Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print

আপডেট : ০৬-১৩-২০১৬

চালু সিম বিক্রি বন্ধে ‘শুরু হচ্ছে’ অভিযান

চালু সিম বিক্রি বন্ধে ‘শুরু হচ্ছে’ অভিযান

ঢাকা, ১৩ জুন- বায়োমেট্রিক নিবন্ধনের পরও দেশের বিভিন্ন স্থানেই পাওয়া যাচ্ছে আগে থেকে চালু মোবাইল সিম। 

কয়েকদিন আগে মাগুরা জেলা শহরেও কয়েকটি দোকানে জাতীয় পরিচয়পত্র ও আঙুলের ছাপ ছাড়াই বিক্রি হচ্ছিল এ ধরনের সিম।

বিক্রেতার শর্ত একটাই, কোন দোকান থেকে কিনেছেন তা কাউকে বলা যাবে না। হারিয়ে গেলে আর চালু করা যাবে না।

“বোঝেন তো কার না কার ভোটার আইডি কার্ড , আঙুলের ছাপ দিয়ে বায়োমেট্রিক করা,” বলেন মাগুরা শহরের সৈয়দ আতর আলী রোডে একটি দোকানের সিম বিক্রেতা।

এসব শর্ত মেনে ১৮০ টাকা দিয়ে বায়োমেট্রিক নিবন্ধিত একটি সিম কিনতে দেখা যায় একজনকে। ওই সড়কের অন্য একটি দোকানেও ৩০০ টাকায় এই ধরনের সিম বিক্রি হতে দেখা যায়।

বৃহস্পতিবার দুপুরে ওই সড়কে ম্যাজিস্ট্রেট অভিযানে নামলে সিম বিক্রেতা দোকানিরা সাবধান হয়ে গেলেও এরপর আবার অনেক  দোকানেই মিলছে বায়োমেট্রিক নিবন্ধিত সিম।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন বলেন, “সিম বায়োমেট্রিক নিবন্ধন করতে আসা অনেক সাধারণ মানুষের আঙুলের ছাপের বিপরীতে একাধিক সিম নিবন্ধন করে রেখেছেন অসাধু দোকানিরা। এখন বেশি দামে তা বিক্রি করছেন।”

এর ফলে বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে নিবন্ধনের মূল উদ্দেশ্যই ভেস্তে যাবে বলে শঙ্কা প্রকাশ করেন মাগুরা জেলা জাসদের সভাপতি এটিএম মহব্বত আলী।

“বিষয়টি রীতিমতো ভয়ঙ্কর। সন্ত্রাসী, জঙ্গিরা এ সুযোগ কাজে লাগিয়ে সাধারণ নিরাপরাধ মানুষকে বিপদে ফেলবে।”

মাগুরার মতো দেশের বিভিন্ন স্থানে এই ধরনের সিম বিক্রির অভিযোগ আসার পর চালু থাকা (প্রিঅ্যাকটিভেট) মোবাইল সিম বিক্রি বন্ধে অভিযানে নামতে যাচ্ছে টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিটিআরসি।

এই অভিযানে পুলিশ ও র‌্যাবের সহযোগিতা চেয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে রোববারই চিঠি পাঠানো হয়েছে বলে ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে জানান।

খুব শিগগিরই সারাদেশে এই অভিযান চালানোর পরিকল্পনা জানিয়ে তিনি বলেন,“বাজারে আগে থেকে চালু হওয়া (প্রিঅ্যাকটিভেট) সিম পাওয়া গেলে নিয়ম অনুযায়ী অপারেটরদের সিম প্রতি ৫০ ডলার করে জরিমানা করা হবে।”

পাবনার পুলিশ সুপার এ কে এম এহসান উল্লাহ বলেন, “সুনির্দিষ্ট প্রমাণ পেলে এ ধরনের অসাধু ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে কঠোর আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।”

জেলা প্রশাসক মুহ মাহাবুবর রহমান বলেন, এ ধরনের অভিযোগের ভিত্তিতে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালিত হচ্ছে।

বিটিআরসির নির্দেশনা অনুযায়ী, আগে থেকে চালু হওয়া সিম বিক্রি করা যাবে না। বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে গ্রাহকের পরিচিতি নিশ্চিত হওয়ার পরই সিম চালু করতে হবে অপারেটরদের।

তারানা হালিম জানান, বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে সিম নিবন্ধন প্রক্রিয়া শেষ হওয়ার পর এ প্রক্রিয়ার সঙ্গে যুক্ত খুচরা সিম বিক্রেতা ও বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে সিম যাচাইয়ের সঙ্গে যুক্তদের তথ্য দিতেও মোবাইল ফোন অপারেটরদের নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

বিটিআরসির এক কর্মকর্তা জানান, সম্প্রতি ঢাকা ও ঢাকার বাইরে আগে থেকে চালু হওয়া (প্রিঅ্যাকটিভেট) মোবাইল সিম বিক্রির ঘটনা জানান পর অভিযান চালানোর সিদ্ধান্ত হয়। 

বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে সিম নিবন্ধনে বারবার আঙ্গুলের ছাপ নিয়ে গ্রাহকের অজান্তে একাধিক সিম নিবন্ধনের ঘটনাও ঘটেছে বলে জানিয়েছিল বিটিআরসি।

ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের তথ্য অনুযায়ী, গত ৪ জুন পর্যন্ত মোট ১১ কোটি ৬০ লাখের মত সিম বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে নিবন্ধিত হয়েছে।

নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিটিআরসি’র হিসাবে গত এপ্রিল শেষ নাগাদ গ্রাহকের হাতে থাকা মোবাইল সিমের সংখ্যা ছিল ১৩ কোটি ২০ লাখের মত। এ হিসাবে এখনো দেড় কোটির বেশী সিম নিবন্ধিত না হওয়ায় ঘোষনা অনুযায়ী বন্ধ রয়েছে। তবে গ্রাহকরা ইচ্ছা করলেই বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে নিবন্ধন করে সেই সিম উত্তোলন করতে পারছেন।

আর/১২:৩৪/১৩ জুন

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে