Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 1.5/5 (2 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print
আপডেট : ০৬-১৫-২০১৬

নিউইয়র্কে ষোড়শ উত্তর আমেরিকা নজরুল সম্মেলন

নিউইয়র্কে ষোড়শ উত্তর আমেরিকা নজরুল সম্মেলন
বক্তব্য দিচ্ছেন ইকবাল বাহার চৌধুরী

নিউইয়র্ক, ১৫ জুন- যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কে অনুষ্ঠিত হয়েছে ষোড়শ উত্তর আমেরিকা নজরুল সম্মেলন। জাঁকজমকপূর্ণ এ সম্মেলনে কাজী নজরুল ইসলামের সাহিত্যকর্ম নিয়ে সেমিনার, স্মৃতিচারণ, সংগীত, নৃত্য, আবৃত্তি ও কাওয়ালির পাশাপাশি গবেষণামূলক পরিবেশনা দর্শক ও বোদ্ধাজনকে বিমোহিত করে। এবার বাংলাদেশ, ভারত, নিউজিল্যান্ড ও উত্তর আমেরিকার বিভিন্ন অঙ্গরাজ্য থেকে উল্লেখযোগ্য সংখ্যক শিল্পী ও নজরুল গবেষক সম্মেলনে অংশ নেন। এ ছাড়া সম্মেলনে নজরুলকে নতুন প্রজন্মের কাছে পরিচয় করিয়ে দেওয়ার উদ্দেশ্যে বিভিন্ন বিষয়ে শিশু-কিশোরদের জন্য একটি প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়। প্রতিযোগিতার বিজয়ীদের নজরুল সম্মেলনের মঞ্চে পুরস্কৃত করা হয়।


সংগীত পরিবেশন করছেন সুজিত মুস্তাফা

নিউইয়র্কের জ্যামাইকা সিটির সুজান এ্যানথনি একাডেমিতে ২৮ ও ২৯ মে এই সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। প্রথম দিন সন্ধ্যায় চমৎকার আবহাওয়ায় আনুষ্ঠানিকভাবে নজরুল সম্মেলন উদ্বোধন করেন প্রধান অতিথি ভয়েস অব আমেরিকার বাংলা বিভাগের সাবেক প্রধান, আবৃত্তিকার ও কবি নজরুলের বন্ধুর পুত্র ইকবাল বাহার চৌধুরী। এ সময় তাঁর সঙ্গে ছিলেন নিউইয়র্কের বাংলাদেশ কনস্যুলেটের কনসাল জেনারেল শামীম আহসান, নজরুল সম্মেলনের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি ড. সুলতান আহমেদ, সহসভাপতি ডা. জিয়াউদ্দিন আহমেদ, সহসভাপতি প্রকৌশলী মাহমুদ মোশাররফ হোসেন, প্রধান উপদেষ্টা ড. দেলোয়ার হোসেন, আহ্বায়ক মো. কবির কিরণ, প্রধান সমন্বয়কারী অধ্যাপক জাহাঙ্গীর শাহনেওয়াজ ডিকেন্স ও ওয়াহিদ হুসাইনী প্রমুখ।

দুই দিনব্যাপী এই সম্মেলন আয়োজন করে শতদল। সহযোগিতা করে জ্যামাইকা বাংলাদেশ ফ্রেন্ডস সোসাইটি।


নৃত্য পরিবেশন করছেন মুনমুন আহমেদ

প্রথম দিন সম্মেলন শেষ হয় মধ্যরাতে বুকের মধ্যে ভালো লাগার অনুরণন বাজিয়ে। বিদ্বজ্জন ও বিদগ্ধ ব্যক্তিদের কবি নজরুল নিয়ে নানা উম্মোচনমূলক আলোচনা ও নিবন্ধে বেরিয়ে আসে নানা তথ্য। কবির নাতনি কাজী অনিরুদ্ধের মেয়ে অনিন্দিতা কাজীর স্মৃতিচারণ, আলোচনা, আলাপচারিতা ও সংগীত শ্রোতাদের মন ভরিয়ে দিয়েছে। নিউইয়র্কের সাপ্তাহিক বাঙালি পত্রিকার সম্পাদক কৌশিক আহমেদের সঙ্গে আলাপচারিতায় বেরিয়ে এসেছে কবি সম্পর্কে অনেক তথ্য। নিউজিল্যান্ড থেকে আসা শিল্পী সাবিহা মাহবুবের গান, ঢাকা থেকে আসা ফেরদৌস আরা, লীনা তাপসী ও সুজিত মুস্তাফার গান প্রাণ ভরে উপভোগ করেন শ্রোতারা। সেই সঙ্গে মুনমুন আহমেদের নাচও ছিল বাড়তি পাওনা। আরও ছিল অনুপ বড়ুয়ার গান। তাঁদের পাশাপাশি আমেরিকার শিল্পী শর্মিষ্ঠা ব্যানার্জি, কাবেরী দাশ, স্বপ্না কাউসার, ড. রফিকুল ইসলাম, লুৎফুন্নাহার লতা, অজন্তা সিদ্দিকী, মেরিস্টেলা শ্যামলী আহমেদ, শম্পা হক, চন্দন চৌধুরী, ফেরদৌসী ইকরাম, পারমিতা মুমু, সাদিয়া চৌধুরী, ইমা হক, লিমন চৌধুরী, কান্তা আলমগীরের নজরুল সংগীত পরিবেশনাও সকলে উপভোগ করেন। 


সংগীত পরিবেশন করছেন অনিন্দিতা কাজী

আর বিপার পরিবেশনা ঐ নতুনের কেতন নজরুলের সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির মর্মবাণীকে ঝান্ডার মতো তুলে ধরেছে সমবেত নৃত্যের মধ্য দিয়ে। নৃত্যের তালে তালে নজরুলকে আরও উদ্ভাসিত করেন বাপা, শতদল, শিল্পকলা একাডেমি ও স্থানীয় শিল্পীরা। একক নৃত্য পরিবেশন করে জেরিন মাইশা, অন্তরা সাহা, ফারদিনা ইউসুফ, তানজিলা নেওয়াজ, মার্শা, তৃণা ইকবাল, শ্রাবণী মাহমুদ ও সাভানাহ মাহমুদ।

কবি কাজী নজরুল ইসলামের কবিতা আবৃত্তি করেন ডা. ফারুক আজম, রাহাত মোক্তাদির, আনোয়ারুল হক, জাহাঙ্গীর ডিকেন্স, লুৎফুন্নাহার লতা ও ড. নজরুল ইসলাম। বাড়তি ছিল ইকবাল বাহার চৌধুরীর আবৃত্তি। নজরুলের যদি বাঁশি আর না বাজে অভিভাষণটি দ্বৈত কণ্ঠে আবৃত্তি করেন অনিন্দিতা কাজী ও মোহাম্মদ কবির কিরণ। তাঁদের অনবদ্য আবৃত্তি হলভর্তি দর্শকদের বিমোহিত করে।


সংগীত পরিবেশন করছেন ফেরদৌস আরা

সমবেত সংগীত পরিবেশন করেন সংগীত পরিষদ, সুরবাহার, শিল্পকলা একাডেমি, বাংজে ও শতদলের শিল্পীরা। তপন মোদকের নেতৃত্বে পণ্ডিত কিষান মহারাজ তাল তরঙ্গ একাডেমির শিক্ষার্থীরা তবলা লহড়ায় অংশ নেয়। গোলাম সোহরাবের নেতৃত্বে শৌখিনের শিল্পীরা পরিবেশন করেন বুলবুল-ই-কাওয়ালি। রঙ্গালয়ের পরিবেশনা ছিল মনোমুগ্ধকর।

নজরুল সম্মেলনের উল্লেখযোগ্য পর্ব ছিল সেমিনার ও আলোচনা। শনিবার ও রোববার একটি করে সেমিনার হয়। রোববার হয় একটি আলোচনা অনুষ্ঠান। শনিবারের সেমিনারে নজরুল ও সুফিজম নিয়ে বক্তব্য দেন কলাম্বিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের বার্নার্ড কলেজের অধ্যাপক ড. র‍্যাচেল ম্যাকডরমেট, যুক্তরাষ্ট্রে নজরুল চর্চা নিয়ে বক্তব্য দেন কানেকটিকাটের নজরুল গবেষক ড. গুলশান আরা কাজী, নজরুল সাহিত্যের অনুবাদ প্রসঙ্গে বলেন বোস্টনের ড. সাজেদ কামাল আর নজরুলের পড়াশোনা প্রসঙ্গে বক্তব্য দেন সাপ্তাহিক বাঙালি সম্পাদক কৌশিক আহমেদ। এই সেমিনার সঞ্চালনা করেন ভয়েস অব আমেরিকার সাংবাদিক আনিস আহমেদ।


অতিথি​দের উত্তরীয় পরিয়ে দেওয়া হচ্ছে

রোববারের সেমিনারে নজরুল সংগীতে লাভ অ্যান্ড মিস্টিসিজম নিয়ে বক্তব্য দেন ইউনিভার্সিটি অব কলোরাডোর অধ্যাপক ড. হায়দার খান, নজরুল সংগীতের স্পিরিচুয়াল ট্র্যাডিশন সম্পর্কে বক্তব্য দেন নিউইয়র্কের নাসাউ কমিউনিটি কলেজের অধ্যাপক ড. নীলা ভট্টাচার্য, নজরুল সাহিত্যের অনুবাদ প্রসঙ্গে পুনরায় বলেন ড. সাজেদ কামাল। এই সেমিনার সঞ্চালনা করেন ড. গুলশান আরা কাজী। রোববার বিকেলে আয়োজিত প্যানেল ডিসকাশনে অংশ নেন কবির নাতনি অনিন্দিতা কাজী, টেক্সাস থেকে আগত অধ্যাপক ড. মুস্তাফা মণির ও ভয়েস অব আমেরিকার বাংলা বিভাগের প্রধান রোকেয়া হায়দার। এই প্যানেল ডিসকাশন সঞ্চালনায় ছিলেন কৌশিক আহমেদ। সংক্ষিপ্ত আলোচনার পর আলাপচারিতায় অনিন্দিতা কাজী কবির নানা অজানা দিক তুলে ধরেন।


দর্শক-শ্রোতার একাংশ

সম্মেলনের টাইটেল স্পনসর ছিলেন মুক্তাদির ইনকের রাহাত মোক্তাদির, গ্র্যান্ড স্পনসর ছিলেন রিয়েল এস্টেট ইনভেস্টর মো. আনোয়ার হোসেন। গোল্ড স্পনসর ছিল পিপল অ্যান্ড টেক ও ওয়েলকেয়ার। মিডিয়া পার্টনার ছিল এনটিভি, সিনেবাংলা, সাপ্তাহিক বাঙালি ও সাপ্তাহিক জন্মভূমি।

দুই দিনব্যাপী নজরুল সম্মেলনের বিভিন্ন পর্ব পালাক্রমে উপস্থাপনা করেন উপস্থাপক আবির আলমগীর, সাবিনা শারমিন নিহার, শারমিন রেজা ইভা, ডানা ইসলাম, সাঈদা পারভীন ও মেহের কবির। নজরুল সম্মেলন উপলক্ষে বাঁশরী নামে একটি স্মরণিকা প্রকাশিত হয়। রোববার অনুষ্ঠানের শেষ পর্বে আহ্বায়ক মোহাম্মদ কবির কিরণ একটি সফল সম্মেলন আয়োজনে সকলের সহযোগিতার জন্য কৃতজ্ঞতা ও ধন্যবাদ জানান। বিজ্ঞপ্তি।

আর/১৭:২৪/১৫ জুন

যূক্তরাষ্ট্র

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে