২১, ১৯৭৮), একজন ভারতীয় চলচ্চিত্র অভিনেত্রী। বলিউডে কর্মজীবনের মাধ্যমে, তিনি ভারতের সবচেয়ে উচ্চ-স্তরের ব্যক্তিক্তে পরিণত হয়েছেন। তিনি সাতটি ফিল্মফেয়ার পুরস্কার সহ বিভিন্ন পুরস্কার লাভ করেছেন।

মুখার্জি-সম্রাট পরিবারে জন্মগ্রহণ করলেও, যেখানে তার বাবা এবং আত্মীয়রা ভারতীয় চলচ্চিত্র শিল্পের সদস্যদ ছিলেন; সেখানে তিনি জীবিকা হিসেবে চলচ্চিত্রকে বেছে নেয়ার বিষয়ে উচ্চাভিলাষী ছিলেন না। যদিও, ছেলেবেলায়ই তিনি বাবার পরিচালিত বাংলা ভাষার চলচ্চিত্র বিয়ের ফুল (১৯৯৬) চলচ্চিত্রে সহ-চরিত্রে অভিনয়ের মাধ্যে দিয়ে এবং পরবর্তীতে তার মায়ের সনির্বন্ধ অনুরোধে রাজা কি আয়েগি বারাত (১৯৯৭) সামাজিক নাট্য চলচ্চিত্রে মূখ্য ভূমিকায় অভিনয় করেন। 

এরপর নিয়মিত হিসেবে কর্মজীবন শুরু করেন কুছ কুছ হোতা হ্যায় (১৯৯৮) চলচ্চিত্রে শাহরুখ খানের বিপরীতে একটি সহযোগী চরিত্রে অভিনয়ের মধ্র দিয়ে। তার কর্মজীবনের এই প্রাথমিক সাফল্যের পর, পরবর্তী তিন বছরের জন্য তার চলচ্চিত্র বক্স অফিসে দুর্বল অবস্থানে ছিল। রানি আবার ধূমপান অনেক পছন্দ করেন, প্রচণ্ড ধূমপান করেন। চেন স্মোকার বলেই রানিকে চেনে বলিউড। এটাই তার বদভ্যাস

৬। প্রিয়ঙ্কা চোপড়া: (জুলাই ১৮, ১৯৮২-) একজন হিন্দি চলচ্চিত্রের নায়িকা। ২০০০ সালে তিনি মিস ওয়ার্ল্ড উপাধি লাভ করেন। ২০০২ সালে তামিল ঠামিজান চলচ্চিত্রের মাধ্যমে তার অভিষেক হয়। হিন্দি চলচ্চিত্রে তিনি সানি দেওয়ালের বিপরীতে দ্য হিরো ছবির মাধ্যমে প্রবেশ করেন। ২০০৪ সালে আন্দাজ ছবির জন্য তিনি সেরা নবাগতা নায়িকা হিসেবে ফিল্মফেয়ার পুরস্কার লাভ করেন। ২০০৮ সালে তিনি "ফ্যাশন" ছবির জন্য "সেরা অভিনেত্রী" হিসেবে জাতীয় পুরস্কার লাভ করেন। প্রিয়ঙ্কার বদভ্যাস বলে ভুল হবে এটা তার সুভ্যাস যেমন আবার খুব গোছানো স্বভাবের। যে জায়গায় যে জিনিসটা রাখা দরকার, প্রিয়ঙ্কা চোপড়া সেটাই করেন। নাহলে নাকি সব উলটোপালটা হয়ে যায় প্রিয়ঙ্কার।

৭। সুস্মিতা সেনের: জন্ম ১৯ নভেম্বর, ১৯৭৫) তিনি একজন ভারতীয় চলচ্চিত্র অভিনেত্রী. প্রাক্তন মডেল, সেন ১৯৯৪ সালে মিস ইউনিভার্স হিসেবে সম্মানিত হন সুস্মিতা সেনের বদভ্যাসটা আবার বিচিত্র। শোনা যায়, তিনি নাকি উন্মুক্ত স্থানে স্নান করতে পছন্দ করেন। এই সভাবের জন্যই সুস্মিতার বাড়িতে তাঁর বাথরুম টাবটি রাখা রয়েছে খোলা চত্বরে।

৮। জন আব্রাহাম: চলচ্চিত্র প্রযোজক এবং প্রাক্তন মডেল। বহু প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপনে মডেলিং এর পর, আব্রাহাম চলচ্চিত্রে অভিষেক করেন জিস্‌ম (২০০৩) সিনেমায় অভিনয়ের মাধ্যমে। যা ফিল্মফেয়ার সেরা নবাগত পুরস্কারের মনোনয়ন অর্জন করে।

এই সিনেমার পর তার বাণিজ্যিক সাফল্যমন্ডিত সিনেমা ধুম (২০০৪)। তিনি দুইবার ফিল্মফেয়ার পুরস্কারের মনোনয়ন অর্জন করেন, ধুম সিনেমায় খল চরিত্রে এবং জিন্দা (২০০৬) সিনেমায় অভিনয়ের জন্য। এরপর তাকে দেখা যায় সমালোচক কর্তৃক প্রচুর প্রসংশাপ্রাপ্ত ওয়াটার (২০০৫) সিনেমায়। তিনি বাবুল (২০০৬) সিনেমায় অভিনয়ের জন্য ফিল্মফেয়ার সেরা সহ-অভিনেতা পুরস্কারের জন্য মনোনীত হন। তারটা হলো কোথাও স্থির হয়ে দাঁড়িয়ে বা বসে থাকতে পারেন না। ক্রমাগত পা নাড়াতে দেখা যায় জনকে। একে বলে রেস্টলেস লেগ সিনড্রোম।

৯। করিনা কাপূর:এই নায়িকা সবার থেকে আলাদা টেনশনে পড়লেই করিনা কপূরকে দেখা যায় তাঁর নখ চলে গিয়েছে মুখে। তার পরে? দাঁত দিয়ে নখ কাটতে শুরু করে দেন করিনা। টেনশনে পড়ে গেলেই করিনাকে এই অবতারে দেখা যায়।

আর/১৭:১৪/২৭ জুন

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে