Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print
আপডেট : ০৬-২৩-২০১৬

পোস্ট ডক্টরাল গবেষণার খুঁটিনাটি

পোস্ট ডক্টরাল গবেষণার খুঁটিনাটি

স্টকহোম, ২৩  জুন- পোস্ট ডক্টরাল গবেষণা বিষয়ে আমাদের তরুণদের মধ্যে আছে অস্পষ্টতা। অনেকেই বিষয়টি নিয়ে জানার আগ্রহ প্রকাশ করেন। তা ছাড়া ইউরোপ-আমেরিকায় এটি প্রায় অপরিহার্য হয়ে পড়েছে। তাই বিষয়টি নিয়ে সংক্ষিপ্তভাবে তুলে ধরা হলো।

ডক্টরাল গবেষণা (পিএইচডি) পরবর্তী কারও অধীনে গবেষণা করাই পোস্ট ডক্টরাল গবেষণা (Post doctoral reasarch) বলে বিবেচ্য। পোস্ট ডক্টরাল গবেষণাকে সংক্ষেপে পোস্ট ডক (Post doc) বলা হয়। এটা কোনো স্বতন্ত্র ডিগ্রি নয়। যেহেতু পিএইচডি হলো সর্বোচ্চ একাডেমিক ডিগ্রি, তাই পোস্ট ডক করলে ভিন্ন কোনো ডিগ্রি পাওয়া যায় না। পোস্ট ডক করার সময় পিএইচডির মতো কোনো থিসিসও লিখতে হয় না।

ইউরোপ-আমেরিকায় চাকরি কিংবা একাডেমিক গবেষক–শিক্ষক হতে পোস্ট ডক্টরাল গবেষণা প্রয়োজন। এশিয়ার অনেক দেশেও (জাপান, চীন ও ভারত) একাডেমিক গবেষক–শিক্ষক হতে গেলে, শুধু পিএইচডি থাকলে চলে না। পোস্ট ডক্টরাল গবেষণার অভিজ্ঞতা দরকার হয়। ফলে অসংখ্য শিক্ষার্থীকে এখন ডক্টরাল গবেষণা শেষ করে পোস্ট ডক করতে হয়। শিক্ষার্থীরা একজন অধ্যাপকের অধীন পিএইচডি করেন, অন্য এক অধ্যাপকের অধীন পোস্ট ডক করতে চান। এতে ভিন্ন বিষয়ে জ্ঞান বাড়ে। ভিন্ন পরিবেশে কাজ করার অভিজ্ঞতা হয়। পাশাপাশি একাধিক অধ্যাপকের সঙ্গে সম্পর্ক তৈরি হয়, যারা একাডেমিক রেফারি (Academic Referee) হিসেবে কাজ করেন। অধিকন্তু, পিএইচডি শেষ হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে উপযুক্ত চাকরি খুঁজে পাওয়া দিনে-দিনে কঠিন হয়ে পড়েছে। ফলে অনেক শিক্ষার্থী পিএইচডি শেষ করেই পোস্ট ডক করেন। যেহেতু পোস্ট ডক করলে অর্থের জোগান থাকে, তাই বেকার না থেকে পোস্ট ডক করাই জুতসই মনে করেন।


পোস্ট ডক করার জন্য স্বাভাবিকভাবেই পিএইচডি থাকতে হবে। পিএইচডি শেষ হওয়ার আগেই বিভিন্ন অধ্যাপকদের কাছে আবেদনপত্র পাঠাতে হবে। লিখতে হয় রিসার্চ প্রপোজাল। গবেষণার পরিকল্পনা নিয়ে স্বল্প পরিসরে সঠিক ও চমৎকার প্রপোজাল লিখতে পারা এ ক্ষেত্রে অপরিহার্য। পোস্ট ডকের জন্য বিভিন্ন দেশে অনেক স্কলারশিপ দেওয়া হয়। অনেকে সে সব স্কলারশিপ নিয়ে নিজের পছন্দমতো প্রফেসরের অধীন পোস্ট ডক করতে পারেন। ইউরোপ-আমেরিকায় একজন পোস্ট ডক গবেষক গড়ে বার্ষিক ৪০-৫০ হাজার ডলার বেতন পেয়ে থাকেন। কখনো কখনো সে টাকার ওপর আয়কর দিতে হয়। তবে সেটা নির্ভর করে দেশ ও ফান্ডের ধরনের ওপর।

পিএইচডির মতো পোস্ট ডকের জন্য নির্দিষ্ট কোনো সময় থাকে না। সাধারণত কমপক্ষে এক বছরের চুক্তি থাকে। পাশ্চাত্যে ও পশ্চিমে অনেকে ২-৬ বছর পর্যন্ত পোস্ট ডক করছে। ইন্ডাস্ট্রিতেও পোস্ট ডক করা যায়। কখনো কখনো সেখানে বেতনও বেশি থাকে। তবে অনেক সময় ইন্ডাস্ট্রিতে গবেষণা করলে গবেষণাপত্র (Research Article) প্রকাশ করা যায় না। এ কারণে অনেক শিক্ষার্থী, বিশেষ করে যারা শিক্ষক/গবেষক হতে চান, তারা ইন্ডাস্ট্রিতে পোস্ট ডক করতে অনিচ্ছুক থাকেন।

(ড. রউফুল আলম, গবেষক, স্টকহোম ইউনিভার্সিটি, সুইডেন। ইমেইল: redoxrouf@yahoo.com)

আর/০২:০৪/২৩ জুন

শিক্ষা

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে