Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 1.3/5 (3 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print
আপডেট : ০৬-২৩-২০১৬

আকাশছোঁয়ার স্বপ্ন নিয়ে মডেলকন্যা এখন স্মাগলার

আকাশছোঁয়ার স্বপ্ন নিয়ে মডেলকন্যা এখন স্মাগলার

কলকাতা, ২৩ জুন- মাধ্যমিক পাসের পর মডেলিং দুনিয়ায় যাতায়াত শুরু হয় কলকাতার মেয়ে সঙ্গীতা চট্টোপধ্যায়ের। সে সময় টিভি কমার্শিয়ালে সুযোগ আসে বেশকয়েকটি। তাই পড়াশুনো বেশি দূর এগোয়নি। এয়ার হোস্টেসের কোর্স করার পর, ওই পেশাতেও কিছুদিন কাটান তিনি। 

তবে তিনি সামনে আসেন ২০১৪ সালে। লাল চন্দনকাঠের আন্তর্জাতিক চোরাকারবারের মূলহোতা মারকোন্ডান লক্ষ্মণ ওরফে লক্ষ্মণ ডাঙ্গে ওরফে তামাংকে গ্রেপ্তার করার পর। লক্ষ্মণকে জেরা করেই পুলিশ জানতে পারে সঙ্গীতার নাম। সঙ্গীতা মূলত লক্ষ্মণের ট্রাম কার্ড। 

আজ দিল্লি, কাল পটনা, পরশু কলকাতা। কলকাতা এসেই শুরু হতো ল্যাভিশ পার্টি। তাতে মদের ফোয়ারা ছুটতো। নতুন নতুন মডেলদের থাকতো আনাগোনা। এমনই এক পার্টিতে লক্ষ্মণের চোখে পড়ে যান সঙ্গীতা। সঙ্গীতারও তখন আকাশছোঁয়ার স্বপ্ন। অঙ্ক মিলে যায় লক্ষ্ণণের সঙ্গে আলাপ করে। তারপর থেকেই কলকাতায় অস্থায়ী আস্তানা তৈরি হয় লক্ষ্মণের। 

লক্ষ্মণের মাধ্যমেই আন্তর্জাতিক চোরাচক্রের সঙ্গে পরিচিত হন সুন্দরী সঙ্গীতা। চোরাচালান চক্রের খুঁটিনাটি রপ্ত করেন তিনি। এরপর নিজেই ধীরে ধীরে জাল বিস্তার করতে শুরু করেন। মুম্বই, চেন্নাই, বেঙ্গালুরু, কলকাতা, এমনকি বিদেশেও নেটওয়ার্ক ছড়ান সঙ্গীতা। 

চোরাই চন্দনকাঠ বিভিন্ন রাজ্য ঘুরে, বর্ডার পেরিয়ে চলে যায় মিয়ানমার। তবে সম্পূর্ণ অপারেশন করতে লাগে প্রচুর লোক, তাও বিশ্বস্ত। আর লক্ষ্মণের হয়ে সেই গুরুদায়িত্ব সামলাতেন সঙ্গীতা। গত কয়েকবছরে চোরাচালানের মাধ্যমে কয়েক কোটি টাকাও কামিয়েছেন লক্ষ্মণ ও সঙ্গীতা।

এদিকে চিত্তুর (অন্ধ্রপ্রদেশ) পুলিশের একটি দল গত ১১ মে সঙ্গীতার নেতাজিনগরের বাড়িতে হানা দিয়ে তাকে গ্রেপ্তার করে। পরের দিন আলিপুর আদালতে তোলা হয় রিমান্ডের জন্য। কিন্তু আদালতে জামিন পেয়ে যান ক্ষমতাধর সঙ্গীতা। 

তবে হতাশ হয়নি চিত্তুর পুলিশের ওই দলটি। তারা এবার সঙ্গীতার ব্যাংক অ্যাকাউন্ট বাজেয়াপ্ত করার অনুমতি চায় আদালতে। তাকে রিমান্ডে নিতে না পারলেও এই অনুমতি নিয়ে গত ১৯ জুন সঙ্গীতার অ্যাকাউন্ট খোলে পুলিশ। কয়েক কোটি টাকার সম্পত্তি বা সম্পত্তির কাগজ উদ্ধার হয় ওই লকার থেকে। 

পুলিশ বলছে, সম্পদের মধ্যে আড়াই কেজি সোনা, এক কেজি রূপা, ১৫০টি বিদেশি মুদ্রা, ৬০ লাখ টাকা মূল্যের জমির কাগজপত্র বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে। ব্যাংক অ্যাকাউন্ট পরীক্ষা করে দেখেছে, ইতিমধ্যেই ৯০ লাখ টাকার ট্র্যানজাকশন করেছেন সঙ্গীতা।

আর/০২:০৪/২৩ জুন

পশ্চিমবঙ্গ

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে