Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print
আপডেট : ০৬-১৩-২০১৬

‘বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পরিবেশ তৈরি করেছিল জাসদ’

‘বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পরিবেশ তৈরি করেছিল জাসদ’

ঢাকা, ১৩ জুন- ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও জনপ্রশাসন মন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম বলেছেন, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (জাসদ) বঙ্গবন্ধুর হত্যার পরিবেশ তৈরি না করলে দেশ অনেক আগেই উন্নত রাষ্ট্রে পরিণত হত। আর সেই দল থেকে একজনকে মন্ত্রী করার জন্য ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগকে প্রায়শ্চিত্ত করতে হবে।

রাজনীতিতে ভুল করলে তার প্রায়শ্চিত্ত সারা জীবন করতে হয় উল্লেখ করে তিনি বলেন, দেশকে একটি অকার্যকর রাষ্ট্রে পরিণত করতে জাসদ সুপরিকল্পিতভাবে মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে ভিন্নখাতে প্রবাহিত করেছিল।

তিনি আজ সোমবার বিকেলে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-শিক্ষক কেন্দ্র (টিএসসি) মিলনায়তনে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের দু’দিনব্যাপী বর্ধিত সভা ও কর্মশালার সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

সভায় ছাত্রলীগ নেতা-কর্মীদের ‘হঠকারী দল’ জাসদ থেকে সতর্ক থাকার পরামর্শ দিয়ে সৈয়দ আশরাফ আরো বলেন, ‘বৈজ্ঞানিক সমাজতন্ত্রের নামে ছাত্রলীগ থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে জাসদ গঠন করা হয়। মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে জাসদ নামক বৈজ্ঞানিক সমাজতন্ত্রবাদীরা সম্পূর্ণ ভিন্ন দিকে পরিচালিত করে।

মুক্তিযুদ্ধ আমাদের ইতিহাসের একটি অংশ। কিন্তু জাসদের নেতা-কর্মীরা এই সফল মুক্তিযুদ্ধকে বিতর্কিত করার চেষ্টা করছিল। বঙ্গবন্ধু দেশে ফেরার আগেই দেশকে তারা ছিন্নভিন্ন করার চেষ্টা করেছিল। তারা যদি বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করার সমস্ত পরিবেশ সৃষ্টি না করত, তবে বাংলাদেশ একটি ভিন্ন বাংলাদেশ হত।’

বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি(সিপিবি)’র কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘আমরা যখন মধুর ক্যান্টিনে চা খেতাম তখন কমিউনিস্ট পাটির বন্ধুরা হোটেল শেরাটনে বসে রেড ওয়াইন খেত।

আশরাফ বলেন, জাসদ ষড়যন্ত্র করে একটি সফল মুক্তিযুদ্ধকে বিতর্কিত করেছিল। কাজেই হঠকারীদের কখনো প্রশ্রয় দেয়া যাবে না।

তিনি বলেন, যারা বিপ্লবের কথা বলে তারা কখনও বিপ্লব সফল করতে পারে না। আর যারা মুখে বড় বড় কথা বলে তাদের সাহস খুবই কম।

আওয়ামী লীগের এই নেতা বলেন, বিশ্ব এগিয়ে যাচ্ছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সমান তালে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পক্ষে শতভাগ বাস্তবায়ন সম্ভব হবে না। বঙ্গবন্ধু বাংলাকে আপনাদের পুরোপুরিভাবে বাস্তবায়ন করতে হবে।

সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট জাহাঙ্গীর কবির নানক, আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের সদস্য সুজিত রায় নন্দী, র আ ম উবায়দুল মোক্তাদির চৌধুরী, বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি মাইনুদ্দিন হাসান চৌধুরী, সাবেক সাধারণ সম্পাদক ইসাহাক আলী খান পান্না ও সাবেক সভাপতি লিয়াকত শিকদার।

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে