Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print
আপডেট : ০৬-২৭-২০১৬

‘গ্রেট’ থেকে ‘গ্রেটেস্ট’ হয়ে যাবেন মেসি!

কাওসার মুজিব অপূর্ব


‘গ্রেট’ থেকে ‘গ্রেটেস্ট’ হয়ে যাবেন মেসি!

লিওনেল মেসি যে সর্বকালের অন্যতম সেরা ফুটবলারদের একজন – সেটা মোটামুটি চোখ বন্ধ করেই বলে দেয়া যায়। তবে, সর্বকালের সেরা হয়ে যাওয়ার একটা সুযোগ এই আর্জেন্টাইন পাচ্ছেন সোমবার সকালে।

সম্প্রতি ২৯ বছরে পা রাখা মেসি সেই ২০০৪ সালের অক্টোবরে মাত্র ১৭ বছর বয়সে আবির্ভাবের পর থেকেই একের পর এক রেকর্ড গড়ে চলেছেন। এরই মধ্যে পাঁচবারের বর্ষসেরা ফুটবলারের খেতাব, আটটি লা লিগা শিরোপা, চারটি উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির শিরোপা শোভা পাচ্ছে তার শো-কেজে।

ব্যক্তিগত অর্জনের খাতায় একের পর একটা প্রাপ্তি যোগ হওয়া তার জন্য নতুন কোনো ব্যাপার নয়। শুধু একটা প্রসঙ্গে মেসিকে নিয়ে কথা বলতে গেলে চুপ হয়ে যেতে হয়। দেশের হয়ে যে আজও বড় কোনো টুর্নামেন্ট জেতা হয়নি তার।

২০১৪ সালের বিশ্বকাপে দেশকে ফাইনালে নিয়ে গিয়েছিলেন; পেনাল্টি শুট আউটে ছিটকে গেছেন। ২০১৫ সালের কোপা আমেরিকার ফাইনালেও কপাল পুড়ায় সেই টাই ব্রেকারই।

এক জোড়া আঘাতের ক্ষত শুকাতে না শুকাতেই আবারও সামনে সেই কোপার ফাইনাল। এক বছর আগের সেই স্বপ্ন ছিনিয়ে নেয়া চিলির সাথেই লড়াই। এবার কি পারবে আর্জেন্টিনা? এবার কি আক্ষেপ ঘুঁচে যাবে মেসির? সেটা হয়ে গেলে নিউ জার্সির মেটলাইফ স্টেডিয়ামে লেখা হয়ে যাবে নতুন ইতিহাস। তখনই বলে দেয়া যাবে – হ্যা, মেসিই সর্বকালের সেরা।

ওলেকে মেসি অবশ্য বলে রেখেছেন, অন্তত এই শিরোপাটা তাদের জেতা উচিৎ. ‘গ্রুপ পর্বে আমরা যেমন খেলেছি, যেভাবে টানা তিনটা

ফাইনালে উঠেছি – সব মিলিয়ে ব্যাপারটা দারুণ। অন্তত এবার আমাদের জয় দিয়ে শেষ করা উচিৎ, এটা আমাদের প্রাপ্য।’

আর্জেন্টিনার রোজারিওতে জন্ম নেয়া মেসি মাত্র ১৩ বছর বয়সেই কাতালান জায়ান্ট বার্সেলোনার অ্যাকাডেমি ‘লা মেসিয়া’তে চলে আসেন। কিশোর বয়স থেকেই মনে করা হত, বিরল প্রতিভা নিয়ে জন্মেছেন এই মেসি।

এস্প্যানিওলের বিপক্ষে দ্বিতীয়ার্ধে ডেকোর বদলী হয়ে মাঠে নামার বহু আগে থেকেই তিনি প্রতিপক্ষের ডিফেন্ডারদের বোকা বানানো, মাঠের যেকোনো জায়গা থেকে গোল বানানোর অতিমানবীয় ক্ষমতার প্রমান দিয়ে দিয়ে ফেলেছিলেন।

রোনালদিনহো, জাভি, স্যামুয়েল ইতোরা যখন ক্যারিয়ারের স্বর্ণালী সময় কাটাচ্ছিলেন, তখনও বার্সার মূল একাদশের গুরুত্বপূর্ণ সদস্য ছিলেন মেসি। আর এখন তো তাকে ঘিরেই সাজানো হয় বার্সা কিংবা আর্জেন্টিনার রণকৌশল।

আর আর্জেন্টাইন প্রতিভাধর হিসেবে তার সাথেও হয় কিংবদন্তি ফুটবলার ডিয়েগো ম্যারাডোনার তুলনা। ১৯৮৬ সালে আর্জেন্টিনাকে সর্বশেষ বিশ্বকাপ এনে দেয়া ম্যারাডোনার সাথে তুলনা যে আজও চলে আসছে, সেটাও সম্ভব হয়েছে মেসির অস্বাভাবিক ধারাবাহীকতার সুবাদে।

সর্বকালের সেরা ফুটবলার কে? – দীর্ঘদিন ধরে হয়ে আসা এই বিতর্কে ম্যারাডোনার সাথে যার নাম সবচেয়ে বেশি উচ্চারিত হয় তিনি হলেন ব্রাজিলের হয়ে তিনটি বিশ্বকাপ জেতা পেলে। ক্লাব ফুটবলে মেসি এরই মধ্যে নিজের অর্জন দিয়ে ছাড়িয়ে গেছেন এই দু’জনকে। এবার শুধু দেশের হয়ে একটা ট্রফি জিতে ফেললেই হয়ে যায়। ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোর সাথে চলমান লড়াই চুঁকেবুকে, এমনকি পেলে-ম্যারাডোনাদের পেছনে ফেলে মেসিই হয়ে যাবেন সর্বকালের সেরা ফুটবলার।

শতবার্ষিকী কোপার ফাইনালের আগে চিলির কোচ হুয়ান পাবলো পিজ্জি তো বলেই দিলেন, তাদের লড়াইটা ইতিহাসের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ফুটবলারের বিপক্ষে। তবে, মেসিকে রুখে দিতে আশাবাদী লা রোজাদের কোচ।

পিজ্জি বলেছেন, ‘আমি বিশ্বাস করি, আমরা ফুটবল ইতিহাসের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড়ের বিপক্ষে খেলতে নামছি। এটাও জানি যে, ওর রেকর্ড ভাঙা অসম্ভব ব্যাপার। তারপরও বলবো, আমরা বিশ্বাস করি যে, ওকে আমরা হারাতে পারবো।’

ফাইনালটা জিতে গেলেই এক যুগেরও বেশি সময় পর লাতিন ফুটবলের সবচেয়ে গৌরবজনক শিরোপাটা নিজের করে নিতে পারবে লিওনেল মেসির দল। এরই মধ্যে টুর্নামেন্টে পাঁচ গোল করে ফেলেছেন; যুক্তরাষ্ট্রের বিপক্ষে ট্রেড মার্ক ফ্রিকিকে গ্র্যাব্রিয়েল বাতিস্তুতাকে ছাড়িয়ে হয়ে গেছেন আর্জেন্টিনার ইতিহাসে সর্বোচ্চ আন্তর্জাতিক গোলের মালিক। এবার পালা ফাইনাল জোতার।

এই ফাইনাল ম্যারাডোনা কখনও জিততে পারেননি। পারেননি পেলেও। মেসির হাতে সময় ৯০ মিনিট; কিংবা বড়জোড় ১২০ মিনিট। অমরত্ব হাতছানি দিচ্ছে মেসিকে। এই শতবর্ষী কোপা আমেরিকার শিরোপা জিততে পারলেই মেসি ‘গ্রেট’ থেকে ‘গ্রেটেস্ট’ হয়ে যাবেন। চিলিকে হারিয়ে মেসি কি পারবেন ‘গ্রেট’ থেকে ‘গ্রেটেস্ট’ হতে?

আর/১২:০৪/২৭ জুন

ফুটবল

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে