Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print
আপডেট : ০৬-০৭-২০১৬

সন্তানের পরিচয় জানাতে প্রথমেই আসুক মায়ের নাম!

সন্তানের পরিচয় জানাতে প্রথমেই আসুক মায়ের নাম!

কলকাতা, ০৭ জুন- মায়ের নাম নয়৷ সন্তানের পরিচয় হিসেবে প্রায় সকলেই প্রথমে জানতে চান বাবার নাম৷ আর, চালু এই সংস্কৃতির জন্য চড়া মাসুল মাশুল দিচ্ছেন যৌনকর্মীদের সন্তানরা৷ কারণ, চালু এই সংস্কৃতির জেরেও সমাজের মূল স্রোতের সঙ্গে যুক্ত হওয়ার ক্ষেত্রে বিভিন্ন ধরনের সমস্যার সম্মুখীন হচ্ছেন তাঁরা৷

অথচ, এখনও পর্যন্ত তাঁরা যতটা অসম্ভবকে জয় করতে পেরেছেন, সেই তুলনায় আবার অনেক পিছিয়ে রয়েছেন পশ্চিমবঙ্গের বাইরে দেশের বিভিন্ন প্রান্তের যৌনকর্মীদের সন্তানরা৷ এ দিকে, দুনিয়া ক্রমে আরও বদলে চলেছে৷ যদিও, সেই বদলের তুলনায় বিভিন্ন সমাজের বিভিন্ন অংশ নানা ধরনের ছুঁতমার্গ থেকে মুক্ত হতে পারেনি৷ কিন্তু, তাই বলে কি হাত গুটিয়ে বসে থাকা যায়!

আর, তাই, দেশের বিভিন্ন প্রান্তের যৌনকর্মীদের সন্তানরাও যাতে সমাজের মূল স্রোতের সঙ্গে যুক্ত হতে পারেন, এ বার সেই প্রচেষ্টা-ই জারি রাখতে চলেছেন পশ্চিমবঙ্গের যৌনকর্মীদের সন্তানরা৷ কোন পথে, কীভাবে দেশের বিভিন্ন প্রান্তের যৌনকর্মীদের সন্তানদের একজোট করা সম্ভব হতে পারে৷ কীভাবে-ই-বা সমাজের মূল স্রোতের সঙ্গে যুক্ত করানোর জন্য শিক্ষা, স্বাস্থ্য সহ সাংস্কৃতিক বিভিন্ন ক্ষেত্রে তাঁদের সামিল করানো সম্ভব হতে পারে৷ এমনই বিভিন্ন বিষয়ে আগামী জুলাই মাসে সিদ্ধান্তে নেওয়া হবে বলে জানানো হয়েছে৷

ওই সিদ্ধান্ত নেবে পশ্চিমবঙ্গের যৌনকর্মীদের অন্যতম সংগঠন দুর্বার মহিলা সমন্বয় কমিটি৷ এই সংগঠনের অধীনেই রয়েছে এ রাজ্যের যৌনকর্মীদের সন্তানদের সংগঠন আমরা পদাতিক৷ সম্প্রতি, আমরা পদাতিক পূর্ণ করেছে ১০ বছর৷ তবে, এই ১০ বছরে যেমন কম পথ পার হতে হয়নি৷ তেমনই, তার জন্য আবার কম লড়াই-ও জারি রাখতে হয়নি৷ তবে, এখনও অনেক পথ চলার বাকি রয়ে গিয়েছে৷ যে কারণে, একদিকে যেমন আরও পথ চলার জন্য অঙ্গীকার রয়েছে৷ তেমনই অন্যদিকে আবার পশ্চিমবঙ্গের বাইরে দেশের বিভিন্ন প্রান্তের যৌনকর্মীদের সন্তানদের সঙ্গে নিয়ে পথ চলার স্বপ্ন এবং লড়াই-ও রয়েছে৷

কেননা, শুধুমাত্র পশ্চিমবঙ্গ নয়৷ সমাজের প্রান্তিক অংশের বাসিন্দা হিসেবে অন্যান্য রাজ্যের যৌনকর্মীদের সন্তানদেরও যদি সমাজের মূল স্রোতের সঙ্গে যুক্ত করানোর জন্য প্রচেষ্টা জারি রাখা না হয়, তা হলে, সার্বিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হবেন দেশের প্রান্তিক অংশের বাসিন্দারাই৷ এই বিষয়ে দুর্বার মহিলা সমন্বয় কমিটির মুখ্য উপদেষ্টা ডাক্তার স্মরজিৎ জানা বলেন, ‘‘দেশের অন্য রাজ্যগুলির যৌনকর্মীদের সন্তানরাও যাতে আমরা পদাতিকের মতো কোনও সংগঠনের অধীনে থেকে সমাজের মূল স্রোতের সঙ্গে যুক্ত হওয়ার প্রয়াস জারি রাখতে পারে, সেই জন্য গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নিতে চলেছে আমরা পদাতিক৷’’ একই সঙ্গে তিনি বলেন, ‘‘এখনও অনেক সমস্যা রয়েছে৷ ওই সব সমস্যার মধ্যে অন্যতম হল সমাজের চালু সংস্কৃতি৷ এই সংস্কৃতির কারণে, সন্তানের পরিচয় হিসেবে প্রথমেই বাবার নাম জানতে চাওয়া হয়৷ যৌনকর্মীদের সন্তানদের অনেকেই জানেন না তাঁদের বাবার নাম৷ যে কারণে, সমাজের চালু এই সংস্কৃতির জন্য বিভিন্ন ধরনের সমস্যায় পড়তে হচ্ছে যৌনকর্মীদের সন্তানদের৷’’


ওই সমস্যার জেরে স্কুল-কলেজ সহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে কখনও অপমানিত, কখনও আবার হয়রানির শিকার হচ্ছেন যৌনকর্মীদের সন্তানরা৷ যে কারণে, সমাজের মূল স্রোতের সঙ্গে যুক্ত হওয়ার ক্ষেত্রে পিতৃ পরিচয়-ও সমস্যা হিসেবে দেখা দিচ্ছে৷ ডাক্তার স্মরজিৎ জানা বলেন, ‘‘সন্তানের পরিচয় হিসেবে বাবা এবং মা, দু’জনের নাম-ই নেওয়া যায়৷ কিন্তু, সমাজের চালু সংস্কৃতির জন্য আগে বাবার নাম জানতে চাওয়া হয়৷ এই বিষয়টি মোকাবিলার জন্য আইনের বদল প্রয়োজন৷ আইন বদল করে প্রতিটি ক্ষেত্রে সন্তানের পরিচয় হিসেবে প্রথমে মায়ের নাম নেওয়ার বিষয়টি চালু হওয়া প্রয়োজন৷ তা হলে, সার্বিকভাবে সমাজের-ই মঙ্গল হবে৷’’ এ দিকে, কলকাতার বিভিন্ন যৌনপল্লিতে যেভাবে যৌনকর্মীদের সন্তানরা রয়েছেন, সেই তুলনায় আবার বেশি সমস্যায় রয়েছেন কলকাতার বাইরে এ রাজ্যের বিভিন্ন যৌনপল্লির যৌনকর্মীদের সন্তানরা৷ কারণ, ওই সব যৌনপল্লির অধিকাংশ স্থানেই সমাজবিরোধী তথা দুষ্কৃতীদের দৌরাত্ম্যে যৌনকর্মী এবং তাঁদের সন্তানদেরও বিভিন্ন ধরনের সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়৷ যে কারণে, বিভিন্ন ক্ষেত্রে বাড়িতেই সন্তানদের রেখে আসেন ওই সব স্থানের যৌনকর্মীরা৷

তবে, শুধুমাত্র যে আইন বদলের মাধ্যমে সন্তানের পরিচয় হিসেবে প্রথমে মায়ের নাম নেওয়ার দাবিই জানানো হচ্ছে, তাও নয়৷ কারণ, সমাজের মূল স্রোতের সঙ্গে যৌনকর্মীদের সন্তানদের যুক্ত করানোর সঙ্গে নীতি নির্ধারণের বিষয়টিও জড়িত রয়েছে৷ ডাক্তার স্মরজিৎ জানা বলেন, ‘‘বাল্যবিবাহ রোধ এবং শিশুদের স্বাস্থ্য, শিক্ষা, পুষ্টি সহ বিভিন্ন অধিকার সংক্রান্ত বিষয়ে সরকারি নীতি নির্ধারক কমিটিগুলিতে যৌনকর্মীদের সন্তানদের প্রতিনিধি রাখার জন্য আমাদের দাবি রয়েছে৷ কারণ, নীতি নির্ধারণের ক্ষেত্রে যদি যৌনকর্মীদের সন্তানদের তরফে প্রতিনিধি রাখা না হয়, তা হলে যথাযথ নীতি নির্ধারণের ক্ষেত্রেও সমস্যা বাড়ে ছাড়া কমে না৷’’ একই সঙ্গে তিনি জানিয়েছেন, আমরা পদাতিক শুধুমাত্র যৌনকর্মীদের সন্তানদের স্বার্থরক্ষার কথা বলে না৷ বরং, সার্বিকভাবে শিশুদের অধিকার রক্ষার জন্যই লড়াই জারি রেখেছে এই সংগঠন৷ বাল্যবিবাহ রোধ সহ বিভিন্ন ধরনের মাদক দ্রব্যের ব্যবহার, শিশুদের উপর হিংসাত্মক ঘটনার বিরুদ্ধে এবং শিশুদের অধিকার রক্ষায় বিশ্বজুড়ে আন্দোলনের শরিক আমরা পদাতিক৷

পশ্চিমবঙ্গে যৌনকর্মীদের সন্তানদের আত্মসম্মান রক্ষার লড়াইয়ের জেরে প্রতি বছর এখন মাধ্যমিক এবং উচ্চমাধ্যমিক মিলিয়ে ৩০ জনের বেশি সফল হচ্ছেন৷ যৌনকর্মীদের সন্তানরাও এখন চাকরি করছেন৷ তেমনই, শুধুমাত্র শিক্ষা নয়৷ তার সঙ্গে ফুটবল সহ বিভিন্ন ধরনের খেলা এবং নাচ-গান-ছবি আঁকা সহ বিভিন্ন ধরনের সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ডের সঙ্গেও আমরা পদাতিকের মাধ্যমে যুক্ত রয়েছেন যৌনকর্মীদের সন্তানরা৷ ডাক্তার স্মরজিৎ জানার কথায়, ‘‘আমরা পদাতিকের মতো যৌনকর্মীদের সন্তানদের এত বড় মাপের সংগঠন আর কোথাও নেই৷ তবে, সমাজের বিভিন্ন অংশে এখনও বিভিন্ন ধরনের ছুঁতমার্গ রয়েছে৷ যৌনকর্মীদের সন্তানরাও বিভিন্ন ধরনের ছুঁতমার্গ থেকে মুক্ত নয়৷ সমাজের মূল স্রোতের সঙ্গে যৌনকর্মীদের সন্তানদের যুক্ত হওয়ার বিষয়টি সার্বিক ভাবে তখনই সফল হবে, যখন বিভিন্ন ধরনের ছুঁতমার্গ থেকে তাঁরা মুক্ত থাকতে পারবেন৷’’ সাধারণ মানুষের মানসিকতা উন্নত না হলে, কীভাবে বিভিন্ন ধরনের ছুঁতমার্গ থেকে মুক্ত হবে সমাজ? তবে, ওই উন্নত মানসিকতার দেখা কবে মিলবে, সেই বিষয়টি অজানা হলেও, তার জন্য লড়াই-ও জারি রাখতে হবে৷ আর, তাই, সেই লড়াই-ও জারি রেখেছে আমরা পদাতিক৷

আর/১৭:১৪/০৭ জুন

পশ্চিমবঙ্গ

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে