Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print
আপডেট : ০৬-১৩-২০১৬

মিতু হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় পাঁচ কমিটি  

মিতু হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় পাঁচ কমিটি

 

চট্টগ্রাম, ১৩ জুন- এসপি বাবুল আক্তারের স্ত্রী মাহমুদা খানম মিতু হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় পাঁচটি বিশেষ কমিটি গঠন করেছে চট্টগ্রাম নগর পুলিশ (সিএমপি)। রোববার (১২ জুন) সিএমপির শীর্ষ এক কর্মকর্তা এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

রোববার দুপুরে সিএমপিতে পুলিশ মহাপরিদর্শক একেএম শহীদুল হকের উপস্থিতিতে এক সভায় এ পাঁচটি কমিটির ঘোষণা দেয়া হয়। তবে এটিতে অফিস স্বাক্ষর রয়েছে গত ৬ জুনের।
কমিটিগুলো হচ্ছে- অভিযানিক, জেরা ও জিজ্ঞাসাবাদ, কেস ডকেট পর্যালোচনা, ভিডিও ফুটেজ সংগ্রহ ও পর্যালোচনা এবং গোয়েন্দা তথ্য সংগ্রহ।

অভিযানিক কমিটির দায়িত্বে রয়েছেন নগর গোয়েন্দা পুলিশের অতিরিক্ত উপ কমিশনার (উত্তর) নাজমুল আলম। এ কমিটির অন্যান্য সদস্যরা হলেন- সহকারি কমিশনার (ডিবি বন্দর) মো. আতিকুজ্জামান, পাঁচলাইশ থানার ওসি মহিউদ্দিন মাহমুদ, ডিবির ইন্সপেক্টর আতিক আহমেদ, আব্দুর রহিম, শাহদাত উল্লাহ খান।

জেরা ও জিজ্ঞাসাবাদ কমিটির দায়িত্বে নগর গোয়েন্দা পুলিশের অতিরিক্ত উপ কমিশনার (দক্ষিণ) হুমায়ন কবির। এ কমিটির অন্যান্য সদস্যরা হলেন- সহকারি কমিশনার এবিএম ফয়েজুল চৌধুরী, সহকারি কমিশনার (ডিবি-পশ্চিম) কীর্তিমান চাকমা, বায়েজিদ বোস্তামী থানার ওসি মোহাম্মদ মহসীন, ডিবির ইন্সপেক্টর মো. ফজলুল করিম সেলিম, মো. এনামুল হক, এস এম ফজলুর রহমান ফারুকী।

কেস ডকেট পর্যালোচনা কমিটির দায়িত্বে নগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ কমিশনার (দক্ষিণ) সৈয়দ শাহ মো. আব্দুর রউফ। এ কমিটির অন্যান্য সদস্যরা হলেন- সহকারি কমিশনার (ডিবি প্রশাসন, আইসিটি ও জনসংযোগ) জাহাঙ্গীর আলম, সহকারি কমিশনার (পাঁচলাইশ জোন) আসিফ মহিউদ্দিন, এসআই (ডিবি) মো. ওয়ালি উদ্দিন আকবর, শিবেন বিশ্বাষ রাছিফ খান, আজমীর শরীফ।

ভিডিও ফুটেজ সংগ্রহ কমিটির দায়িত্বে নগর গোয়েন্দা পুলিশের সহকারি কমিশনার (আইসিটি) জাহাঙ্গির আলম। এ কমিটির অন্যান্য সদস্যরা হলেন- ডিবির ইন্সপেক্টর কেশব চক্রবর্তি, রনোজিত রায়, ডিবির এসআই মো. লিয়াকত আলী ও ডিবির এএসআই নজরুল ইসলাম।

গোয়েন্দা তথ্য সংগ্রহে নেতৃত্ব রয়েছেন নগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ কমিশনার (উত্তর) কাজী মুত্তাকি ইবনু মিনান। এ কমিটির অন্যান্য সদস্যরা হলেন- সহকারি কমিশনার (বন্দর জোন) মো. জাহেদুল ইসলাম, বায়েজিদ বোস্তামী থানার ওসি মোহাম্মদ মহসীন, বন্দর থানার ওসি একেএম মহিউদ্দিন, আকবর শাহ থানার ওসি সদিপ কুমার দাশ, পুলিশ পরিদর্শক (ইমিগ্রেশন) নেজাম উদ্দিন, চান্দগাঁও থানার ওসি সৈয়দ আবু মো. শাহজাহান, কোতোয়ালী থানার ওসি জসিম উদ্দিন ও এসআই ডিবি কাজল দাশ।

প্রতিটি কমিটিতে কমপক্ষে পাঁচ থেকে ছয়জন সিএমপির চৌকস পুলিশ কর্মকর্তাকে রাখা হয়েছে।

গত ৫ জুন সকাল ৭টার দিকে নগরীর জিইসি মোড়ে প্রকাশ্যে গুলি করে পুলিশ কর্মকর্তা বাবুল আক্তারের স্ত্রী মাহমুদা আক্তার মিতুকে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা। স্ত্রী হত্যার ঘটনায় গত ৬ জুন বাবুল আক্তার নিজেই বাদি হয়ে পাঁচলাইশ থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

এ আর /৮:০৫/ ১৩ জুন

জাতীয়

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে