Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print
আপডেট : ০৬-২৩-২০১৬

লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে সহযোগিতায় করদাতাদের অভিনন্দন

লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে সহযোগিতায় করদাতাদের অভিনন্দন

ঢাকা, ২৩ জুন- আন্তর্জাতিক জনসেবা দিবস ২৩ জুন বৃহস্পতিবার। বাংলাদেশসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে নানা কর্মসূচির মধ্য দিয়ে পালিত হচ্ছে দিবসটি।

এ দিবসে রাজস্ব লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে সহযোগিতায় জনগণ ও করদাতাদের অভিনন্দন জানিয়েছেন জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) চেয়ারম্যান মো. নজিবুর রহমান।
 
বৃহস্পতিবার এক বার্তায় তিনি বলেন, সারাদেশে রাজস্বের ব্যাপারে একটি ইতিবাচক মনোভাব গড়ে উঠতে দেখে আমরা খুবই উৎসাহিত বোধ করছি। 
 
‘মন্ত্রণালয়, বিভাগ, সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠান, একাডেমিক ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান রাজস্ব সংগ্রহ, প্রদান ও আলোচনায় অধিকতর মনোনিবেশ করায় আমরা আনন্দিত।’
 
অভ্যন্তরীণ সম্পদ সংগ্রহের চিত্র পর্যালোচনা করে তিনি বলেন, ১৯৭২-৭৩ অর্থবছরে রাজস্ব সংগ্রহের পরিমাণ ছিল মাত্র ১৬৬ কোটি টাকা। 
 
‘প্রায় চার দশকের ব্যবধানে ২০১৪-১৫ অর্থবছর ১ লাখ ৩৫ হাজার ৭০০ কোটি টাকা রাজস্ব সংগ্রহ করেছে, যা ১৯৭২-৭৩ অর্থবছরের তুলনায় প্রায় ৮২৩ গুণ বেশি।’
 
এনবিআর চেয়ারম্যান বলেন, চলতি অর্থবছরের মে মাস পর্যন্ত রাজস্ব লক্ষ্যমাত্রা ১ লাখ ২৯ হাজার ৯০২ কোটি টাকার বিপরীতে অতিরিক্ত ২ হাজার ৩৯৩ কোটি টাকা বেশি আদায় হয়েছে।
 
‘রাজস্ব আদায় প্রবৃদ্ধি ১৪ দশমিক ১৮ শতাংশ। এ বিশাল অর্জনে দেশপ্রেমিক সুনাগরিক হিসেবে করদাতাদের সহযোগিতা ও অবদানের কথা এনবিআর শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণ করছে।’
 
চেয়ারম্যান বলেন, করদাতাদের অকুণ্ঠ সমর্থন ও সহযোগিতার ফলে চলতি ও আগামী অর্থবছরেও রাজস্ব লক্ষ্যমাত্রা অতিক্রম করা সম্ভব হবে।
 
সুশাসন ও উন্নততর ব্যবস্থাপনা পদ্ধতি প্রবর্তনের মাধ্যমে এনবিআর গতানুগতিকতার বাইরে এসে একটি সেবাধর্মী প্রতিষ্ঠানে রূপান্তরের প্রয়াস চালাচ্ছে বলেও উল্লেখ করেন তিনি। 
 
রাজস্ব আহরণের ক্ষেত্রে হয়রানি, করফাঁকি ও দুর্নীতির বিরুদ্ধে ‘জিরো টলারেন্স’ ঘোষণা করে ‘করদাতা বান্ধব রাজস্ব সংস্কৃতি’ গড়ে তোলার প্রচেষ্টা চালানো হচ্ছে উল্লেখ করে এনবিআর চেয়ারম্যান বলেন, এরই অংশ হিসেবে সৎ করদাতাদের নানাবিধ প্রণোদনা, সহায়তা প্রদান করা ও কর ফাঁকিবাজদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণের নীতি অবলম্বন করা হচ্ছে। 
 
‘এসডিজি’র এফএফডি ঘোষণাপত্রের আলোকে রাজস্ব প্রশাসনকে আধুনিকীকরণ ও শক্তিশালীকরণের মাধ্যমে অভ্যন্তরীণ সম্পদ সংগ্রহের ওপর গুরুত্বারোপ করা হয়েছে।’
 
তিনি উল্লেখ করেন, প্রধানমন্ত্রী ৩০ জানুয়ারি চট্টগ্রামে এক সভায় অর্থনৈতিক উন্নয়ন ও অগ্রগতিকে ত্বরান্বিত করতে প্রত্যেক নাগরিককে যথাযথ কর দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন।
 
নজিবুর রহমান বলেন, এশিয়ার একটি উন্নয়নশীল দেশে ৯ কোটি মানুষের মধ্যে প্রায় ৩ কোটি মানুষ নিয়মিত সরকারকে আয়কর দিচ্ছে।
 
‘বাংলাদেশের ১৬ কোটি মানুষের মধ্যে মাত্র ১২ লাখ মানুষ নিয়মিতভাবে আয়কর দিচ্ছে। অনেকেই করযোগ্য আয় থাকা সত্ত্বেও কর দিতে অনীহা প্রকাশ করছেন।’
 
দেশের উন্নয়নের জন্য প্রচুর রাজস্বের প্রয়োজন। উন্নয়নের অক্সিজেন হলো রাজস্ব। দেশের উন্নয়নে রাজস্ব দিতে সবার প্রতি অনুরোধ জানান এনবিআর চেয়ারম্যান।

এ আর/ ১৪:৩৫/ ২৩জুন

 

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে